Children’s Eyesight: আপনার শিশুর দৃষ্টিশক্তি উন্নত করতে চান? খেয়াল রাখুন এই কয়েকটি বিষয়!

এরকম কোনও ঘটনা ঘটলে সবার আগে চেষ্টা করুন চোখের পরীক্ষা করানোর। সঠিক রোগের নির্ণয় হলে তবেই সম্ভব সেই রোগের সঠিক চিকিৎসা করা। আপনি যদি আপনার সন্তানের দৃষ্টিকে উন্নত করতে চান তাহলে খেয়াল রাখুন এই কয়েকটি বিষয়ের ওপর।

Children’s Eyesight: আপনার শিশুর দৃষ্টিশক্তি উন্নত করতে চান? খেয়াল রাখুন এই কয়েকটি বিষয়!
প্রতীকী ছবি

আপনার শিশুর কি পড়তে বসে চোখের সমস্যা হচ্ছে? আপনার শিশু কি টিভির কাছাকাছি বসে থাকে এবং মাথা ব্যথার অভিযোগ করে? তাহলে সময়ের আগেই সর্তক হয়ে যান। হতে পারে, আপনার সন্তানের দৃষ্টিশক্তিতে সমস্যা তৈরি হচ্ছে। এরকম কোনও ঘটনা ঘটলে সবার আগে চেষ্টা করুন চোখের পরীক্ষা করানোর। সঠিক রোগের নির্ণয় হলে তবেই সম্ভব সেই রোগের সঠিক চিকিৎসা করা। আপনি যদি আপনার সন্তানের দৃষ্টিকে উন্নত করতে চান তাহলে খেয়াল রাখুন এই কয়েকটি বিষয়ের ওপর।

চোখে যাতে কোনও রকম আঘাত না লাগে সেই বিষয়ে খেয়াল রাখুন। শিশুদের মধ্যে চোখে আঘাত লাগাটা খুব সাধারণ হয়ে গেছে, কিন্তু এটা আপনাকেই প্রতিরোধ করতে হবে। আপনার শিশুকে এমন কোনও বিপজ্জনক খেলানার সঙ্গে খেলতে দেবেন না, যেখান থেকে চোখের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আপনার সন্তান যদি ক্রিকেট বা ফুটবলের মত কোনও আউটডোর খেলার সঙ্গে যুক্ত থাকে তাহলে খেয়াল রাখুন যে তার চোখে কোনও রকম আঘাত না লাগে।

অনেক সময় স্যুইমিং পুলের জল থেকে চোখের সংক্রমণ হয়, তাই সাঁতার কাটার সময়ও আপনার সন্তান যেন চোখে চশমা ব্যবহার করে সেই বিষয়ে খেয়াল রাখুন। সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মির হাত থেকে শিশুর চোখকে বাঁচানোর জন্য সানগ্লাসের ব্যবহার করতে পারেন।

child eyesight

প্রতীকী ছবি

সাধারণ চোখের জ্বালা বা চুলকানি থেকে অন্য বড় রোগের সৃষ্টি হতে পারে। তাই এমন কিছু হলে আপনার শিশুকে চোখ রগরানো বিরত রাখুন, এতে ব্যাকটেরিয়া ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা বেশি। সেরকম হলে ঠাণ্ডা জলে চোখ ধুয়ে নিন। আপনার শিশু যদি চশমা বা কন্ট্যাক্ট লেন্স ব্যবহার করে, তাহলে সঠিক যত্ন মেনে পরিষ্কার ভাবে তা ব্যবহার করতে বলুন। এতে সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেকটা কমে যায়।

কিছু কিছু খাবার রয়েছে যা আপনার সন্তানের চোখের স্বাস্থ্য উন্নত করতে পারে। ভিটামিন এ, সি এবং ই, ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড এবং জিঙ্ক সমৃদ্ধ ফল, শাকসবজি এবং মাছকে খাদ্য তালিকায় যুক্ত করুন। স্বাস্থ্যকর ডায়েট বজায় রাখার পাশাপাশি, আপনার সন্তানের নিয়মিত ব্যায়াম করাও উচিত। ব্যায়াম সারা শরীরে রক্ত এবং অক্সিজেনের প্রবাহকে ধরে রাখে, যা চোখের স্বাস্থ্যের জন্যও উপযোগী।

ছয় মাস থেকে সাত বছরের শিশুদের জন্য এমন কিছু খেলা রয়েছে যা উন্নত করতে পারে আপনার সন্তানের চোখের স্বাস্থ্য। তবে আপনার শিশু যদি ক্রমাগত চোখ এবং মাথা ব্যথা নিয়ে অভিযোগ করতে থাকে তাহলে দেরি না করে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুন। কারণ এই ছোট ছোট বিষয়গুলি মায়োপিয়া (নিকটদৃষ্টি), হাইপারোপিয়া (দূরদর্শিতা) এবং অ্যাম্বিলোপিয়ার (অলস চোখ) মত সমস্যা তৈরি করতে পারে।

আরও পড়ুন: আপনার সন্তান কি নিয়মিত পেটের সমস্যায় কষ্ট পাচ্ছে? বেছে নিন একটি ঘরোয়া প্রতিকার!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla