Madhya Pradesh: ‘দুটো লাশ ফেলেছি, গিয়ে তুলে নিন’, রিভলভার হাতে থানায় এলেন মহিলা

Madhya Pradesh: প্রাথমিক তদন্তের পর, পুলিশ মনে করছে, সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরেই এই জোড়া খুনের ঘটনা ঘটেছে। থানায় এসে আত্মসমর্পণের পর, অভিযুক্ত সবিতা পুলিশকে জানিয়েছে, নিকটবর্তী হাইওয়ের পাশে তাদের ৫ কোটি টাকার একটি জমি আছে। সেই জমিটা কৌশলে দখল করতে চেয়েছিল তাঁর ভাসুর দীনেশ।

Madhya Pradesh: 'দুটো লাশ ফেলেছি, গিয়ে তুলে নিন', রিভলভার হাতে থানায় এলেন মহিলা
প্রতীকী ছবিImage Credit source: Pixabay
Follow Us:
| Updated on: Jan 02, 2024 | 4:35 PM

ভোপাল: বছরের প্রথম দিনই হাতে রিভলবার নিয়ে থানায় উপস্থিত এক মহিলা। থানায় পৌঁছেই সে বলেছিল, “স্বামী আর ভাসুরকে খুন করে এসেছি, গিয়ে লাশ তুলে নিন।” একথা শুনে হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন উপস্থিত পুলিশকর্মীরা। বছরের শুরুতেই জোড়া খুনের মামলা দায়ের হল মধ্য প্রদেশের উজ্জইন জেলায়। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে জেলা সদর থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দূরে ইঙ্গোরিয়া গ্রামে। ইঙ্গোরিয়া থানার ইনচার্জ চন্দ্রিকা সিং যাদব জানিয়েছেন, এই গ্রামের অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ৩৫ বছরের সবিতার বিরুদ্ধে তাঁর স্বামী, ৪১ বছরের রাধেশ্যাম এবং তাঁর ভাসুর ৪৭ বছরের দীনেশকে গুলি করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় রাধেশ্যামের। দীনেশকে গুরুতর আহত অবস্থায় বদনগর হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিল পুলিশ। চিকিৎসা চলাকালীন তাঁরও মৃত্যু হয়। প্রাথমিক তদন্তের পর, পুলিশ মনে করছে, সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরেই এই জোড়া খুনের ঘটনা ঘটেছে। থানায় এসে আত্মসমর্পণের পর, অভিযুক্ত সবিতা পুলিশকে জানিয়েছে, নিকটবর্তী হাইওয়ের পাশে তাদের ৫ কোটি টাকার একটি জমি আছে। সেই জমিটা কৌশলে দখল করতে চেয়েছিল তাঁর ভাসুর দীনেশ। এর জন্য তাঁর স্বামী রাধেশ্যামকে প্রায়শই নেশা করাতো সে। দাদার প্রভাবে নেশা করে রাধেশ্যাম প্রতিদিনই সবিতাকে মারধর করত।

সবিতার অভিযোগ, বছরের প্রথম দিন সকালেও তার স্বামী তাকে গালিগালাজ করতে শুরু করেছিল। প্রতিদিন একই ঘটনা পুনররাবৃত্তিতে বিরক্ত হয়ে খাটের নীচ থেকে রিভলভার বের করেছিল সবিতা। এরপর, প্রথমে ভাসুর এবং পরে স্বামীকে গুলি করে সে। সবিতার দাবি, তার দুই মেয়ে ও এক ছেলের ভবিষ্যতের স্বার্থেই সে এই অপরাধ করেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নীতীশ ভার্গব জানিয়েছেন, জমি সংক্রান্ত বিবাদের জেরেই ওই মহিলা এই জোড়া খুন করেছেন লে মনে হচ্ছে। অভিযুক্ত মহিলা খুনের অস্ত্র-সহ থানায় আত্মসমর্পণ করেছেন। ফরেন্সিক ল্যাবের দল ঘটনাস্থলে তদন্ত করে সূত্র সংগ্রহ করছে। এই সকল তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে।