Health Ministry’s Advice on Omicron: বাড়ানো হোক করোনা পরীক্ষা ও টিকাকরণের হার, ওমিক্রন রুখতে কড়া নজরদারির নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রকের

Health Ministry writes to All States: স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, "অভিযোজিত এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়লে, তা নিয়ন্ত্রণে আনতে পর্যাপ্ত সংখ্যক করোনা পরীক্ষা করার জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা প্রস্তুত রাখতে হবে। যদি পর্যাপ্ত সংখ্যক পরীক্ষা না হয়, তবে কীভাবে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে, তা জানা কঠিন হয়ে উঠবে।"

Health Ministry's Advice on Omicron: বাড়ানো হোক করোনা পরীক্ষা ও টিকাকরণের হার, ওমিক্রন রুখতে কড়া নজরদারির নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রকের
নয়া ভ্যারিয়েন্টের কথা মাথায় রেখে সতর্ক বিমানবন্দর। ফাইল চিত্র।

নয়া দিল্লি: ওমিক্রন ভ্য়ারিয়েন্টের (Omicron Variant) আতঙ্ক ছড়াতেই ফের একবার রাজ্য়গুলিকে সতর্ক করল কেন্দ্র। এদিন ফের একবার কেন্দ্রের তরফে নির্দেশিকা জারি করে কড়া নজরদারি (Surveillance)  ও কন্টেনমেন্ট জ়োন (Containment Zone) তৈরির কথা বলা হয়েছে। একইসঙ্গে টিকাকরণের (COVID Vaccination) হার বাড়ানোরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

চলতি সপ্তাহেই দক্ষিণ আফ্রিকায় (South Africa) প্রথম খোঁজ মেলে বি.১.১৫২৯ ভ্যারিয়েন্টের। বিশ্ব স্বাস্থ্য় সংস্থা(World Health Organization)-র তরফে ভ্যারিয়েন্টের নাম দেওয়া হয় ওমিক্রন (Omicron)। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এই নতুন ভ্যারিয়েন্টের স্পাইক প্রোটিনে কমপক্ষে ৩০ থেকে ৫০ বার অভিযোজন বা মিউটেশন হওয়ায়, ডেল্টা ভ্য়ারিয়েন্টের থেকেও বেশি শক্তিশালী ও অতি সংক্রামক হতে পারে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে এটিকে “উদ্বেগের কারণ” হিসাবেও চিহ্নিত করা হয়েছে।

ওমিক্রনের আতঙ্কের মধ্য়েই গতকাল জরুরি বৈঠকে বসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi)। সেই বৈঠকেই তিনি আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের প্রসঙ্গে কেন্দ্রের নিয়ম শিথিল করার যে পরিকল্পনা রয়েছে, সেগুলিকে পুনরায় পর্যালোচনা করে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই যে দেশগুলিতে ওমিক্রন ভ্য়ারিয়েন্টের খোঁজ মিলেছে, তাদের “ঝুঁকিপূর্ণ” দেশ হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই সমস্ত দেশগুলি থেকে আগত যাত্রীদের উপর কড়া নজরদারি রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পাঠানো নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, “ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট থেকে দেশকে রক্ষা করতে কঠোর কন্টেনমেন্ট, সর্বদা নজরদারি, করোনা টিকাকরণের হার বৃদ্ধি ও করোনাবিধি অনুসরণ করে চলা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।”

স্বাস্থ্য়মন্ত্রকের তরফে যে পদক্ষেপগুলি গ্রহণ করতে বলা হয়েছে, সেগুলি হল আন্তর্জাতিক যাত্রীদের উপর কড়া নজরদারি, করোনা পরীক্ষার হার বৃদ্ধি, সংক্রমণের কেন্দ্রস্থল বা হটস্পটগুলির উপর নজরদারি, দ্রুত জিনোম সিকোয়েন্সিংযের জন্য নমুনা পাঠানো ও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য পরিকাঠামো প্রস্তুত রাখার কথা বলা হয়েছে। চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক যাত্রীদের ভ্রমণের ইতিহাস বের করার জন্য আগে থেকেই একটি ব্যবস্থাপনা রয়েছে, রাজ্য়গুলি যেন সেই পদ্ধতি অনুসরণ করেই যাত্রীদের চিহ্নিতকরণ ও প্রয়োজনীয় রিপোর্ট করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Published On - 3:22 pm, Sun, 28 November 21

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla