Bhabanipur By-Election: কাটবে জটিলতা? মঙ্গলবার ভবানীপুর উপনির্বাচন মামলার রায়দান হাইকোর্টে

,Bhabanipur By-Election: রাজ্যে ২টি কেন্দ্রে বিধানসভা নির্বাচন স্থগিত ছিল। আর পাঁচ কেন্দ্রে বাকি ছিল উপনির্বাচন। কিন্তু নির্বাচন কমিশন মাত্র একটি কেন্দ্রে উপনির্বাচন ঘোষণা করে। সেটা ভবানীপুর।

Bhabanipur By-Election: কাটবে জটিলতা? মঙ্গলবার ভবানীপুর উপনির্বাচন মামলার রায়দান হাইকোর্টে
কলকাতা হাইকোর্টে এসএসসি গ্রুপ সি নিয়োগ মামলা (ফাইল ছবি)

কলকাতা: মঙ্গলবার ভবানীপুর উপনির্বাচন (Bhabanipur By Poll ) মামলার রায়দান রয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে (Calcutta High Court)। নির্বাচনী বিজ্ঞপ্তির কিছু অংশে আপত্তি জানিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছিল। সেই মামলারই রায়দান হবে মঙ্গলবার। শুক্রবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ ভবানীপুর উপনির্বাচন নিয়ে রায়দান স্থগিত রাখে।

প্রসঙ্গত, রাজ্যে ২টি কেন্দ্রে বিধানসভা নির্বাচন স্থগিত ছিল। আর পাঁচ কেন্দ্রে বাকি ছিল উপনির্বাচন। কিন্তু নির্বাচন কমিশন মাত্র একটি কেন্দ্রে উপনির্বাচন ঘোষণা করে। সেটা ভবানীপুর। ভবানীপুরের ভোট আটকাতে আইনি লড়াইয়ের পথে হাঁটতে পারে বলে নিশানা করেছিল বিজেপি। যদিও তারা ওই কেন্দ্রে ভোটে লড়ছে। অন্যদিকে কংগ্রেস ভবানীপুর কেন্দ্রে প্রার্থী না দেওয়ায় ওই কেন্দ্রে প্রার্থী দিয়েছে একুশের ভোটে তাদের জোট শরিক সিপিএম।

যদিও তার পরও ভবানীপুরে উপনির্বাচন ঘোষণার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে। ভবানীপুরের উপনির্বাচন আটকাতে মুখ্যসচিবের চিঠিকে হাতিয়ার করে কলকাতা হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন আইনজীবী সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়। মামলাকারীর প্রশ্ন, কেন রাজ্যের মুখ্যসচিব কেবলমাত্র একটি নির্দিষ্ট কেন্দ্রের জন্যই ভোট চাইলেন? মুখ্যসচিবের কি সেই এক্তিয়ার রয়েছে? তিনি তো নির্দিষ্ট একজনকে জেতাতে চাইছেন।

মামলাকারীর আরও অভিযোগ ছিল শুধুমাত্র ওই একটি আসনে ভোটের জন্য রাজ্যের মুখ্যসচিবকে ব্যবহার করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর দাবি, “মুখ্যমন্ত্রী আসলে মুখ্যসচিবকে ব্যবহার করেছেন ভবানীপুর কেন্দ্রে উপনির্বাচন চেয়ে। মুখ্যসচিব শুধু একটি কেন্দ্রের জন্য চিঠি লেখেন কমিশনকে।” কেন রাজ্যের মুখ্যসচিব একটি কেন্দ্রের জন্য ভোট চাইছেন? প্রশ্ন তুলেছেন ওই মুখ্যসচিবের  চিঠি বাতিলের আর্জি জানিয়ে মামলা দায়ের করেছেন কলকাতা হাইকোর্টে।

জনস্বার্থ মামলায় মামলাকারী আইনজীবীর দাবি, মুখ্যসচিবের লেখা এই চিঠি যেন বাতিল করা হয়। আদালতের কাছে এই আবেদনই জানিয়েছেন তিনি।

চলতি মাসের ১১ সেপ্টেম্বর কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের হওয়া জনস্বার্থ মামলায় সওয়াল করেন আইনজীবী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, “ভবানীপুরে তৃণমূলের হারা প্রার্থীর বিরুদ্ধে হারা প্রার্থী দিয়েছে বিজেপি। আমরা ফ্রেশ প্রার্থী দিয়েছি। সতেজ আইনজীবী। কেন্দ্রে ও রাজ্যে মানুষের হয়ে আমাদের লড়াই। তাই পুলিশ রাজের বিরুদ্ধে ভবানীপুরের মানুষের উচিত আমাদের প্রার্থীকে জেতানো।”

ভবানীপুর উপনির্বাচনের আর মাত্র এক দিন বাকি। তার আগেও আইনি জটিলতা কাটল না। এদিকে ভবানীপুরের উপনির্বাচন না হলে তৈরি হতে পারে সাংবিধানিক সঙ্কটও। গত শুক্রবার আদালতে একটি হলফনামা জমা দেয় কমিশন। কিন্তু আদালতে সেই হলফনামা গৃহীত হয় না। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দালের ডিভিশন বেঞ্চ তা গ্রহণ করেনি। শেষ পর্যন্ত এই রায়দান স্থগিত রাখা হয়।

প্রসঙ্গত, নদিয়ার শান্তিপুর, কোচবিহারের দিনহাটা, উত্তর ২৪ পরগনার খড়দহ ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার গোসাবায় উপনির্বাচন হওয়ার কথা। এই চারটি কেন্দ্রের ভোটের দিন এখনও ঘোষণা করেনি কমিশন।

আরও পড়ুন: Bhawanipore: রাতের ভবানীপুরে ফের উত্তেজনা, দুই যুবককে উইকেট দিয়ে মারধর, আঘাত থুতনিতে

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla