ছাপাখানার সামান্য ব্যবসায়ী থেকে দিঘায় হোটেলের মালিক, দু’বছরে কয়েক কোটির সম্পত্তি! কীভাবে শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠলেন রাখাল?

'তোলাবাজ ভাইপো'- ভোট প্রচারে বারবার বলেছেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। এবার দুর্নীতিতে নাম জড়াল নন্দীগ্রামের বিধায়কেরও। কাঁথিতে ত্রিপল চুরির মামলাতে তাঁর নাম করে এফআইআর হয়েছে। এদিকে, আবার মানিকতলায় সেচ দুর্নীতিতে ঘনিষ্ঠ শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ রাখাল বেরা (Rakhal Bera)।

ছাপাখানার সামান্য ব্যবসায়ী থেকে দিঘায় হোটেলের মালিক, দু'বছরে কয়েক কোটির সম্পত্তি!  কীভাবে শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠলেন রাখাল?
ফাইল ছবি
শর্মিষ্ঠা চক্রবর্তী

| Edited By: tannistha bhandari

Jun 07, 2021 | 11:30 AM

কলকাতা: ‘তোলাবাজ ভাইপো’- ভোট প্রচারে বারবার বলেছেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। এবার দুর্নীতিতে নাম জড়াল নন্দীগ্রামের বিধায়কেরও। কাঁথিতে ত্রিপল চুরির মামলাতে তাঁর নাম করে এফআইআর হয়েছে। এদিকে, আবার মানিকতলায় সেচ দুর্নীতিতে ঘনিষ্ঠ শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ রাখাল বেরা (Rakhal Bera)।

শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ রাখাল বেরাকে গ্রেফতার করেছে মানিকতলা থানার পুলিশ। দিঘার হোটেল ব্যবসায়ী রাখাল বেরা। শুভেন্দু সেচমন্ত্রী থাকাকালীন রাখাল চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা তোলেন বলে অভিযোগ। রাখাল যে শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ, তা রাখালের আইনজীবীও অস্বীকার করেননি।

মানিকতলা থানা সূত্রে খবর, আরও এক শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ নাম নিয়েছেন রাখাল বেরা, তিনি চঞ্চল নন্দী। কাঁথি পুরসভার এফআইআর-এ সরাসরি অধিকারীদের নাম লেখা রয়েছে। সেচ দফতরের তদন্তে এখনও বড় মাথাদের খুঁজছে পুলিশ। জোড়া ফৌজদারি তদন্তে তোলপাড় হতে শুরু করেছে রাজনীতি।

একবার দেখুন কে এই রাখাল বেরা? রাখাল বেরা, চঞ্চল নন্দী- রবিবার দুজনকে ঘিরেই তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। পুলিশের দাবি, রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ এই দুজনের যুগলবন্দিই চাকরির নামে প্রতারণা চক্র চালিয়ে গিয়েছে কয়েক বছর। ভ্যানিশ লক্ষ লক্ষ টাকা। প্রতারিত অসংখ্য।

বয়স ৬৮, সাদামেটা চেহারা। আদতে পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগরের বাসিন্দা। কলকাতা ও দিঘাতে তাঁর বিপুল সম্পত্তি। রাখালকে দেখে বোঝবার উপায় নেই, প্রতারণা চক্রের তিনি অন্যতম চাঁই। পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁকুরগাছিতে তাঁর ছাপখানার ব্যবসা রয়েছে। দিঘাতে হোটেল ব্যবসা রয়েছে রাখালের। কলকাতা-সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিপুল সম্পত্তির অধিকারী। শুভেন্দু অধিকারী কলকাতায় এলেই ছায়াসঙ্গী হিসাবে দেখা যেত রাখালকে।

রাখালের সঙ্গেই পুলিশের র্যাডারে তাঁর আরেক সাকরেদ চঞ্চল নন্দী। দুজনে মিলেই প্রতারণা চক্র চালাত বলে পুলিশের দাবি। ৬০ বছরের চঞ্চল নন্দী কাঁথি পুরসভার কর্মী। প্রতারিত সুজিতকে (যিনি প্রথম মানিকতলা থানায় তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন) রাখালের কাছে নিয়ে যান চঞ্চলই।

আরও পড়ুন: পরিবর্তিত সফরসূচি: আজ নয় দিঘা-মন্দারমণি, দুটি ভাগে কেন্দ্রীয় দল পরিদর্শন করবে কেবল দক্ষিণ ২৪ পরগনাই

দুজনের যুগলবন্দিতে ২০১৮-২০১৯এর মধ্যে কয়েক লক্ষ টাকার প্রতারণা হয়েছে। রাখাল এখন পুলিশের জালে। তবে চঞ্চলের টিকি এখনও ছোঁয়া যায়নি। পুলিশ রাখালের পাশাপাশি চঞ্চলকেও জেরা করতে চায়। তদন্তকারীদের দাবি, তাহলেই প্রতারণা চক্রের পিছনে থাকা আসল রাঘব বোয়াল পর্যন্ত পৌঁছানো যাবে।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla