Bhawanipur By Election: গোটা ভবানীপুরে চাই ১৪৪ ধারা! পুলিশের জন্য গ্যালারির ব্যবস্থা করতে বলল বিজেপি

Bhawanipur By Election: দিলীপ ঘোষ অবশ্য নির্বাচন না করার পক্ষেই সওয়াল করেছিলেন। কিন্তু বঙ্গ বিজেপি এ দিন ভবানীপুরে ১৪৪ ধারা জারি করে ভোট করানোর পক্ষে দাবি জানায় কমিশনের সামনে।

Bhawanipur By Election: গোটা ভবানীপুরে চাই ১৪৪ ধারা! পুলিশের জন্য গ্যালারির ব্যবস্থা করতে বলল বিজেপি
কমিশনের দফতরে বিজেপি নেতারা। নিজস্ব চিত্র

কলকাতা: ঘটনা যাই হোক, পুলিশ হামেশাই দর্শকের ভূমিকা নিচ্ছে। তাই ভবানীপুরে ১৪৪ ধারা জারি করে পুলিশকে দর্শকের ভূমিকাতেই রাখা হোক। সোমবার প্রচারের শেষ লগ্নে ভবানীপুরে (Bhawanipur By Election) গিয়ে দিলীপ ঘোষ ‘আক্রান্ত’ হওয়ার ঘটনার পর এই ভঙ্গিতেই কমিশনে ক্ষোভ উগরে দিল বিজেপি (BJP)। এ দিন মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দফতরে যান বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত। সঙ্গে ছিলেন শিশির বাজোরিয়াও। দু’জনেই ভবানীপুর নিয়ে একাধিক দাবি-দাওয়া রেখেছেন কমিশনের সামনে।

ভবানীপুরে শেষেবেলার ভোট প্রচারে গিয়ে বিজেপি নেতা এবং কর্মীদের যেভাবে ‘আক্রান্ত’ হতে হয়েছে, তার নেপথ্যে রাজ্য কমিশনের নিষ্ক্রিয় ভূমিকা রয়েছে বলেও মনে করছে বিজেপি। যা নিয়ে ক্ষোভে রীতিমতো ফেটে পড়েন স্বপন-শিশিররা। বিকেলে সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ অবশ্য নির্বাচন না করার পক্ষেই সওয়াল করেছিলেন। কিন্তু বঙ্গ বিজেপি এ দিন ভবানীপুরে ১৪৪ ধারা জারি করে ভোট করানোর পক্ষে দাবি জানায় কমিশনের সামনে।

বিজেপির দাবি, আজ ভবানীপুরে যে সময় দিলীপ-অর্জুনরা আক্রান্ত হন, সেই সময় আশেপাশে কোনও পুলিশের দেখা মেলেনি। তৃণমূলের যে কর্মীরা এই হামলার নেপথ্যে ছিল, তাঁরা সকলেই মদন মিত্রর অনুগামী বলেই অভিযোগ তোলা হয়েছে। কমিশনের কাছে নাম ধরে বিকি, ফারসা লাল্লু, লাডলা আহমেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে। স্বপনের অভিযোগ, “যখন আক্রমণের ঘটনা ঘটে, সেই সময় শুধু বিজেপি নেতাদের দেহরক্ষীরা ছিল। কোথাও আমরা কলকাতা পুলিশকে দেখলাম না। তারা অদৃশ্য হয়ে গিয়েছিল।”

এই প্রেক্ষিতেই বেশ কয়েকটি দাবি রাখা হয়েছে কমিশনের সামনে। তা হল- গোটা ভবানীপুর অঞ্চলে ১৪৪ ধারা জারি করা হোক। একটি রাস্তার উপর কার্ফু জারি করলে হবে না, সাফ কথা বিজেপির। যে কেন্দ্রীয় বাহিনীর ভূমিকা নিয়ে আজ প্রশ্ন উঠে গিয়েছে, সেই কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বুথের ভেতরে ও বাইরেও রাখতে হবে বলে দাবি জানানো হয়েছে। সব বুথে সিসিটিভি ক্যামেরা লাগিয়ে তার সরাসরি সম্প্রচার কমিশনের করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে কলকাতা পুলিশকে কটাক্ষ করে স্বপন বলেন, “নির্বাচন কমিশন যেন পুলিশের জন্য দর্শকদের বসার মতো একটা ব্যবস্থা করে দেয়। তারা দর্শক হিসেবেই থাকবে।”

আরও পড়ুন: Dilip Ghosh: অধীরদা যাই বলুন, কংগ্রেস দধীচির মতো বলিদান করে তৃণমূলকে গড়েছে

শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের দায়িত্ব যে কমিশনেরই, সে কথা আরও একবার মনে করিয়ে দিয়েছে বিজেপি। স্বপনের কথায়, শান্তিপূর্ণ নির্বাচন পরিচালনার সমস্ত দায়িত্ব কমিশনের কাঁধেই সঁপে দিয়েছে গেরুয়া শিবির। তবে নির্বাচন বাতিল করতে চাওয়ার কোনও দাবি যে এখনই বিজেপি জানাচ্ছে না, সেটা স্পষ্ট করে দিয়েছেন স্বপন দাশগুপ্ত।

আরও পড়ুন: Bhawanipore By-Election: ভবানীপুরের ভোটে বড় কোনও কোপ? বিকেলের মধ্যে রিপোর্ট চাইল কমিশন

 

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla