মুকুলকে ২৪ ঘণ্টা সময় দিলেন শুভেন্দু, বিধায়ক পদ না ছাড়লে কঠোর পদক্ষেপ

সোমবার রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে সাক্ষাতের পর সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়েই সুর চড়ান তিনি

মুকুলকে ২৪ ঘণ্টা সময় দিলেন শুভেন্দু, বিধায়ক পদ না ছাড়লে কঠোর পদক্ষেপ
অলংকরণ- অভীক দেবনাথ

কলকাতা: বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার জন্য মুকুল রায়কে ২৪ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। সোমবার রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে সাক্ষাতের পর সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়েই সুর চড়ান তিনি। আগামিকালের মধ্যে মুকুল রায় যদি বিধায়ক পদ না ছাড়েন, সেক্ষেত্রে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করার জন্য বিধানসভার স্পিকারের কাছে আবেদন জানানো হবে বলে জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা।

ভোট পরবর্তী হিংসার প্রসঙ্গও ফের আজ উঠে এসেছে শুভেন্দু অধিকারীর কণ্ঠে। তিনি বলেন, “আমরা ভেবেছিলাম শাসকদল ২১৩ আসন জিতে আসার পর অশান্তি বন্ধ হবে। কিন্তু এরপরও আমরা চন্দননগর এবং তিলজলার মতো ঘটনা দেখলাম।” পশ্চিমবঙ্গে নারীসুরক্ষাও বিপন্ন বলে এ দিন দাবি তুলেছেন তিনি। শুভেন্দুর অভিযোগ, ভোট মেটার পর থেকে রাজ্যে একাধিক ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু রাজ্য সরকার কোনও পদক্ষেপই করছে না বলে এ দিন দাবি করেছেন শুভেন্দু।

নন্দীগ্রামের বিধায়কের আরও অভিযোগ, ২ মে-র পর থেকে এ রাজ্যে ৩০০০-এর বেশি মামলা হয়েছে। যার মধ্যে ৯০ শতাংশই ভুয়ো। প্রয়োজনে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়ে এই মামলাগুলির সত্যতা যাচাই করতে সিবিআই তদন্তের দাবিও তিনি করবেন বলে জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন: ‘রাজ্যে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর হবে’, শুভেন্দুকে পাশে নিয়ে শাসানি ধনখড়ের

অন্যদিকে, মুকুল রায়ের সঙ্গে বিজেপি বিধায়কদের যোগাযোগ করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “উনি যখন বিজেপিতেও গিয়েছিলেন কয়েক লক্ষ লোককে নিয়ে যাবেন বলেছিলেন। কার সঙ্গে এখন যোগাযোগ আছে সেটা উনিই বলতে পারবেন।” পাশাপাশি মুকুলকে তাঁর হুঁশিয়ারি, “কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক যদি কালকের মধ্যে পদত্যাগ না করেন, তবে স্পিকারের কাছে লিখিতভাবে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করার জন্য আবেদন করব। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা ব্যাপারটা দেখছেন। আমরা আশা করব অধ্যক্ষ মহোদয় দ্রুত এর নিষ্পত্তি করবেন।”

আরও পড়ুন: ৩০ জুন পর্যন্ত বাড়ল বিধিনিষেধের সময়সীমা, তবে নিয়ম শিথিল হচ্ছে একাধিক ক্ষেত্রে

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla