৩০ জুন পর্যন্ত বাড়ল বিধিনিষেধের সময়সীমা, তবে নিয়ম শিথিল হচ্ছে একাধিক ক্ষেত্রে

সরকারি এবং বেসরকারি দফতরে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত কর্মীদের হাজিরায় ছাড় দেওয়া হয়েছে। তবে নতুন করে রেস্তোরাঁ খোলার সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

৩০ জুন পর্যন্ত বাড়ল বিধিনিষেধের সময়সীমা, তবে নিয়ম শিথিল হচ্ছে একাধিক ক্ষেত্রে
নিজস্ব চিত্র

কলকাতা: রাজ্যে বিধিনিষেধের সময়সীমা বাড়ল। ফলে ১৬ জুন থেকে কার্যত লকডাউন উঠে যাওয়ার জল্পনা তৈরি হলেও এখনও সেরকম কিছু হচ্ছে না। ৩০ জুন পর্যন্ত বাড়ল বিধিনিষেধ। যদিও একাধিক ক্ষেত্রে নিয়মের কড়াকড়ি শিথিল করা হচ্ছে। নবান্নে এক সাংবাদিক বৈঠক করে সোমবার এই ঘোষণা করেন রাজ্যের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী। তাঁর পাশেই ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে।

কোন কোন ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হচ্ছে?

সরকারি এবং বেসরকারি অফিসে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত কর্মীদের হাজিরায় ছাড় দেওয়া হয়েছে। সরকারি দফতরে কোনও সময়সীমা নেই। তবে বেসরকারি অফিস খোলা যাবে সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৪ টে পর্যন্ত।নতুন করে রেস্তোরাঁ খোলার সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে। দুপুর ১২ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত তা খোলা হবে। তবে ৫০ শতাংশ গ্রাহকের ঢুকতে পারবেন না। শপিং মলও খোলা হচ্ছে। কিন্তু সেক্ষেত্রেও কড়া নিয়ম বলবৎ থাকছে। ভ্যাকসিন নেওয়া থাকলে মর্নিং ওয়াকে ছাড় দেওয়া হয়েছে।

শপিং মল খোলার ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশ গ্রাহককে মলে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত মল খোলা যাবে। তবে কর্তৃপক্ষকে নিশ্চিত করতে হবে যেন সমস্ত কর্মীদের টিকা দেওয়া হয়। বাজার খোলা থাকবে সকাল ৭ টা থেকে ১১ টা পর্যন্ত স্ট্যান্ড অ্যালোন অর্থাৎ একক দোকানগুলি সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত খোলা যাবে। প্রাতঃভ্রমণের জন্য পার্কে ঢোকারও অনুমতি দেওয়া হবে, তবে সেটা ডোজ় ভ্যাকসিনেশন হওয়ার পরই সেই অনুমতি মিলবে। আগের নিয়ম মতোই আপাতত স্পা, জিম এবং মাল্টিপ্লেক্স ও সিনেমা হল বন্ধ থাকবে। রাত ৯ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত জারি থাকবে নাইট কার্ফু। জরুরি পরিস্থিতি বাদে ঘর থেকে বেরোন যাবে না।

আরও পড়ুন: শিশির অধিকারী, সুনীল মণ্ডলদের সাংসদপদ খারিজ করা হোক, লোকসভার অধ্যক্ষকে ফোন সুদীপের

ছাড় মিলছে টলিউড ইন্ডাস্ট্রির ক্ষেত্রেও। মুখ্যসচিব এ দিন জানিয়েছেন, ৫০ শতাংশ কর্মীদের কর্মী নিয়ে আউটডোর শ্যুটিংয়ের কাজ শুরু করা যাবে। স্বাস্থ্য পরিষেবার ক্ষেত্রে অটোয় ছাড় দেওয়া হবে। তবে ট্রেন এবং বাস চালানো নিয়ে আজও কোনও কথা বলা হয়নি। খেলাধুলো আগের মতোই হতে পারে, কিন্তু সেক্ষেত্রে তা দর্শকশূন্য হিসেবে করতে হবে। ব্যাঙ্ক খোলা থাকবে আগের মতোই, সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ২ টো পর্যন্ত।

আরও পড়ুন: বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসা: গোধরা-পরবর্তী গুজরাটের কথা উল্লেখ করে ‘সিট’ গঠনের আবেদন সুপ্রিম কোর্টে

 

 

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla