৯০০ কোটির দুর্নীতির অভিযোগের পালটা ফৌজদারি মামলার হুমকি তৃণমূলের

শুভেন্দু অধিকারীকে নিশানায় নিয়ে ব্রাত্য বলেন, "বিজেপি যার স্টিং অপারেশনের ভিডিয়ো ভাইরাল করেছিল তিনিই আবার দুর্নীতির অভিযোগ তুলছেন।"

  • TV9 Bangla
  • Published On - 16:21 PM, 5 Apr 2021
৯০০ কোটির দুর্নীতির অভিযোগের পালটা ফৌজদারি মামলার হুমকি তৃণমূলের
ছবি- ফেসবুক

কলকাতা: কয়লাপাচার কাণ্ডে তৃণমূলের যুব কংগ্রেস সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানায় নিয়ে রবিবার বিস্ফোরক অভিযোগ তোলে বিজেপি। সাংবাদিক বৈঠক করে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেন, এই মামলায় ৯০০ কোটির দুর্নীতি হয়েছে। সেই সাংবাদিক বৈঠকে প্রেক্ষিতে এ বার পালটা ফৌজদারি মামলা করার হুঁশিয়ারি দিল তৃণমূল কংগ্রেস। শাসকদলের পক্ষ থেকে এ দিন আবারও স্পষ্টভাবে জানানো হয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রাম ব্যাতীত কোনও আসনেই লড়বেন না। তবে কিছুটা খোঁচা দেওয়ার সুরে আশঙ্কা করা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেষ দুদফায় বাংলা থেকে লড়বেন কি না!

নাম না করে শুভেন্দু অধিকারীকে নিশানায় নিয়ে ব্রাত্য বলেন, “বিজেপি যার স্টিং অপারেশনের ভিডিয়ো ভাইরাল করেছিল তিনিই আবার দুর্নীতির অভিযোগ তুলছেন। সব সংস্থা কেন্দ্রের অধীনে রয়েছে। আমরা স্বাগত জানাচ্ছি সবরকম তদন্তকে। সেটা যেন নিরপেক্ষ হয়। কয়লা কাণ্ডে সবার প্রথমে কয়লামন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত।” একই সঙ্গে বিজেপির গতকালের সাংবাদিক বৈঠকের পালটা ফৌজদারি মামলা করা হবে হলেও জানান তিনি। যদিও সেই মামলা কার বিরুদ্ধে হবে তা খোলসা করেনি তৃণমূল।

রাফাল মামলাতেও এ দিন চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে আনার হুমকি দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের তরফে। রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েনকে বলতে শোনা যায়, “রাফাল মামলায় এতদিন কী চুপি চুপি রাখা হয়েছিল?” হাজারিবাগ থেকে সাংবাদিক বৈঠক করে সেই তথ্য তৃণমূলের সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি যশবন্ত সিনহা প্রকাশ্যে আনবেন বলে দাবি করেন ডেরেক।

সিরিয়াল নং ৪! আবারও একই কায়দায় বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, মাথার পিছনে একাধিক আঘাত  

তৃণমূল ভবনে ব্রাত্য বসু আরও বলেন, “প্রথম দু’দফায় বিজেপি ক্রমশ কোণঠাসা হয়েছে। আতঙ্কিত হচ্ছে। নন্দীগ্রামের পর মমতা অন্য কোথাও লড়ছেন। এরকম ভুয়ো গুজব ওদের সর্বভারতীয় স্তর থেকে ছড়ানো হয়েছে। মমতা দেশের প্রধানমন্ত্রী নন যে ভয়ে দুটো আসন থেকে লড়বেন। হালে পানি না পেয়ে এরপর বোধহয় ওরা ঘোষণা করবে, সপ্তম বা অষ্টম দফায় প্রধানমন্ত্রী এসে এখানে ভোটে লড়বেন। হয়তো এই গুজবের দিকেও বিজেপি যাবে।”