West Bengal Health Recruitment Board: ‘দুর্নীতির খুব একটা..’, বলেই সাফাই স্বাস্থ্যে নিয়োগ কর্তা তথা বিধায়কের

WBHRB Chairman: হেল্থ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল বিধায়ক সুদীপ্ত রায় জানিয়েছেন, এমন কিছু হয়েছে বলে তাঁর মনে হয় না। বললেন, "দুর্নীতির স্কোপ খুব একটা কিছু নেই। যে পদ্ধতিতে আমরা বাছাই করছি, প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত প্রত্যেকের রেজাল্ট ওয়েবসাইটে দেওয়া হচ্ছে। সেটা যে কেউ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটে দেখে নিতে পারেন।"

West Bengal Health Recruitment Board: 'দুর্নীতির খুব একটা..', বলেই সাফাই স্বাস্থ্যে নিয়োগ কর্তা তথা বিধায়কের
হেল্থ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান তথা বিধায়ক সুদীপ্ত রায়Image Credit source: Facebook
Follow Us:
| Edited By: | Updated on: Dec 02, 2023 | 11:59 AM

কলকাতা: শিক্ষা, পুরসভার পর এবার স্বাস্থ্য ক্ষেত্রেও নিয়োগে বেনিয়ম? রাজ্যের হেল্থ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর অভিযোগ তুলে বিস্তারিত তথ্য জানতে আরটিআই আইনে চিঠি পাঠিয়েছেন বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই নিয়ে শুক্রবার এক্স হ্যান্ডেলে পোস্টও করেছেন তিনি। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে এবার পাল্টা দিলেন হেল্থ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল বিধায়ক সুদীপ্ত রায়। বেনিয়মের অভিযোগ প্রসঙ্গে টিভি নাইন বাংলাকে সুদীপ্তবাবু জানিয়েছেন, এমন কিছু হয়েছে বলে তাঁর মনে হয় না। বললেন, “দুর্নীতির স্কোপ খুব একটা কিছু নেই। যে পদ্ধতিতে আমরা বাছাই করছি, প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত প্রত্যেকের রেজাল্ট ওয়েবসাইটে দেওয়া হচ্ছে। সেটা যে কেউ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটে দেখে নিতে পারেন।”

কিন্তু দুর্নীতির স্কোপ খুব একটা নেই? এমন কেন বলছেন হেল্থ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান? প্রশ্ন করাতেই তাঁর সাফাই, “দুর্নীতি নেই, দুর্নীতি নেই। খুঁজে পাবেন না।” এদিকে শুভেন্দু অধিকারীর টুইট ঘিরে রাজ্যের স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে ও চিকিৎসক মহলে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে। সার্ভিস ডক্টর্স ফোরামের সম্পাদক সজল বিশ্বাসও উস্কে দিচ্ছেন, নিয়োগে কোটি কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ। বদলির ক্ষেত্রেও বিস্তর বেনিয়ম ও দুর্নীতি রয়েছে বলে অভিযোগ সজল বিশ্বাসের। তাঁর বক্তব্য, এই নিয়ে সার্ভিস ডক্টর্স ফোরাম আগেও একাধিকবার সরব হয়েছে। যে আরটিআই করা হয়েছে, তাতে পূর্ণাঙ্গ তথ্য প্রকাশ্যে এলে বিস্ফোরক তথ্য বেরিয়ে আসবে বলেই মনে করছেন তিনি।

চিকিৎসক সংগঠনের নেতা মানস গুমটাও এই নিয়ে খোঁচা দিচ্ছেন রাজ্যের শাসক শিবিরকে। বিরোধী দলনেতার আরটিআই-এর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন তিনি। তাঁর বক্তব্য, “স্বাস্থ্যে দুর্নীতির যথাযথ তদন্ত হলে কেঁচো খুঁড়তে কেউটে নয়, অ্যানাকোন্ডা বেরিয়ে পড়বে। স্বাস্থ্যে নিয়োগ দুর্নীতি, বদলি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আমরা বলে আসছি। কেউ কোন‌ও কর্ণপাত করেনি। তদন্ত হলে স্বাগত।”