Biswakarma Puja: বিশ্বকর্মা মানে দিনেও ঘুড়ি রাতেও ঘুড়ি

Kite Story: রাতের আকাশে ঘুড়ি? কলকাতার আকাশে রাতে ঘুড়ি উড়তে কেউ দেখেছে কখনও?

পাড়ায় পাড়ায় প্যান্ডেল । দুর্গা পুজোর প্রস্তুতি। ঠিক এই সময়টা বিশ্বকর্মা পুজো । বিশ্বকর্মা পুজো মানে ঘুড়ি ওড়ানোর দিন। স্বাধীনতা দিবসের আকাশে তেরঙা ঘুড়ি আর বিশ্বকর্মার আকাশে আবাহনী।বিশ্বকর্মা পুজো মানেই সকাল থেকে সারাদিন ছাদে। ঘুড়ি ওড়ানো । প্যাঁচ খেলা। তাবলে রাতের আকাশে ঘুড়ি? কলকাতার আকাশে রাতে ঘুড়ি উড়তে কেউ দেখেছে কখনও?
এবার রাতেও ঘুড়ি উড়ছে ।দক্ষিণ কলকাতা সরকার বাড়ি , ঘুড়ির বাড়ি তিন প্রজন্ম ধরে। বর্তমান প্রজন্ম তৈরি করে ফেলেছে লাইট কাইট। তিন বছরের প্রচেষ্টার পর এই বিশ্বকর্মা পুজোয় তারা ফাইনালি রাতের আকাশে ঘুড়ি ওড়াচ্ছেন। ভাবছেন এ কেমন ঘুড়ি। রাতের আকাশ আলো করে উড়ছে সরকার পরিবারের এই নতুন আবিষ্কার।বিশ্বকর্মা মানে দিনেও ঘুড়ি রাতেও ঘুড়ি! পাঁচ তেলের বিশালাকার ঘুড়ি। তাতে লাগানো বিদ্যুৎ বাতি । এতদিন ধরে চেষ্টা চলেছে। উড়তে গিয়ে মুখ থুবড়ে পড়েছে। এই বিশ্বকর্মার দিনে সাফল্য স্বীকৃতি পেল এই পরীক্ষা-নিরীক্ষা। সবাই ভেবেছিলো বোধহয় দক্ষিণ কলকাতার আকাশে দেখা গেছে এলিয়েন। ভুল ভাঙলো তারপর। এ যে ঘুড়ির ওপর জ্বলছে স্টারলাইট আর ট্রাই কালার লাইট। ” সরকারবাড়ি দুটি বিষয়ের জন্য সবার কাছে পরিচিত এক ঘুড়ি অন্যটি কালিপুজোর সময় আতশবাজি। ” জানালেন গৃহকর্তা দীপক সরকার। এমনকি বাঙালির ফুটবল প্রিয়তা ধরা দিয়েছে ঘুড়িতেই। আর্জেন্টিনা থেকে ব্রাজিলে মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গল সবই ফুটে উঠেছে ঘুড়িতে। এলিয়েনের বিষয়টি পাড়ার মানুষের কাছে পরিষ্কার হয়ে যায় পরদিনই । তবুও সন্ধ্যাবেলা লাইট কাইট ওড়ানোর আগেই সরকার বাড়ির ছাদ থেকে আদেশ আসে ” কেউ কাটবে না”।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla