Purba Medinipur: বিজেপি কর্মী বাড়ি-গাড়ি লক্ষ্য করেই ছোড়া হচ্ছে বোমা, খবর পেয়ে ছুটলেন বিধায়ক

অভিযোগ বিজেপি কর্মীদের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি চলে। রাস্তায় একের পর এক বোমা ফাটানো হয়। বিজেপি কর্মীদের গাড়ি লক্ষ্য করেও বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ।

Purba Medinipur: বিজেপি কর্মী বাড়ি-গাড়ি লক্ষ্য করেই ছোড়া হচ্ছে বোমা, খবর পেয়ে ছুটলেন বিধায়ক


পূর্ব মেদিনীপুর: কয়েকদিন শান্ত থাকার পর ফের উত্তপ্ত পূর্ব মেদিনীপুরের ময়না। বোমাবাজিতে উত্তপ্ত ময়না থানার বাকচা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা। বাকচার গোড়ামহাল, বাকচা তরুণ বুথ সহ পার্শ্ববর্তী এলাকায় বুধবার রাত থেকে দফায় দফায় বোমাবাজি। ভোর রাতে থেকেও চলেও শতাধিক বোমার তান্ডব।

অভিযোগ বিজেপি কর্মীদের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি চলে। রাস্তায় একের পর এক বোমা ফাটানো হয়। বিজেপি কর্মীদের গাড়ি লক্ষ্য করেও বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ। ভাঙচুর চালানো হয় ঘরে ঘরে। অভিযোগ ওঠে স্থানীয় তৃণমূলের নেতাদের বিরুদ্ধেই। তাঁদের নেতৃত্বেই দুষ্কৃতীরা এই তাণ্ডব চালায় বলে দাবি বিজেপি কর্মীদের। এলাকায় ব্যাপক সন্ত্রাস তৈরির চেষ্টা হয় বলে অভিযোগ।

বৃহস্পতিবারও দফায় দফায় চলে বোমাবাজি। এলাকায় বিভিন্ন জায়গায় পড়ে রয়েছে একাধিক তাজা বোমা। মানুষের অভিযোগ আসল এলাকা গুলিতে পুলিশের দেখা মেলেনি। সকাল থেকে পড়ে থাকা তাজা বোমা গুলিও উদ্ধার করেনি পুলিশ।

আজ এলাকায় পৌঁছন বিজেপি বিধায়ক অশোক দিন্দা। তিনি এলাকার কর্মী ও মানুষের পাশে সব রকম ভাবে থাকার আশ্বাস দেন। অপরদিকে এই ঘটনা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে তৃণমূল। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে পুলিশ বলে সূত্রে খবর। তবে কতজনকে আটক করা হয়েছে, সেই সংখ্যা নিয়েও পুলিশ মুখে কুলুপ এঁটেছে।

এ দিকে, উত্তপ্ত পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরিও। অভিযোগ, বুধবার রাতভর চলেছে বাড়ি ভাঙচুর, বোমাবাজি, গুলিবর্ষণ। ঘটনায় তৃণমূল-বিজেপি একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন। এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী ও র‍্যাফ। বুধবার, হার্মাদ দিবস উপলক্ষ্যে তৃণমূল ও বিজেপি পৃথক পৃথক সভা করেন। এরপর রাত থেকেই ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে খেজুরি।

জানা গিয়েছে, খেজুরি ২ নম্বর ব্লকের কটকা, দেবীচক, গোরাহাট ও জলপাই ও মুণ্ডমারির একাধিক গ্রামে ভাঙচুর করা হয় বাড়িঘর। রাতভর বোমাবাজি ও গুলিবর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। বোমাবাজির ফলে ভেঙে যায় একের পর এক বাড়ি। আচমকা বোমাবাজির জেরে আতঙ্কিত এলাকাবাসী। ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয় বিশাল পুলিশবাহিনী। স্থানীয় এক গ্রামবাসীর কথায়, “সারারাত ধরে বোম পড়ছে। আওয়াজে ঘুমোতে পারিনি। কে বা কারা এসব করেছে জানি না। অনেক বাড়ি ভেঙে গিয়েছে। আমরা বাঁচব কি না জানি না।”  যদিও, বোমাবাজির ঘটনায় একে অন্যের দিকেই আঙুল তুলেছে তৃণমূল-বিজেপি।

কাঁথি সাংগঠনিক জেলার বিজেপি সাধারণ সম্পাদক তাপস দলাই বলেন, “রাতের অন্ধকারে এলাকা দখল করতে তৃণমূলের  কিছু হার্মাদ বাহিনী বিজেপি কর্মীর বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি করে। ভাঙচুর করে একের পর এক বাড়ি। এলাকার মানুষদের লক্ষ করে গুলি চালায়। পুলিশকেও জানানোর পর কোনওরকম ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন।”

আরও পড়ুন: ভোটের নামে প্রহসন! ফের একবার সুপ্রিম কোর্টে যাচ্ছে তৃণমূল

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla