Swastha Sathi Card: ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্তকে নিয়ে হাসপাতালে ছুটছে অ্যাম্বুল্যান্স, পথেই হয়ে গেল স্বাস্থ্যসাথী কার্ড

Swastha Sathi: সঙ্কটজনক এক রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে অ্যাম্বুল্যান্সেই তাঁর স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করে দিলেন পুরসভার আধিকারিকরা।

Swastha Sathi Card: ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্তকে নিয়ে হাসপাতালে ছুটছে অ্যাম্বুল্যান্স, পথেই হয়ে গেল স্বাস্থ্যসাথী কার্ড
অ্যাম্বুল্যান্সেই রোগীর স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করে দিল পুরসভা। নিজস্ব চিত্র।

হুগলি: স্বাস্থ্যসাথী (Swastha Sathi) কার্ড নিয়ে অভিযোগ যেমন বিস্তর উঠেছে, তেমনি সেই অনুযোগ-অভিযোগ দূর করতে সচেষ্ট হয়েছে রাজ্য সরকার। শুরু হয়েছে হেল্প লাইন। এই প্রেক্ষিতে প্রশংসনীয় এক উদ্যোগ নিতে দেখা গেল বৈদ্যবাটী পুরসভাকে। সঙ্কটজনক এক রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে অ্যাম্বুল্যান্সেই তাঁর স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করে দিলেন পুরসভার আধিকারিকরা। তাদের এহেন উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করল রোগীর পরিবার।

জানা গিয়েছে, সোমবার গভীর রাতে বৈদ্যবাটী পুরসভার আট নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা সবিতা দাসের ব্রেন স্ট্রোক হয়। বছর ৪২- এর ওই মহিলাকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে পরিবার। এদিন তাঁকে অ্য়াম্বুল্যান্সে করে চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করেন পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু দুপুর থেকে সবিতা দেবীর শারীরিক পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়। চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালের চিকিৎসকেরা রোগীকে কলকাতার কোনও হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন।

এর পর সবিতা দেবীকে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রোগী পরিবার। এদিকে রোগীর স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নেই। পারিবারিক অর্থনৈতিক স্বচ্ছলতাও নেই। কলকাতায় নিয়ে গেলে তো অনেক খরচ। কোথায় পাবেন এত টাকা। তার পর যদি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়, তখন কী করবেন! এসব ভাবতে ভাবতে শম্ভু দাস বৈদ্যবাটি পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর বিশ্বজিৎ রায়ের সঙ্গে কথা বলেন রোগীর পরিবার। আবেদন করেন যদি কিছু একটা করা যায়।

এদিকে বৈদ্যবাটি বিবেকান্দ হাইস্কুলে স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের কাজ চলছে। বিশ্বজিৎবাবু জানান, কলকাতা যাওয়ার আগে অ্যাম্বুল্যান্সটা যদি সেদিক দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়, একটা ব্যবস্থা করা যায়। তাঁর পরামর্শ মতো ওই স্কুলের সামনে পৌঁছয় অ্যাম্বুল্যান্স। বিদায়ী কাউন্সিলরের কাছ থেকে খবর পেয়েছিলেন আগেই। তাই স্কুলের কাছে অ্যাম্বুল্যান্স পৌঁছতে সেখানেই তাঁর স্বাস্থ্যসাথী কার্ড বানিয়ে দেন আধিকারিকরা।

পরিবারের সদস্যরা সোজা কলকাতা যাওয়ার পথে বিবেকানন্দ স্কুলে যান। সেখানে পুরসভার কর্মীরা অ্যাম্বুল্যান্সের ভিতর রোগীর বায়োমেট্রিক করান। তাঁর ছবি তোলেন। তারপর সঙ্গে সঙ্গে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করে দেন। কার্ড নিয়ে অসুস্থ সবিতা দেবীকে নিয়ে অ্যাম্বুল্যান্স রওনা দেয় কলকাতার হাসপাতালের উদ্দেশে। পুরসভার এমন উদ্যোগের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েেছেন রোগীর পরিবারের সদস্যরা। আর পুরসভার তরফে জানানো হচ্ছে, তারা পরিষেবা দিতে পেরে খুশি। নিজেদের দায়িত্বটুকুই পালন করেছেন। এখন সবিতা দেবী সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরে আসুন, এটাই তাঁদের প্রার্থনা।

আরও পড়ুন: Extra Marital: প্রেমিকের বাইকে চড়ে টাটা করলেন টুম্পা, অপমানে শ্বশুরবাড়িতে আত্মঘাতী স্বামী 

আরও পড়ুন: TMC Clash: তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ, ভর দুপুরে চলল বোমা-গুলি, আহত ৬

আরও পড়ুন: Coal Scam: কয়লা কাণ্ডে জামিন লালার ৪ সহযোগীর

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla