Pregnant Woman Beaten: ফরমান মানেননি, ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি মারলেন তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধান!

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: সৈকত দাস

Updated on: Jan 02, 2022 | 12:19 PM

Khanakul: পঞ্চায়েত প্রধান ও তাঁর দলবলের আক্রমণে আক্রান্ত ওই অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর শারীরিক পরিস্থিতি বেশ আশঙ্কাজনক। তাঁর পেটের সন্তানের অবস্থাও খারাপ আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকেরা।

Pregnant Woman Beaten: ফরমান মানেননি, ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি মারলেন তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধান!
পঞ্চায়েত প্রধানের মারে আহত অন্তঃসত্ত্বা। নিজস্ব চিত্র।

আরামবাগ: তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধানের (TMC Panchayat Chief) ফরমান মেনে চলতে হয় এলাকায়। অভিযোগ, একটু এদিক-ওদিক হলেই শুরু হয় আক্রমণ। আর এবার পঞ্চায়েত প্রধানের ফরমান অগ্রাহ্য করায় এক ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে ব্যাপক মারধরের অভিযোগে তীব্র চাঞ্চল্য খানাকুলে। অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি মারার অভিযোগ উঠল এলাকার গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের বিরুদ্ধে!

জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত প্রধান ও তাঁর দলবলের আক্রমণে আক্রান্ত ওই অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর শারীরিক পরিস্থিতি বেশ আশঙ্কাজনক। তাঁর পেটের সন্তানের অবস্থাও খারাপ আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকেরা।

শুধু তাই নয়, আক্রান্ত ওই গৃহবধূর স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি ও দেওরকেও বেধড়ক পেটানো হয় বলে অভিযোগ। আরে তাতে সরাসরি আঙুল উঠেছে তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধান আসিক ইকবালের দিকে। ঘটনার জেরে এলাকায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে। জানা গিয়েছে, আক্রান্ত ওই অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর নাম আলেনুর খাতুন। আক্রান্ত হন তাঁর স্বামী সেখ মহাম্মদ ইয়াসিন, তাঁর মা সাহিদা বেগম ও ভাই সেখ মহাম্মদ মহসিন।

অভিযোগ, স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের ফরমান মেনে চলতে হয় এলাকাবাসীকে। তাঁর কথা শুনে চলতে হবে, তাঁরই কথা মতো থাকতে হবে। আর তিনি যা বলবেন, সেটাই কর‍তে হবে। এলাকার মহিলাদেরও তাঁর কথা মতো চলতে হবে। আর তা না হলে, না মানতে পারলে, কপালে দুর্ভোগ আছে। প্রধানের এমনই ফরমানে অতিষ্ঠ এলাকার বাসিন্দারা। এই পঞ্চায়েত প্রধানের এই ফরমান মানতে পারবেন না বলে তার প্রতিবাদ করায় নৃশংস ভাবে মার খেতে হল এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে। তাঁর পেটে লাথি মারেন পঞ্চায়েত প্রধান আসিক ইনবাল বলে অভিযোগ। প্রধানের লাথিতে মারাত্মক ভাবে জখম হন ওই গৃহবধূ।

অসহ্য পেটের যন্ত্রণা নিয়ে তাঁকে প্রথমে খানাকুল গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে আরামবাগ মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু এখানেও অবস্থার অবনতি হলে গৃহবধূকে বর্ধমান মেডিকেল হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পাশাপাশি ওই গৃহবধূর শ্বশুর, শাশুড়ি ও দেওরকেও ব্যাপক ভাবে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটেছে খানাকুলের পোল ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের চকভেদুয়া গ্রামের।

এই ঘটনার জেরে আক্রান্ত পরিবার খানাকুল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। যদিও এই বিষয়ে পোল ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আসিক ইকবাল গোটা ঘটনার কথা অস্বীকার করেছেন। এ নিয়ে আবার খানাকুল ১ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি তথা তৃণমূল নেতা নঈনুল হকের প্রতিক্রিয়া, “শুনেছি ঘটনাটা সত্যি। হয়তো পয়সা-টয়সা চাইছিল, দেয়নি। ও তো একটু নোংরামো করছে, শুনেছি।” তিনি জানান, এতে দলের ক্ষতি হচ্ছে। জেলা সভাপতি এ নিয়ে কথা বলুন।

এদিকে আক্রান্তের পরিবারের আত্মীয় স্বজনের অভিযোগ, “এই ভাবেই আমাদের গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান লাগাতার ভাবেই এলাকায় অত্যাচার করে বেড়ান। তার সঙ্গে থাকতে হবে। তার সঙ্গে ঘুরতে হবে। তার কথা মতো চলতে হবে। এমনই ফরমান জারি করে প্রধান এলাকা দাপিয়ে বেড়ান। আর যে না শুনবে তার কপালে জুটবে এমনই অত্যাচার। আমরা মানতে পারিনি।”

তাঁরা আরও যোগ করেন, “পরিবারের মহিলারা মানতে পারেনি ওনার ফরমান। তাই প্রধান নৃশংস ভাবে অত্যাচার করে গেল আমাদের বাড়িতে এসে।” এদিকে অভিযুক্ত তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধান আসিক ইকবালের যুক্তি, ‘এটা একটা পারিবারিক বিবাদ। আমার সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই। আমি কাউকে আঘাত করিনি। আমার নামে মিথ্যা অপবাদ দেওয়া হচ্ছে।’ এই বিষয়ে খানাকুল থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। কিন্তু পুলিশ কোন পদক্ষেপ করেনি বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন: Omicron in Bengal: বাংলায় ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২০, দেশে ১,৫২৫!

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla