ছোট্ট মেয়েটিকে স্কুল ঘরে ডাকে ‘দাদা’, প্রথম শ্রেণির ছাত্রীর কথায় ফুঁসছে গোটা গ্রাম!

স্থানীয়দের কথায়, চোখমুখ ছলছল করছিল তার। চুল উসকোখুসকো ছিল।

ছোট্ট মেয়েটিকে স্কুল ঘরে ডাকে 'দাদা', প্রথম শ্রেণির ছাত্রীর কথায় ফুঁসছে গোটা গ্রাম!
অভিযুক্ত নাবালক
শর্মিষ্ঠা চক্রবর্তী

|

Jan 24, 2021 | 12:10 PM

মালদহ: স্কুলের মাঠেই খেলছিল প্রথম শ্রেণির ছাত্রীটি। পাড়ারই ‘দাদা’ তাকে বলেছিল বিয়েবাড়ি নিয়ে যাবে। বিশ্বাস করে ‘দাদা’র হাত ধরেই এগিয়েছিল সে। সাত বছরের ছোট্ট মেয়েটিকে স্কুল ঘরে ঢুকিয়ে হাত পা বেঁধে ‘ধর্ষণ’ করল বছর পনেরোর এক যুূবক। অভিযোগ ঘিরে উত্তেজনা মালদার (Maldah) ভূতনি গ্রামের দক্ষিণ চণ্ডীপুর গ্রামের সনাতনটোলায়। অভিযুক্ত যুবককে গণপিটুনি দেওয়ার পর তুলে দেওয়া হল পুলিসের হাতে।

দক্ষিণ চণ্ডীপুর গ্রামেরই বাচ্চা মেয়েটি ছুটির দিনে স্কুল মাঠে খেলছিল। আচমকাই তাকে দেখতে পান না গ্রামবাসীরা। খোঁজ শুরু হয়। পরে তাকে ফের স্কুল ঘরের বাইরে দেখা যায়। স্থানীয়দের কথায়, চোখমুখ ছলছল করছিল তার। চুল উসকোখুসকো ছিল। কিছু একটা ঘটেছে ভেবেই তাকে জিজ্ঞাসা করতে থাকেন পাড়ার ‘কাকু’রা। পরে কেঁদে দেয় ছোট্ট মেয়েটি।

প্রতিবেশীদের কথায়, মেয়েটি জানিয়েছে, স্কুল মাঠে খেলার সময়ই বছর পনেরোর ওই নাবালক তাকে ডাকে। বিয়ে বাড়ি নিয়ে যাবে বলে স্কুলের ঘরে ঢুকিয়ে দেয় সে। এরপর হাত পা বেঁধে তাকে ধর্ষণ করে।

আরও পড়ুন: খুবলে গিয়েছে চোখের ওপর থেকে মাথার একাংশ, টিভি দেখার সময় মর্মান্তিক পরিণতি!

খবর ছড়াতেই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে গোটা গ্রামে। গ্রাম থেকেই খুঁজে বার করা হয় নাবালককে। তাকে দেওয়া হয় উত্তম মধ্যম। এরপর তাকে তুলে দেওয়া হয় পুলিসের হাতে। এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় পুলিস মোতায়েন করা হয়েছে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla