Dilip Ghosh: ‘ওঁরা ওয়াশিংটনে যান, রাষ্ট্রপুঞ্জেও যেতে পারেন,’ তৃণমূল সাংসদদের ধরনায় কটাক্ষ দিলীপের

Dilip Ghosh on Tripura Incident: ত্রিপুরার তৃণমূল আক্রান্ত ও সায়নী ঘোষ গ্রেফতারের প্রেক্ষিতে দিলীপের ব্যঙ্গাত্মক মন্তব্য, "ওঁরা রাস্তায় গান গাইছিল, বাড়ির সামনে গিয়ে খেলা হবে স্লোগান দিলে আক্রান্ত তো হবেনই।''

Dilip Ghosh: 'ওঁরা ওয়াশিংটনে যান, রাষ্ট্রপুঞ্জেও যেতে পারেন,' তৃণমূল সাংসদদের ধরনায় কটাক্ষ দিলীপের
তৃণমূলের বিক্ষোভ প্রসঙ্গে কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের। ফাইল চিত্র।

বসিরহাট: ত্রিপুরার তৃণমূলের উপর আক্রমণের ঘটনায় কটাক্ষ ছুড়ে দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ‘দুটো ঢিল পড়েছে, তার জন্য নাকি দিল্লি আবার রাষ্ট্রপতি!’ এবার আরও এক কদম এগিয়ে তৃণমূল সাংসদদের ধরনা নিয়ে ব্যঙ্গ করলেন তিনি। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতির কটাক্ষ, ‘ওঁরা ওয়াশিংটনে যান, রাষ্ট্রপুঞ্জেও যেতে পারেন’।

বসিরহাট মহকুমার স্বরূপনগর থানার গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েত পূর্ব পোলতা গ্রামে রাস মেলা নিয়ে একটি বিক্ষিপ্ত অশান্তির ঘটনা ঘটেছিল। সোমবার বিকালে সেই গ্রামেই বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ সরেজমিনে পরিদর্শনের আসেন। সেখানে ত্রিপুরার তৃণমূল আক্রান্ত ও সায়নী ঘোষ গ্রেফতারের প্রেক্ষিতে দিলীপের ব্যঙ্গাত্মক মন্তব্য, “ওঁরা রাস্তায় গান গাইছিল, বাড়ির সামনে গিয়ে খেলা হবে স্লোগান দিলে আক্রান্ত তো হবেনই।”

এদিকে ত্রিপুরার ঘটনার জেরে রাজধানীতে আজ একগুচ্ছ কর্মসূচি নিয়েছিল ঘাসফুল শিবির। ধরনাও দেন সাংসদরা। দিল্লিতে তৃণমূল সাংসদের এই ধরনা নিয়ে বিজেপি সাংসদের কটাক্ষ, “ওঁরা ওয়াশিংটন যেতে পারেন। রাষ্ট্রপুঞ্জেও যেতে পারেন। এতে কিছু যায় আসে না।”

এদিনই তৃণমূলের দিল্লি সফর নিয়ে দিলীপ বলেছিলেন, “দিল্লি যাক, অন্য কোথাও যাক। দুটো ঢিল পড়েছে, তাতে নাকি দিল্লি, রাষ্ট্রপতি! আর যদি একটু বাড়াবাড়ি হয় তাহলে কি ইয়োনোতে যাবেন? সেটা ভেবে দেখুন।”

অন্যদিকে ত্রিপুরার পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খুলেছেন খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মমতা অভিযোগ করেন, ‘ত্রিপুরার অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি। প্রকাশ্য রাস্তায় গুন্ডারা ঘুরে বেড়াচ্ছে’। তার পর যুব তৃণমূলের সভানেত্রী সায়নী ঘোষের গ্রেফতারি নিয়ে মমতার প্রতিক্রিয়া, “সায়নীর মতো শিল্পীকে অ্যাটেম্প্ট টু মার্ডার কেস দেওয়া হয়েছে! শাসনের নামে প্রহসন চলছে।”

এদিকে বিএসএফ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী বৈঠক নিয়ে কটাক্ষ ছুড়ে দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, “এটা সম্পূর্ণ নাটক, ভুল, মিথ্যে।” এদিকে পোলতা গ্রামে এসে বিজেপি নেতা কর্মী সমর্থকদের মধ্যে অশান্তি নিয়ে মেজাজ হারাতে দেখা যায় বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতিকে। বলেন, “আমি পাড়ায় পাড়ায় ঘুরব!” সব মিলিয়ে দিলীপ ঘোষের এই পরিদর্শনে রাজনৈতিক অস্থিরতা বাড়তে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল।

এদিন ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেসের উপরে আক্রমণের প্রতিবাদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ জানাতে চান তৃণমূল সাংসদরা। কিন্তু তৃণমূল সাংসদদের প্রতিনিধি দল অমিত শাহের সময় চেয়েও পায়নি বলে খবর। এ নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে তোপ দেগেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন,”উনি বিজেপি নেতা হতে পারেন। কিন্তু তার সঙ্গে উনি দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। আমাদের সাংসদদের সকাল থেকে ওনার দফতরের সামনে বসে। ন্যূনতম সৌজন্য বোধটুকু দেখাননি! দেখা করার সময়ও দেননি।” তারপরেই মুখ্যমন্ত্রীর কটাক্ষ, “বাংলায় কিছুই হলেই তো মানবাধিকারকমিশন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ঝাঁপিয়ে পড়ে। ত্রিপুরার জন্য নীরব কেন?”

এদিকে ২৪ ঘণ্টা পর জামিন পেয়েছেন যুব তৃণমূলের সভানেত্রী সায়নী ঘোষ। এদিন দুপুরে তাঁকে আগরতলার সিজেএম আদালতে পেশ করা হয়। তাঁর জামিনের জন্য আবেদন করেছিলেন তৃণমূলের আইনজীবীরা। শেষ পর্যন্ত তাঁর জামিন মঞ্জুর হয়েছে।

আরও পড়ুন: Sujata Mondal: পদ্মের বাকি ১৭ সাংসদই ঘাসফুলে আসতে তৈরি, সৌমিত্রের ভাইরাল ক্লিপের রেশ ধরে বোমা ফাটালেন সুজাতা

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla