Sujata Mondal: পদ্মের বাকি ১৭ সাংসদই ঘাসফুলে আসতে তৈরি, সৌমিত্রের ভাইরাল ক্লিপের রেশ ধরে বোমা ফাটালেন সুজাতা

Sujata Mondal on BJP: "৬ মাস অপেক্ষা করুন, একজন এমপি তো অলরেডি চলে এসেছে। বাকি যে ১৭ জন সাংসদ (বিজেপির) লোকসভায় আছেন, তাঁরাও আসার জন্য পুরো হাপিত্যেশ করে বসে থাকবে আর ছয় থেকে সাত মাস পর।''

Sujata Mondal: পদ্মের বাকি ১৭ সাংসদই ঘাসফুলে আসতে তৈরি, সৌমিত্রের ভাইরাল ক্লিপের রেশ ধরে বোমা ফাটালেন সুজাতা
সৌমিত্রের ভাইরাল অডিয়ো নিয়ে বোমা ফাটালেন সুজাতা। অলংকরণ: অভিজিৎ বিশ্বাস।

সৌরভ পাল ও সৈকত দাস: আগামী লোকসভা ভোটে নিজের জেলা পূর্ব মেদিনীপুরই বাঁচাতে পারবেন না বিরোধী নেতা শুভেন্দু অধিকারী। আগামী লোকসভা ভোটে ৫০ হাজার ভোটে হারবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় জায়গা পাওয়া তিন সাংসদ ‘কোনও কাজের নয়’। দিলীপ ঘোষ ‘বড় বড় কথা বলছে, নিজের ওয়ার্ডে হেরে বসে আছে’। বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের কণ্ঠে বিস্ফোরক এই অডিয়ো ক্লিপে চরম অস্বস্তিতে বঙ্গ বিজেপি। খাতায় কলমে এখনও ‘স্বামী’ সৌমিত্রের সেই কথার রেশ ধরে এবার আরেক বিস্ফোরণ ঘটালেন তৃণমূল নেত্রী সুজাতা মণ্ডল (Sujata Mondal)। তিনি দাবি করলেন, আগামী ছয় থেকে সাত মাস। তার মধ্যে বাংলার ১৮ সাংসদকেই দেখা যাবে তৃণমূলে!

ঠিক কী বলেছেন সুজাতা?

এক সময়ের বিজেপি নেত্রী সুজাতা একুশের বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। গত ২১ ডিসেম্বর সৌগত রায় ও কুণাল ঘোষের হাত ধরে তৃণমূলে যোগ দিয়ে বিজেপির উদ্দেশে একের পর এক অভিযোগ করেছিলেন তিনি। সেদিনই সাংবাদিক বৈঠকে কান্নায় ভেঙে পড়ে বিবাহ বিচ্ছেদ চান তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। প্রতিজ্ঞা করেছিলেন, তৃণমূল ধ্বংস করে দেবেন। কিন্তু শনিবারের বারবেলায় এক ভাইরাল অডিয়ো ক্লিপ (যার সত্যতা যাচাই করেনি টিভি নাইন বাংলা) -এ সেই সৌমিত্রই বলেছেন, আগামী লোকসভা ভোটে বাংলা থেকে সাকুল্যে তিনটে আসন পাবে বিজেপি। তাঁর কথার রেশ ধরে সুজাতা দাবি করলেন, আসলে বঙ্গ বিজেপির সব সাংসদের তৃণমূলে যোগদান স্রেফ সময়ের অপেক্ষা। সুজাতার ভাষায়, “তাঁরা কালীঘাটের তালার চাবি খুঁজছেন”।

সৌমিত্রের অডিয়ো ক্লিপ ভাইরাল প্রসঙ্গে সুজাতা বলেন, “যিনি বলে থাকুন, ব্যাপারটা তো সত্যি। ২০০ পার করে সবাই তো মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার জন্য একেবারে মারামারি শুরু করে দিয়েছিলেন (বিজেপি নেতারা)। মিউজিক্যাল চেয়ার খেলা চলছিল। বাংলার মানুষ বিজেপি-কে থাপ্পড় মেরে বুঝিয়ে দিয়েছে যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই তারা মুখ্যমন্ত্রী চায়।”

তার পর বিজেপি ২০২৪ লোকসভা ভোটে তিনটি আসন পাবে বলে সৌমিত্রের কণ্ঠে যে অডিয়ো ভাইরাল হয়েছে, তা নিয়ে সুজাতার সংযুক্তি, “সবচেয়ে বড় কথা, তিনি তো অনেক বেশি বলেছেন। (বিজেপি) একটি আসনও পাবে তো ২০২৪ সালে। মানে, ২০২৪ লোকসভা ভোটে বাংলা থেকে হোয়াইট ওয়াশ হয়ে যাবে না তো বিজেপি?” এখানে না থেমে সুজাতা আরও যোগ করেন, “এমএলএ (বিজেপি-র) রা তো অনেকেই চলে এসেছেন তৃণমূলে। অনেকে আসার জন্য লাফঝাঁপ শুরু করে দিয়েছেন। শুধু কালীঘাটের তালা খোলার চাবিটা তাঁরা পাচ্ছেন না। আর এমপিদের অবস্থা? ৬ মাস অপেক্ষা করুন, একজন এমপি তো অলরেডি চলে এসেছেন (তৃণমূলে যোগ দেওয়ার অব্যবহিত পরে সাংসদ পদ ছেড়েছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়)। বাকি যে ১৭ জন সাংসদ (বিজেপির) লোকসভায় আছেন, তাঁরাও আসার জন্য পুরো হাপিত্যেশ করে বসে থাকবে আর ছয় থেকে সাত মাস পর।”

গলায় আত্মবিশ্বাসের সুর এনে টিভি নাইন বাংলাকে সুজাতা বলেন, “আর মাত্র ৬ থেকে সাত মাস। আসলে এঁরা ২০২৪ সালের ভোটে হয় বিজেপি থেকে টিকিট পাবেন না, নাহলে জিতবেনই না। দ্বিতীয়টারই সম্ভাবনা যদিও বেশি। তাই ডুবে যাওয়া নৌকা বিজেপি ছেড়ে তাঁরা লাইফ জ্যাকেট নিয়ে সচল জাহাজ তৃণমূলে ঝাঁপ মারার জন্য কাকুতি-মিনতি শুরু করে দিয়েছেন।”

ওই অডিয়ো টেপ সৌমিত্র খাঁয়ের কিনা তা নিয়ে অবশ্য সন্দেহ করেছেন বঙ্গ বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। তিনি জানিয়েছেন, সৌমিত্রের সঙ্গে এ ব্যাপারে আলাদা করে তিনি কথা বলবেন। এখন সুজাতার এই বিস্ফোরক দাবি প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন স্বয়ং সৌমিত্র খাঁ। তাঁর কটাক্ষ, ‘পাগলের প্রলাপ বলছেন, রাজনীতির কিছু বোঝে না (সুজাতা)।

আরও পড়ুন: Saayoni Ghosh Arrested : খুনের চেষ্টার অভিযোগ! ত্রিপুরায় গ্রেফতার সায়নী ঘোষ 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla