ভোটের ফল প্রকাশের আগে তৃণমূল নেতার বাড়ির পাশে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ, শুরু রাজনৈতিক তরজা

গরমের দুপুর। সকলেই যে যার ঘরে। এরইমধ্যে হঠাৎ বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে এলাকা (Sabang)।

ভোটের ফল প্রকাশের আগে তৃণমূল নেতার বাড়ির পাশে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ, শুরু রাজনৈতিক তরজা
নিজস্ব চিত্র।

মেদিনীপুর: দিনে দুপুরে সবং (Sabang) থানার মোহার এলাকায় বোমা বিস্ফোরণ। বিস্ফোরণে উড়ল তৃণমূল নেতার বাড়ির পাশেই থাকা পোল্ট্রি ফার্ম। শুক্রবার দুপুরে হঠাৎই বিকট আওয়াজ শুনে গ্রামের লোকজন ছুটে আসেন। চারপাশ ধোঁয়ায় অন্ধকার। শুরু হয় হইচই। এরপরই বিস্ফোরণের খবর ছড়ায়। ঘটনাস্থলে সবং থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী।

গরমের দুপুর। সকলেই যে যার ঘরে। এরইমধ্যে হঠাৎ বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে এলাকা। ভয়ে ঘর ছেড়ে ছুটে আসেন লোকজন। অভিযোগ, ততক্ষণে চারদিক ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছে। ভয়ে ছোটাছুটি শুরু করেন স্থানীয়রা। কেউ কেউ বলতে থাকেন, ‘বোমা ফেটেছে’। সে কথায় আরও আতঙ্ক ছড়ায়। সঙ্গে সঙ্গেই সবং থানায় খবর দেওয়া হয়।

কিছুক্ষণের মধ্যেই সবং থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। গোটা এলাকা তারা ঘিরে ফেলে। কথা বলেন স্থানীয়দের সঙ্গেও। এদিকে এই ঘটনায় রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়ে গিয়েছে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে। বিস্ফোরণের পর তৃণমূল-বিজেপি একে অপরের বিরুদ্ধে আঙুল তুলছে। বিজেপির অভিযোগ, নির্বাচনের ফল ঘোষণার আগেই এলাকায় আতঙ্ক তৈরি করার জন্য বাড়িতে বোমা মজুত করে রেখেছিল তৃণমূলের লোকজন। আর সেই বোমার বিস্ফোরণেই পোলট্রি ফার্ম উড়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: দুর্গন্ধে টিকতে পারছিলেন না পড়শিরা, গোয়ালঘরের মাচা থেকে বস্তা নামাতেই আঁতকে উঠলেন স্থানীয়রা

অন্যদিকে তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগ, এলাকায় আতঙ্ক তৈরি করার জন্যই কেউ বা কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগ নিয়ে বোমা রেখে গিয়েছে। তা থেকেই এই বিস্ফোরণ। যদিও এই বিস্ফোরণে হতাহতের কোনও খবর নেই। ভগ্নপ্রায় পড়ে থাকা বাড়ির ফার্মে এই বিস্ফোরণ বলে বড় বিপদ এড়ানো গিয়েছে।