‘আয়োডেক্স, বার্নল ফুরিয়ে যাবে, খেলা দূরের কথা সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না’, অনুব্রতকে নিশানা সায়ন্তনের

"ব্যাট দিয়ে এমন ছক্কা মারবে, মাঠের বাইরে পড়বে। খেলা তো দূরের কথা সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না।'' অনুব্রত (Anubrata Mandal) কে আক্রমণ সায়ন্তনের (Sayantan Basu)

‘আয়োডেক্স, বার্নল ফুরিয়ে যাবে, খেলা দূরের কথা সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না’, অনুব্রতকে নিশানা সায়ন্তনের
ফাইল চিত্র

ঘাটাল: ‘খেলা হবে’, একুশের ভোটে এই শব্দবন্ধ খোদ তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) থেকে তাঁর দলের নেতাদের মুখে অহরহ শোনা যাচ্ছে। সবচেয়ে বেশিবার এই হুঙ্কার শোনা গিয়েছে বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal)-এর মুখে। নাম না করে সেই অনুব্রতকে পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের সভা থেকে তীব্র আক্রমণ শানালেন বিজেপির রাজ্য সম্পাদক সায়ন্তন বসু (Sayantan Basu)।

শনিবার ঘাটাল বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শীতল কপাটের সমর্থনে প্রচারে আসেন সায়ন্তন। সেখান থেকে তাঁর মন্তব্য, “আমি বীরভূমে গেছিলাম, ওখানে এক মহিষাসুর আছে। তাকে লক্ষ্য করে বলছি যে, এবারের ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী বড় বড় ব্যাট নিয়ে এসেছে। আর তৃণমূলে লোকজন যারা গুন্ডামি, চ্যাংড়ামি করছে, তাদের কেন্দ্রীয় বাহিনী এবার বল বানাবে।” সায়ন্তনের কটাক্ষ, “ব্যাট দিয়ে এমন ছক্কা মারবে, মাঠের বাইরে পড়বে। খেলা তো দূরের কথা সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না।” বিজেপি নেতা যোগ করেন, যারা তৃণমূলের গুন্ডা-বদমাশ তারা বাড়িতে একটু আয়োডেক্স আর বার্নল পাঠিয়ে দিন। সারাদিন খেলার পরে ওই আয়োডেক্স আর বার্নল এত লাগাতে হবে যে আয়োডেক্স, বার্নলের স্টক শেষ হয়ে যাবে। এখানেই না থেমে সায়ন্তনের আক্রমণাত্মক মন্তব্য, “আগে থেকে এসব কিনে পাঠিয়ে দিন, না হলে মড়া মেরে খুনের দায় নিতে হবে।”

একুশের ভোটে তৃণমূলকে একটি ভোটও না দেওয়ার আবেদন করে সায়ন্তনের দাবি, করোনা পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকার যখন পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরত পাঠাতে চেয়েছিল তখন আপত্তি করেছিলেন এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছিলেন, করোনা এক্সপ্রেস। পরিযায়ী শ্রমিকদের ঢুকতে দেব না। আর এখন তাঁদের কাছে ভোট চাইতে এসেছেন, তৃণমূল সুপ্রিমোকে কটাক্ষ করে মন্তব্য সায়ন্তনের। তিনি বলেন, যাঁরা বাইরে আছেন তাঁদের নিয়ে আসুন, প্রয়োজনে তাদের আশার ব্যাবস্থা হবে। খরচও দেওয়া হবে। পরিযায়ীরা ভোট দিলে তৃণমূলের বিপক্ষেই যাবে বলে দাবি করেন এই বিজেপি নেতা।

আরও পড়ুন: একুশের ভোটযুদ্ধে আলিপুরদুয়ারে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী দেবপ্রসাদ? তুমুল জল্পনা

এখন দেখার, এ নিয়ে অনুব্রত মণ্ডল অথবা তাঁর দলের কেউ কোনও প্রতিক্রিয়া দেন কিনা।