‘দিলীপ ঘোষের জন্যই পদ্ম ফুটবে বাংলায়’, নমো-স্তুতিতে মুখ্যমন্ত্রীর জল্পনা তুঙ্গে

বিজেপি (BJP) যদি জয়লাভ করতে পারে, তার পুরো কৃতিত্বটাই আগে থেকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে (Dilip Ghosh) দিয়ে রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)।

'দিলীপ ঘোষের জন্যই পদ্ম ফুটবে বাংলায়', নমো-স্তুতিতে মুখ্যমন্ত্রীর জল্পনা তুঙ্গে
অলংকরণ- অভিজিৎ বিশ্বাস

কলকাতা: শুভেন্দু অধিকারী নন, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় নন। মিঠুন চক্রবর্তী, স্বপন দাশগুপ্ত বা বাবুল সুপ্রিয়ো তো নন-ই। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে (West Bengal Assembly Election 2021) বিজেপি (BJP) যদি জয়লাভ করে, তার পুরো কৃতিত্বটা আগে থেকেই বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে (Dilip Ghosh) দিয়ে রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। একমাত্র দিলীপ ঘোষের কারণেই বাংলায় এ বার পদ্মফুল ফুটবে, আত্মবিশ্বাসী কণ্ঠে এই কথা বলতে শোনা গিয়েছে খোদ প্রধানমন্ত্রীকে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, কোথাও গিয়ে কি এ রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রীর সম্ভাব্য মুখ নিয়ে প্রচ্ছন্ন একটা বার্তা দিতে চাইলেন নমো!

দিলীপ ঘোষের বর্তমান লোকসভা কেন্দ্র মেদিনীপুর ও আগের বিধানসভা কেন্দ্র খড়গপুরের মাটিতে এ দিন সভা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে দিলীপ ঘোষের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন তিনি। বলেন, “আমি গর্বিত আমার দলে দিলীপ ঘোষের মতো সভাপতি আছেন।”

খোদ প্রধানমন্ত্রীর কণ্ঠে দিলীপের গালভরা প্রশংসার পিছনে যে একটা বড় রাজনৈতিক তাৎপর্য রয়েছে, তা স্বীকার করছেন পর্যবেক্ষকদের একাংশ। কেননা, কেবল ‘গর্বিত’ বলে থামেননি নমো। তিনি আরও বলেছেন, “দলকে জেতাতে শেষ কয়েক বছর ধরে তিনি নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারেননি।” তাঁর সংযোজন, “ওনার উপর অনেক হামলা হয়েছে। মৃত্যুর কোলে শুইয়ে দেওয়ার চেষ্টাও করা হয়। কিন্তু, দিলীপ থেমে থাকেননি। দিনরাত এক করে কাজ করছেন। এই জন্যই আমি বলছি, এ বার বিজেপি সরকার।” মোদীর কথায় স্পষ্ট, দিলীপের কাঁধে ভর করেই বাংলায় পদ্ম ফোটানোর চ্যালেঞ্জ নিয়েছেন তিনি।

আরও একটি লক্ষ্যণীয় বিষয়, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যিনি বারংবার তাঁর উপর একাধিক হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন, তাঁর সেই অভিযোগকেই পালটা দিলীপের পক্ষে খাড়া করেছেন মোদী। ফলে রাজনৈতিক মহলে তীব্রভাবে জল্পনা শুরু হয়েছে, এ রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রীর সম্ভাব্য প্রার্থী হিসাবে কি দিলীপ ঘোষকেই তুলে ধরলেন তিনি?

আরও পড়ুন: রবিতেই পদ্মে শিশির? শাহি সভার আমন্ত্রণ নিয়ে শান্তিকুঞ্জে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

জল্পনা কোনও ভাবেই উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। কেননা, একদিকে যখন নবান্ন দখলের মিশন নিয়ে বিজেপি নেমেছে, তখন নির্বাচন শুরু হওয়ার এক সপ্তাহ আগে পর্যন্ত সম্ভাব্য মুখ্যমন্ত্রীর প্রার্থী হিসাবে কারোর মুখ সামনে আনেনি বিজেপি। অমিত শাহ যদিও একাধিকবার বলেছেন, কোনও ‘ভূমিপুত্রকেই’ মুখ্যমন্ত্রী করা হবে বিজেপি ক্ষমতায় এলে। তবে সেই ভূমিপুত্র কে, সেই ছবিটা স্বচ্ছভাবে ফুটে ওঠেনি বাংলায় মানুষের সামনে।

এই জল্পনা আসকারা পাওয়ার আরও দু’টি বড় কারণ হল, দিলীপ আরএসএস থেকে বিজেপিতে এসেছেন। ফলে তিনি গেরুয়া শিবিরের স্বাভাবিক পছন্দ। দ্বিতীয়ত, উত্তর প্রদেশ থেকে আসা দিলীপের জন্য একটি বিলাসবহুল প্রচার গাড়ি। যে গাড়িতে করে জেলায় জেলায় ঘুরে প্রচার করবেন দিলীপ। গাড়িটিতে ফ্রিজ, টিভি থেকে শুরু করে আরামদায়ক সফরের সব ধরনের সামগ্রী রয়েছে। রাজ্যে বিজেপির তারকা প্রচারকের সংখ্যা প্রচুর হলেও এই ‘ভিআইপি’ ব্যবস্থা করা হয়েছে কেবল দিলীপ ঘোষের জন্য। কিন্তু কেন? শনিবার খড়্গপুরে সভায় দিলীপের নামে মোদীর ঢালাও প্রশংসার পর সেই প্রশ্নটাই বেশি করে ভাবাচ্ছে রাজনীতির কারবারিদের।

আরও পড়ুন: বাংলা আর বিজেপি মেলে না, মানুষ সঠিক বিকল্পই বেছে নেবেন: কানহাইয়া কুমার