আগে দুই বিয়ে, তৃতীয় বউকে ঘরে রেখে আরও এক প্রেম! স্বামীর কীর্তি জেনে ফেলায় ভয়ঙ্কর পরিণতি স্ত্রীর

অভিযুক্ত স্বামী ও শাশুড়িকে গ্রেফতার (Arrest) করেছে কাশীপুর থানার পুলিশ।

আগে দুই বিয়ে, তৃতীয় বউকে ঘরে রেখে আরও এক প্রেম! স্বামীর কীর্তি জেনে ফেলায় ভয়ঙ্কর পরিণতি স্ত্রীর
নিজস্ব চিত্র।

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: স্বামীর সঙ্গে অন্য মহিলার সম্পর্ক (Extra Marital Affair)। প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ভাঙড়ের কাশীপুর থানার নাঙলা গ্রামের ঘটনা। ইতিমধ্যেই পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে। একইসঙ্গে অভিযুক্ত স্বামী ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে কাশীপুর থানার পুলিশ। তবে শ্বশুর পলাতক। তাঁর খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি।

নাঙলার বাসিন্দা নূর আলম মোল্লার সঙ্গে বছর পাঁচেক আগে বিয়ে হয় সেলিমার। স্থানীয় সূত্রে খবর, এর আগে আরও দু’টি বিয়ে করেন নূর। কিন্তু সেলিমার পরিবার আগের দুই বিয়ে নিয়ে পুরোপুরি অন্ধকারে রাখা হয় বলে অভিযোগ। এমনকী সেলিমাকেও বিয়ের আগে এ বিষয়ে নূর কিছু জানাননি। এদিকে বিয়ের পর সবটা জানতে পারেন সেলিমা। তবে স্বামীকে ছেড়ে যাননি। পাঁচ বছর এক সঙ্গেই ঘর করছিলেন।

আরও পড়ুন: একজন কয়লা চোর নাকি কয়লা চুরি রুখবে, জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে কটাক্ষ অভিষেকের

অভিযোগ, এখন অন্য এক মহিলার সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান নূর। সেলিমা রুখে দাঁড়ানোয় দাম্পত্য কলহ ছিল রোজকার ঘটনা। মঙ্গলবার রাতেও এ নিয়ে অশান্তি হয়। অভিযোগ, সেই সময়ই সেলিমাকে পিটিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে দেন নূর। খবর পেয়ে সেলিমার বাপের বাড়ির সদস্যরা পৌঁছন। কাশীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। এরপরই পুলিশ দেহ উদ্ধারের পাশাপাশি সেলিমার স্বামী নূর আলম মোল্লা ও শাশুড়ি লালবানু বিবিকে গ্রেফতার করে।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla