Investment For Retirement : অবসরকালের জন্য যথেচ্ছ সঞ্চয় রয়েছে তো? কীভাবে করবেন বিনিয়োগ জানুন বিস্তারিত

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: অঙ্কিতা পাল

Updated on: Aug 01, 2022 | 9:00 AM

Investment For Retirement : অবসরকালে একমাত্র সম্বল থাকে তাঁর সঞ্চয়। তাই খুব ভেবেচিন্তে সেই সময়ের জন্য সঞ্চয় করা উচিত। এক্ষেত্রে আগেভাগে এই বিনিয়োগও শুরু করা যেতে পারে।

Investment For Retirement : অবসরকালের জন্য যথেচ্ছ সঞ্চয় রয়েছে তো? কীভাবে করবেন বিনিয়োগ জানুন বিস্তারিত
প্রতীকী চিত্র

অবসর জীবনে চাকরিজীবীদের একমাত্র সম্বল হল সঞ্চয়। তাই আগেভাগেই নিত্যদিনের খরচের পাশাপাশি সঞ্চয় নিশ্চিত করা বুদ্ধিমানের কাজ। আর্থিক উপদেষ্টারা পরামর্শ দেন, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব অবসর জীবনের জন্য সঞ্চয় শুরু করে দেওয়া উচিত। এটি যে অত্যন্ত জরুরি একটি চাহিদা তা বারবার প্রমাণিত হয়েছে। অবসর গ্রহণের পরবর্তী সময়ের জন্য দীর্ঘ সময় ধরে বিনিয়োগের কোনও প্রয়োজন নেই। এক্ষেত্রে আগেভাগে এই বিনিয়োগও শুরু করা যেতে পারে। এবং নির্দিষ্ট সময় পর তা বন্ধ করা যায়। যাঁরা দেরিতে শুরু করেন তাঁরা অনেক সময় ধরে বিনিয়োগ চালিয়ে গেলেও তত বেশি রিটার্ন নিশ্চিত করতে পারবেন না। এক্ষেত্রে তাড়াতাড়ি লগ্নি শুরু করাই বাঞ্ছনীয়। এক্ষেত্রে একটি উদাহরণ দিয়ে বোঝানো হল।

এক ব্যক্তি ১৮ বছর বয়সে মিউচুয়াল ফান্ডে বার্ষিক ৫০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করা শুরু করেন। এবং ২৬ বছর বয়সে বিনিয়োগ বন্ধ করে দেন। তিনি ৮ বছরে ৪ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেন। তিনি বার্ষিক রিটার্ন পেয়েছেন ১৫ শতাংশ। তাঁর যখন ৪০ বছর বয়স হবে তখন তাঁর বিনিয়োগের মূল্য দাঁড়াবে ৫৫.৮৫ লক্ষ টাকা। ৫০ বছরে হবে ২.২৫ কোটি টাকা। আর ৬০ বছর বয়সে সেই বিনিয়োগের মূল্য বেড়ে হবে ১২.০৮ কোটি টাকা। অন্যদিকে আর এক ব্যক্তি ২৫ বছর বয়সে ৫০ হাজার টাকা বিনিয়োগ শুরু করলেন। ৬৩ বছর অবধি তিনি এই বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা করেছেন। তাহলে তিনি ৩৮ বছর ধরে বিনিয়োগে মোট ১৯ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করবেন। বার্ষিক ১৫ শতাংশ রিটার্ন ধরে সেই ব্যক্তি যখন ৪০ বছর বয়সের হবে তখন তাঁর তহবিলের মূল্য দাঁড়াবে ২৭.৮২ লক্ষ টাকা। যখন তিনি ৫০ বছর বয়সী হবেন তখন এই মূল্য বেড়ে দাঁড়াবে ১.২২ কোটি টাকা। ৬০ বছর বয়সে বেড়ে হবে ৬.৭১ কোটি টাকা।

কর ও বিনিয়োগ বিশেষজ্ঞ বলবন্ত জৈন জানিয়েছেন, মানুষ শুধু দিনে কাজ করেন। আর টাকা দিনরাত কাজ করে। তাই মানুষের অবসরের পরিকল্পনা তাড়াতাড়ি শুরু করা উচিত। সাধারণত একজন উপার্জনকারীর বয়স ৫৮ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে সীমাবদ্ধ। বর্তমানে স্বাস্থ্য় পরিষেবার মান উন্নয়ন ও সহজলভ্যতার কারণে মানুষ ৮০ বছর অবধি জীবন যাপন করে থাকেন। তাই আগে থাকতেই অবসরের জন্য অতিরিক্ত অর্থের ব্যবস্থা করা উচিত। তাই যত তাড়াতাড়ি কেউ বিক্রি করবেন চক্রবৃদ্ধি সুদের কারণে তিনি তত বেশি টাকা রিটার্ন পাবেন। অবসর যাপনের জন্য সকলের একটি সময়োপযোগী কৌশল তৈরি করা উচিত।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla