Taimur: তুর্কির আইসক্রিমওয়ালার সঙ্গে মজার খেলায় তৈমুর আলি খান, আপ্লুত নেটাগরিক

একটি ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন তুর্কির এক আইসক্রিম বিক্রেতা। সেই ভিডিয়োয় বাচ্চাটি তৈমুর আলি খান।

Taimur: তুর্কির আইসক্রিমওয়ালার সঙ্গে মজার খেলায় তৈমুর আলি খান, আপ্লুত নেটাগরিক
তৈমুর আলি খান।

করিনা কাপুর খান ও সইফ আলি খানের বড় ছেলে তৈমুরের এখন পাঁচ বছর বয়স। জন্ম থেকেই সে প্রচারের আলোয়। তার রূপ থেকে মানুষের নজর সরে না। তাই সে সব সময়ই আলো করে থেকেছে সব জায়গা। ইদানিং তারই একটি ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন তুর্কির এক আইসক্রিম বিক্রেতা। দারুণ মজার সেই ভিডিয়ো। এই ধরনের ভিডিয়ো আপনারা আগেও অনেকবার দেখেছেন সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে। একটি আইসক্রিমের গাড়ি। সেই গাড়িতে আইসক্রিম ট্রে থেকে কোনে ভরে আইসক্রিম দেওয়া হয় ক্রেতাদের। দেওয়ার পদ্ধতিটাও মজার। এবার আইসক্রিম কেড়ে নেওয়া হয়। একবার কোন নিয়ে নেওয়া হয়। সেই খেলাই এই বিক্রেতা করেছেন তৈমুরের সঙ্গে। তৈমুরও দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে মজা দেখেছেন।

এর আগেও তৈমুরের মজার মজার ভিডিয়ো শেয়ার হয়েছে নেট দুনিয়ায়। কিছুদিন আগেই ছিল তৈমুরের জন্মদিন। তাঁর জন্মদিনে আবেগ ঢেলে দিয়েছেন মা করিনা কাপুর খান। তৈমুর তখন সবে হাঁটতে শিখেছে। এক অনন্য মুহূর্ত। ক্রিসমাসের ঠিক আগেই তৈমুরের জন্মদিন। প্রথম ওয়াকিং ভিডিয়োতে তার পরনে বড়দিন বিশেষ ওয়ানপিস সুট। বুকের কাছে সান্তা ক্লজ অ্যাপলিক, ক্রিসমাস গাছের ছবি। উৎফুল্ল মুখে হাঁটতে শুরু করল সে। কারও সাহায্য ছাড়া। প্রথমবার। পায়ে লাল মোজা। মায়ের বীরপুরুষ এগিয়ে এল দ্রুত। তারপরই ধপাস… পড়ে গেল কার্পেট বিছানো মেঝেতে। পরক্ষণে নিজে থেকেই উঠে দাঁড়ালো একরত্তি। মায়ের সে কী আনন্দ। ছেলের প্রথম স্বাধীন পথচলা। আবেগ যেন বাঁধনহীন।

করিনা লিখেছেন, “তোমার প্রথম পদক্ষেপ, তোমার প্রথম পড়ে যাওয়া। আমি রেকর্ড করেছিলাম। খুব গর্বিত ছিলাম সেদিন। তোমার প্রথম কিংবা তোমার শেষ পড়ে যাওয়া, আমার পুত্র, আমি জানি নিশ্চিত, তুমি বার বারই নিজে থেকে উঠে দাঁড়াতে পারবে। আরও বড় পা ফেলবে পরমুহূর্তেই। মাথা তুলে দাঁড়াবে ঠিক। আরও অনেক পথ হেঁটে যাবে তুমি কারণ তুমি আমার টাইগার… আমার হৃদস্পন্দন। আমার টিম টিম.. তোমার মতো কেউ নেই।”

আরও পড়ুন: Yuvaan: ছোট্ট ছোট্ট পায়ে এগিয়ে ফুটবলে ‘গো-ও-ও-ও-ল’, ইউভান কি তবে ফুটবলার হবে?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla