Pleasure Toy: যৌনজীবনকে কতটা উষ্ণ করে তুলতে পারে সেক্স টয়, জেনে নিন কীভাবে বাছবেন

Vibrators For Women: বর্তমানে সেক্স টয়ের বাজার সবচেয়ে বেশি দখল করে বসে আছে ভারত আর চিন। তবে ভারতে যে এই সেক্স টয়ের অগুনতি স্টোর রয়েছে এমন নয়, বিক্রির চাহিদা তুঙ্গে অনলাইনে

Pleasure Toy: যৌনজীবনকে কতটা উষ্ণ করে তুলতে পারে সেক্স টয়, জেনে নিন কীভাবে বাছবেন
জানুন কেন ব্যবহার করবেন...
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Reshmi Pramanik

Aug 04, 2022 | 8:10 PM

কালা না সফেদ হ্যায়/ইশকে দা রং ইয়ারা/গ্রে ওয়ালা শেড’… অনুরাগ কাশ্য়পের ছবি ‘মনমর্জ়িয়াঁ’য় ‘ইশক’-এর রং ছিল এমনই: ‘গ্রে’। ‘ইশক’-এর মতোই যৌনতারও রয়েছে এক ধূসর দিক, যার অনেককিছুরই অবস্থান আলো-আঁধারির মাঝে, পরিচিত সাদা-কালোর অন্তবর্তীতে… যৌনতার সেই ‘গ্রে’-জ়োনেই যেন অবস্থান তার: সেক্স টয়। ইংরেজিতে ‘সেক্স অ্যান্ড দ্য সিটি’ থেকে শুরু করে ‘গ্রেস অ্যান্ড ফ্রাঙ্কি’ অথবা ‘ফিফটি শেডস অফ গ্রে’, বাংলায় ‘জাপানি টয়’… সিনেমা-ওয়েব সিরিজ়ে ঘুরেফিরে এসেছে সেক্স টয়। ‘ট্যাবু’ কাটিয়ে ‘নির্ভীক’ ও ‘এক্সপেরিমেন্টাল’ যৌনতার অবাধ বিচরণ জীবন থেকে সিনেমায়। সেক্স টয় তাই এখন আর অচ্ছ্যুত নয় কোনও বস্তু নয়। নারী-পুরুষ উভয়ই এই ‘খেলনা’কে আগের তুলনায় অনেক বেশি আপন করে নিয়েছে। সেক্স টয় নিয়ে মধ্যবিত্ত বাঙালির দৈনন্দিন জীবনে উত্তেজনা থাকলেও কৌতুহল প্রকাশের জায়গা তেমন একটা ছিল না।

বেলঘরিয়ায় অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে ২টো সেক্স টয় উদ্ধারের পর হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ফেসবুক—সেক্স টয় নিয়ে সর্বত্র ছড়িয়েছে মিম, স্টেটাস আপডেট। তবু সাধারণ মানুষের বেডরুমে সেক্স টয় এখনও নিষিদ্ধ। একসময় মানুষ এই সেক্স টয় কিনতেন ডাকযোগে। যদিও এখন অনলাইনেই তা অনেক বেশি সহজলভ্য। খোলাখুলিভাবে এই সেক্স টয়-এর বিজ্ঞাপনও দেখা যায় না। একমাত্র বিভিন্ন Pornographic Magazine-এ বিজ্ঞাপন দেওয়া থাকে। পার্টনারের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক আরও উষ্ণ করে তুলতে সেক্সোলজিস্টরা সেক্স টয় ব্যবহারের পরামর্শ দেন। বর্তমানে বিশ্বজুড়েই বেড়েছে সেক্স টয়ের চাহিদা এবং ব্যবহার। ২০১৭ সালে বিশ্বজুড়ে যে পরিমাণ সেক্স টয় বিক্রি হয়েছে, তা ইলেকট্রিক টুথব্রাশ বিক্রির প্রায় ১০ গুণ। ওই এক বছরে যত পরিমাণ সেক্স টয় বিক্রি হয়েছে, তার সমপরিমাণ মাইক্রোওয়েভ-ও বিক্রি হয়নি।

সম্প্রতি বেঙ্গালুরুর একটি গবেষণা থেকে উঠে এসেছে যে তথ্য, তা বলছে: বর্তমানে সেক্স টয়ের বাজার সবচেয়ে বেশি দখল করে বসে আছে ভারত আর চিন। তবে ভারতে যে এই সেক্স টয়ের অগুনতি স্টোর রয়েছে এমন নয়, বিক্রির চাহিদা তুঙ্গে অনলাইনে। অনেকের ধারণা এই সেক্স টয় শুধুমাত্র মেয়েদেরই কাজে লাগে। অর্থাৎ মেয়েদের মধ্যে এই সেক্স টয়ের ব্যবহার সবথেকে বেশি। তবে তা ঠিক নয়। আমেরিকার একটি সমীক্ষা বলছে, যদি ৬৫ শতাংশ মহিলা এই সেক্স টয় ব্যবহার করেন, তাহলে পুরুষের ক্ষেত্রে এই হিসেবটা বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন সেক্স টয় কোম্পানি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭৬ সালে। সেই কোম্পানির সমীক্ষা অনুসারে, এই সেক্স টয়ের বেচা-কেনায় একটা সময় পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি এগিয়ে ছিলেন মেয়েরাই। জনপ্রিয় টিভি শো ‘সেক্স অ্যান্ড দ্য সিটি’তে যখন মহিলারা প্রথম ভাইব্রেটর নিয়ে আলোচনা করেন, তখন চারিদিকে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল।

কেন ব্যবহার করবেন সেক্স টয়? বিশেষজ্ঞরা বলছেন: যৌনজীবন সুখকর করে তুলতেই সেক্স টয় ব্যবহার করা উচিত। সেক্স টয় ব্যবহার করার মধ্যে কোনও রকম অন্যায় নেই। যৌনতার সময়ে আনন্দ দীর্ঘস্থায়ী করতে এবং যৌনমিলন সুখকর করে তুলতেই আজকাল দম্পতিদের সেক্স টয় ব্যবহার করতে বলছেন চিকিৎসকরা। সেই সঙ্গে জি-স্পট ম্যাসাজার, রয়্যাল ওয়ান ব্লু রিং—এসবও রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। শুধুমাত্র অবিবাহিতদের জন্যই সেক্স টয়, এই ভাবনা থেকে বেরিয়ে আসুন। দম্পতিদের যৌনজীবনও অনেকাংশে সুখের হয় এই সেক্স টয়ের গুণে।

কীভাবে বাছবেন সঠিক সেক্স টয়? সেক্স টয় এখন নানা রকমের। তবে নিজের শরীরের চাহিদা বুঝে তবেই কিনুন। কেউ চান ফোর প্লের সময় আদর-উষ্ণতা অনুভব করতে, আবার কেউ চান ওরাল সেক্স উপভোগ করতে। যৌন সুখের অনুভূতি সবার সমান নয়। নিজেদের মধ্যেকার উত্তেজনা বাড়িয়ে তুলবে—এমন খেলনাই বেছে নিন।

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla