Koneenica Banerjee: ‘আয় তবে সহচরী’র সেটে কনীনিকার প্রিয় মানুষের জন্মদিন, কে তিনি?

Koneenica Banerjee: টেলিভিশন ধারাবাহিকে প্রতিদিন অনেকটা সময় একসঙ্গে কাটান অভিনেতা, কলাকুশলীরা। কার্যত একটি পরিবারের মতো হয়ে যান সকলে। জীবনের বিশেষ বিশেষ দিন সেলিব্রেট করা হয় শুটিং সেটেই।

Koneenica Banerjee: ‘আয় তবে সহচরী’র সেটে কনীনিকার প্রিয় মানুষের জন্মদিন, কে তিনি?
কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে গৃহীত।

জন্মদিন। প্রত্যেকের জীবনেই কম-বেশি স্পেশ্যাল। অভিনেত্রী এমেলি সাধুখাঁও তার ব্যতিক্রম নন। এমেলিকে ‘আয় তবে সহচরী’ ধারাবাহিকে এখন প্রতিদিন দেখছেন দর্শক। আর সেই ধারাবাহিকের শুটিং সেটেই কেক কেটে অভিনেত্রীর জন্মদিনের সেলিব্রেশন হল।

টেলিভিশন ধারাবাহিকে প্রতিদিন অনেকটা সময় একসঙ্গে কাটান অভিনেতা, কলাকুশলীরা। কার্যত একটি পরিবারের মতো হয়ে যান সকলে। জীবনের বিশেষ বিশেষ দিন সেলিব্রেট করা হয় শুটিং সেটেই। এমেলির ক্ষেত্রেও তা হয়েছে। আর সেই সেলিব্রেশনের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন কনীনিকা। এমেলি তাঁর স্নেহের পাত্রী। মা হওয়ার পর ‘আয় তবে সহচরী’ কনীনিকার কামব্যাক ধারাবাহিক। ইতিমধ্যেই তাঁর পারফরম্যান্স পছন্দ করছেন দর্শক। যেহেতু ধারাবাহিকের শুটিং দীর্ঘদিন ধরে চলে, সে কারণে কলাকুশলীরা কার্যত একটি পরিবারের মতো হয়ে যান। এই ধারাবাহিকও তার ব্যতিক্রম নয়। আয় তবে সহচরী টিম যেন একটি পরিবার। শুটিংয়ের ফাঁকে কখনও লাইভ করেন কনীনিকা। কখনও বা ছোট ছোট ভিডিয়ো তৈরি করে শেয়ার করেন।

২০১৮-এ টেলিভিশনে শেষ কাজ করেছেন অভিনেত্রী কনীনিকা। জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘অন্দরমহল’-এর মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন। সে বছরই সন্তানসম্ভবা হন তিনি। ২০১৯-এ জন্ম হয় মেয়ে কিয়ার। ‘অন্দরমহল’ টেলিভিশনে কনীনিকার শেষ কাজ। কিয়ার জন্মের পর ফের দীর্ঘ কমিটমেন্ট শুরু করলেন সদ্য। ছোট্ট কিয়াকে বাড়িতে রেখে মেগা ধারাবাহিকের শুটিং করা কনীনিকার কাছে চ্যালেঞ্জিং। সে প্রসঙ্গে দিন কয়েক দিন আগে ইনস্টাগ্রাম লাইভে অভিনেত্রী বলেন, “অনেক বছর পরে মেগা করছি তার জন্য এক্সাইটেড। কিন্তু কিয়া বুড়িকে বাড়িতে রেখে শুটিং করব, তার জন্য এখনও মনের মধ্যে চাপ চলছে। কারণ ও বড্ড ছোট। মাত্র দু বছর বয়স। এখন বাড়িতে ঢুকলেও ও আমাকে বলে গুড নাইট। মানে ওর ধারণা হয়ে গিয়েছে, মা শুধু ঘুমনোর সময় আসে। সেটা কোনওভাবে আমাকে ম্যানেজ করতে হবে। ওয়ার্কিং মায়েদের জীবনে এই সমস্যাগুলো থাকেই। কিয়াকে সামলে যতটা সম্ভব করছি টুক টুক করে। মাঝে মাঝে মনে হচ্ছে ওকে একটু বেশিই ইগনোর করে ফেলছি।”

টেলিভিশন ধারাবাহিকের রুটিনে ফিরলে দিনের অনেকটা সময় কিয়াকে ছেড়ে থাকতে হবে। কী ভাবে ম্যানেজ করবেন? কনীনিকা এ প্রসঙ্গে আগেই TV9 বাংলাকে বলেন, “কিয়াকে রেখে কাজ করা কঠিন। এই দু’বছর তো আমিই ওর সব কিছু করেছি। মা, বাবারও বয়স হয়েছে। কিয়া তো জানেই না, মা কাজ করত। ধীরে ধীরে ও রিয়ালাইজ করবে, মা কাজে ফিরবে, কাজ করবে, এটা বুঝতে পারবে নিশ্চয়ই।” কাজের ব্যস্ততার মধ্যেও কিয়াকে সময় দেওয়া কনীনিকার প্রায়োরিটি। তিনি সে চেষ্টার কোনও ত্রুটি রাখতে চান না।

আরও পড়ুন, Neha Dhupia: জীবনের প্রিয় দুই পুরুষকে এক ফ্রেমে পেলেন নেহা ধুপিয়া

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla