নতুন চরিত্রে স্বাগতা, এ বার কোন ধারাবাহিকে দেখা যাবে?

Swagata Mukherjee: ‘বিক্রম ও বেতাল’ ধারাবাহিকে ‘কালরুদ্রাণী’র চরিত্রে অভিনয় করছেন স্বাগতা। সদ্য টেকনিশিয়ান স্টুডিওতে শুটিং করলেন।

নতুন চরিত্রে স্বাগতা, এ বার কোন ধারাবাহিকে দেখা যাবে?
‘কালরুদ্রাণী’র লুকে স্বাগতা (বাঁদিকে), আসলে অভিনেত্রী যেমন (ডানদিকে)। ছবি: ফেসবুক থেকে গৃহীত।


লম্বা খোলা চুল। কপালে তিলক। গলায় রুদ্রাক্ষের মালা। প্রথম দেখায় এই লুক দেখে ভয়ও লাগতে পারে। এই লুক যিনি প্রকাশ্যে এনেছেন তিনি অভিনেত্রী স্বাগতা মুখোপাধ্যায়। টেলিভিশনের পরিচিয় ‘ভিলেন’।

মঞ্চ হোক বা টেলিভিশন, স্বাগতার অভিনয়ের কেরিয়ার দীর্ঘ। বহু চরিত্রে সফল রূপায়ণ করেছেন তিনি। কিন্তু নেগেটিভ চরিত্রে তাঁর জনপ্রিয়তা আকাশছোঁয়া। ফের একটি নতুন চরিত্রে দেখা যাবে অভিনেত্রীকে। সদ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় তারই লুক শেয়ার করেছেন।

‘বিক্রম ও বেতাল’ ধারাবাহিকে ‘কালরুদ্রাণী’র চরিত্রে অভিনয় করছেন স্বাগতা। সদ্য টেকনিশিয়ান স্টুডিওতে শুটিং করলেন। স্বাগতা লিখেছেন, ‘কালরুদ্রাণী। শেষের পরে শুরুর খবর।’ এ ছাড়া স্নেহাশিস চক্রবর্তীর প্রোডাকশনের আসন্ন ধারাবাহিক ‘সর্বজয়া’তে অভিনয় করছেন স্বাগতা। সেখানেও তাঁকে দেখা যাবে নেগেটিভ চরিত্রে।

কেরিয়ারে নেগেটিভ চরিত্রের সংখ্যাই বেশি। কালরুদ্রাণীর লুক দেখে এটি নেগেটিভ চরিত্র বলেই মনে হয়েছে দর্শকের। পর পর নেগেটিভ চরিত্র বেছে নেওয়ার কারণ? এ প্রশ্নের উত্তরে আগেই TV9 বাংলাকে স্বাগতা বলেছিলেন, “দেখুন, রান্না করলে মাছ, মাংস, শুক্তো, আলাদা আলাদা পদ তৈরি করে দারুণ রান্না করলে সেটা একরকম। আর শুধু মটনের বিভিন্ন পদ তৈরি করে তার ফ্লেভারটা আলাদা করতে পারলে, তবেই বোঝা যাবে কেউ কত বড় রাঁধুনি। আমি এখনও পর্যন্ত কোনও নেগেটিভ চরিত্র একরকম করিনি। ‘পটলকুমার’, ‘ঝাঁজ লবঙ্গ ফুল’, ‘দুর্গা দুর্গেশ্বরী’ সব কটাতে আলাদা। এটা আমার কাছে অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং।”

আরও পড়ুন, ডিজিটাল ডেবিউয়ের জন্য ট্যাটু করিয়ে নিলেন শাহিদ কাপুর!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla