অবসাদগ্রস্ত ব্যক্তির সঙ্গে এই ভুলগুলি মোটেও করবেন না

সঠিক সময়ে সঠিক চিকিৎসা আর প্রিয়জনের সাপোর্ট-- দূর করা সম্ভব এই রোগ। আপনার আশেপাশের মানুষ যদি অবসাদের স্বীকার হন, তবে তাঁর সঙ্গে এই এই ভুল মোটেও করবেন না।

অবসাদগ্রস্ত ব্যক্তির সঙ্গে এই ভুলগুলি মোটেও করবেন না
প্রতীকী ছবি।

চার অক্ষরের একটা শব্দ ‘অবসাদ’। যার ইংরেজি তর্জমা ডিপ্রেশন। বর্তমান যুগের অন্যতম জ্বলন্ত সমস্যা। আপনার পাশের মানুষটিই হয়তো এই রোগে আক্রান্ত। সঠিক সময়ে সঠিক চিকিৎসা আর প্রিয়জনের সাপোর্ট– দূর করা সম্ভব এই রোগ। আপনার আশেপাশের মানুষ যদি অবসাদের শিকার হন, তবে তাঁর সঙ্গে এই এই ভুল মোটেও করবেন না।

জাজমেন্টাল হবেন না

হতে পারে সেই ব্যক্তি আপনার সঙ্গে হঠাৎ করে কথা বলা কমিয়ে দিয়েছে। অথবা আপনি ফোন করলেও ধরছেন না। রেগে যাবেন না। তাঁকে ভুল বুঝবেন না। নিজেকে তাঁর জায়গায় বসিয়ে দেখুন। আর খারাপ লাগবে না। আপনি তো কোন ছাড়– তাঁর হয়তো নিজের উপস্থিতিও ভাল লাগছে না তখন। তাঁর পাশে থাকুন। মানসিক ভাবে পাশে থাকার বার্তা দিন। দেখবেন সে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাবে।

রোজ খবর নিতে ভুলবেন না

দিনের পর দিন অবসাদের শিকার হতে হতে অনেক সময়েই আত্মহত্যার পথ বেছে নেন অনেকে। দিনে অন্তত একবার খোঁজ খবর নিন সেই মানুষটার। শুধু ফোনে নয়, প্রয়োজনে বাড়ি যান। তিনি বিরক্ত হতে পারেন। আপনি হবেন না। তিনি যদি বলেও দেন ‘ঠিক আছি’, যতক্ষণ পর্যন্ত নিজে নিশ্চিত না হবেন তাঁর সঙ্গ ছাড়বেন না। কাছের মানুষকে হারাতে কে চায়?

নিজের সমস্যার কথা বলবেন না

হতে পারে আপনার জীবনেও অনেক সমস্যা। মনে রাখবেন তা হয়তো গুরুতর হলেও সেই ব্যক্তির থেকে গুরুতর নয়। তাঁর সামনে নেতিবাচক কথা বলবেন না। নিজের সমস্যার ঝুলিও খুলে বসবেন না। সেই ব্যক্তি ইতিমধ্যেই সমস্যার মধ্যে রয়েছেন। আপনার নেতিবাচক কথা তাঁকে আরও ডিপ্রেশনে ঠেলে দিতে পারে।

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla