Mumbai COVID wave Flattening: টানা ৪ দিন মুম্বইয়ে নিম্নমুখী সংক্রমণ, কোভিড ঢেউ থেকে কি নিস্তারের পথে মায়ানগরী?

Mumbai COVID Cases: শেষ ২৪ ঘণ্টায় মুম্বইয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১১ হাজার ৬৪৭। এই নিয়ে পর পর চার দিন কমল মুম্বইয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

Mumbai COVID wave Flattening: টানা ৪ দিন মুম্বইয়ে নিম্নমুখী সংক্রমণ, কোভিড ঢেউ থেকে কি নিস্তারের পথে মায়ানগরী?
করোনার ঢেউ থেকে কি নিস্তারের পথে মুম্বই?

মুম্বই : স্বস্তির নিশ্বাস নিচ্ছে মুম্বই। টানা চার দিন নিম্নমুখী বাণিজ্যনগরীর করোনা গ্রাফ (COVID 19 Cases in Mumbai)। এবার কি তবে করোনার নতুন ঢেউ থেকে নিস্তারের পথে মুম্বই শহর? শেষ ২৪ ঘণ্টায় মুম্বইয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১১ হাজার ৬৪৭। এই নিয়ে পর পর চার দিন কমল মুম্বইয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

বৃহন্মুম্বাই মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশনের মঙ্গলবারের করোনা বুলেটিনে করোনার ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার ইঙ্গিত মিলছে মুম্বই শহরে। কমেছে পজিটিভিটি রেটও। সোমবার মুম্বইয়ে করোনার পজিটিভিটি রেট ছিল ২৮ শতাংশ। মঙ্গলবার তা কমে এসেছে ১৮.৭ শতাংশে । তবে বেড়েছে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা। শেষ ২৪ ঘণ্টায় মুম্বইয়ে অ্যাকটিভ কেস রয়েছে ১ লাখেরও বেশি।

উল্লেখ্য শুক্রবার মুম্বইয়ে দৈনিক সংক্রমণ ছিল সর্বোচ্চ। তারপর থেকেই কমতে শুরু করেছে আক্রান্তের সংখ্যা। সোমবার, বাণিজ্য নগরীতে ১৩ হাজার ৬৪৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। সেখান থেকে কমে মঙ্গলবারের বুলেটিনে আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ১১ হাজারের কিছু বেশি। এদিকে, মঙ্গলবার ধারাভিতেও নতুন করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও অনেকটা কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ধারাভির মতো ঘিঞ্জি এলাকাতেও মাত্র ৫১ জন আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে।

মুম্বই শহরের শেষ চার দিনের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা যেভাবে কমেছে –

শনিবার মুম্বইয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ২০ হাজার ৩১৮ জন,

রবিবার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৯ হাজার ৪৭৪ জন,

সোমবার আক্রান্ত হয়েছিলেন ১৩ হাজার ৬৪৮ জন,

মঙ্গলবার মুম্বইয়ে আক্রান্ত ১১ হাজার ৬৪৭।

মহারাষ্ট্র কোভিড টাস্ক ফোর্সের সদস্য চিকিৎসক শশাঙ্ক জোশী, সম্প্রতি ওমিক্রনের বাড়বাড়ন্তকে একটি ঢেউয়ের পরিবর্তে এক “সুনামি” হিসাবে তুলনা করেছিলেন। মঙ্গলবার তিনি জানিয়েছেন, ওমিক্রনের ঢেউ আবার মিলিয়ে যাচ্ছে এবং নাগরিকদের আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য বলেছেন তিনি।

এর পাশাপাশি জনগণকে প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করার জন্যও অনুরোধ করেছেন শশাঙ্ক জোশী। তাঁর কথায়, “মাস্ক এবং বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা থাকাটাই চাবিকাঠি। সাধারণ আক্রান্তদের বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা সম্ভব, কেবল যাঁরা ঝুঁকিপূর্ণ গোষ্ঠীর, তাঁরা সতর্ক থাকুন।”

আরও পড়ুন : Coronavirus cases in India: কোভিডবিধি, টিকাকরণ, কারফিউ… এই তিন অস্ত্রেই ঘায়েল হতে পারে করোনা, মত এন কে অরোরার

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla