সঙ্গে নেই পরিচয়পত্র, তবুও করোনা টিকা পেয়েছেন ৩.৮৩ লক্ষ মানুষ! কীভাবে সম্ভব?

যাদের কাছে পরিচয়পত্র নেই, তাদের জন্যও আলাদাভাবে টিকাকরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে, এমনটাই জানান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী।

সঙ্গে নেই পরিচয়পত্র, তবুও করোনা টিকা পেয়েছেন ৩.৮৩ লক্ষ মানুষ! কীভাবে সম্ভব?
ফাইল চিত্র। PTI

নয়া দিল্লি: টিকাকরণ ব্যবস্থা পরিচালনের পাশাপাশি দেশে কত মানুষ করোনা টিকা পাচ্ছেন, তা হিসাব রাখার জন্য়ও চালু করা হয়েছিল কো-উইন (Co-WIN)পোর্টাল। কিন্তু লক্ষাধিক মানুষ নিজের পরিচয় পত্র ছাড়াই কো-উইন পোর্টালের মাধ্যমে টিকা নিয়েছেন বলে শুক্রবার জানান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ভারতী প্রবীণ পাওয়ার।

লোকসভায় প্রশ্নোত্তর পর্বে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জানান, ২৬ জুলাই অবধি মোট ৩.৮৩ লক্ষ মানুষ বিনা পরিচয় পত্র রেজিস্ট্রার করেই করোনা টিকা নিয়েছেন। তবে টিকাপ্রাপকের বৈধতা যাচাই করতে কেন্দ্রের তরফে একটি স্ট্য়ান্ডার্ড ওপারেটিং পদ্ধতি চালু করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

বিনা পরিচয় পত্রে কীভাবে টিকাকরণ কীভাবে হচ্ছে, সে বিষয়ে বোঝাতে তিনি বলেন, “কেন্দ্রের তরফে যে ওযাক-ইন টিকাকরণ প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে, তাতে টিকা নেওয়ার জন্য আগে থেকে কো-উইনে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করাতে হয় না। যাদের পক্ষে ডিজিটাল পদ্ধতিতে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করা সম্ভব নয়, তাদের জন্য়ই এই সুবিধা আনা হয়েছে। পাশাপাশি বহু পরিবারের সকলের কাছেই মোবাইল না থাকায়, একটি নম্বর দিয়েই সকলের নাম নথিভুক্ত বা যাদের কাছে একটি ফোনও নেই, তাদের ক্ষেত্রে জাতীয় কোভিড-১৯ হেল্পলাইন নম্বর (১০৭৫) বা রাজ্য়ের হেল্পলাইন নম্বর দিয়ে নাম নথিভুক্ত করা হচ্ছে।”

যাদের কাছে পরিচয়পত্র নেই, তাদের জন্যও আলাদাভাবে টিকাকরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে, এমনটাই জানান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী। টিকাকরণ থেকে যাতে কেউ বঞ্চিত না হন, সেই কারণেই এই পদ্ধতিগুলি অবলম্বন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে দেশের সমস্ত প্রাপ্তবয়স্কদের টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে কেন্দ্র। আপাতত সেই লক্ষ্যমাত্রা থেকে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে দেশ, এখনও অবধি টিকা পেয়েছেন ৪৫ কোটিরও বেশি মানুষ। আরও পড়ুন: নিম্নমুখী সংক্রমণ হঠাৎ উল্টো পথ ধরল কেন, লোকসভায় ব্যাখ্য দিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla