ত্রিপুরাতেও হানা মিউকরমাইকোসিসের, আগরতলার হাসপাতালে খোঁজ মিলল প্রথম আক্রান্তের

স্বাস্থ্য মন্ত্রক ও আইসিএমআর মিউকরমাইকোসিস শনাক্তকরণ, চিকিৎসা নিয়ে যে নির্দেশিকা জারি করেছে, তা অনুসরণ করেই চলা হবে বলে জানান ত্রিপুরার শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ।

ত্রিপুরাতেও হানা মিউকরমাইকোসিসের, আগরতলার হাসপাতালে খোঁজ মিলল প্রথম আক্রান্তের
ফাইল চিত্র।

গুয়াহাটি: ত্রিপুরাতেও হানা মিউকরমাইকোসিসের। এই ভয়ঙ্কর ছত্রাক সংক্রমণ নিয়ে কেন্দ্রের সতর্কবার্তার দু’দিন পরেই রাজ্যের রাজধানীতেই এক করোনা রোগীর দেহে এই সংক্রমণের খোঁজ মিলল। আগরতলার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৬৮ বছরের এক মহিলার দেহে মিউকরমাইকোসিসের উপস্থিতি মিলেছে বলে জানা গিয়েছে।

এই বিষয়ে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ জানান, রাজ্যে প্রথম মিউকরমাইকোসিসে আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। আগরতলার একটি বেসরকারি হাসপাতালে এক মহিলার দেহে এই সংক্রমণের খোঁজ মিলেছে। কেন্দ্রের তরফে মিউকরমাইকোসিসকে মহামারী আইন, ১৯৮৭-র অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে এবং সমস্ত রাজ্যকে আক্রান্ত ও আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা যাদের মধ্যে দেখা গিয়েছে, তাদের রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই অনুযায়ীই প্রথম মিউকরমাইকোসিসে আক্রান্তের খোঁজ মিলতেই তা স্বাস্থ্য দফতরের মাধ্যমে কেন্দ্রকে জানানো হয়েছে।

তিনি জানান, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক ও আইসিএমআর মিউকরমাইকোসিস শনাক্তকরণ, চিকিৎসা নিয়ে যে নির্দেশিকা জারি করেছে, তা অনুসরণ করেই চলা হবে। অন্যদিকে, পরিবার স্বাস্থ্য কল্যাণ মন্ত্রকের অধিকর্তা রাধা দেববর্মা বলেন, “ত্রিপুরা সরকারের তরফে জিবিপি হাসপাতাল ও ত্রিপুরা মেডিক্যাল কলেজে এই সংক্রমণের চিকিৎসা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রের কাছ থেকে চিঠি মিলতেই উপযুক্ত পদক্ষেপ করা হয়েছে।”

আরও পড়ুন: ‘সৎ সন্তান সুলভ আচরণ কেন করছে?’, করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্রের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla