TV9 Explained: মোদীর হাতে উদ্বোধন, আইএনএস বিক্রান্তের সৌজন্য আমেরিকা, রাশিয়া, ব্রিটেনের সঙ্গে এক সারিতে ভারত

INS Vikrant: ১৯৯০ সালের পরে পুরনো আইএনএস বিক্রান্তের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর থেকে দেশীয় প্রযুক্তিতে রণতরী নির্মাণের পরিকল্পনা শুরু হয়েছিল।

TV9 Explained: মোদীর হাতে উদ্বোধন, আইএনএস বিক্রান্তের সৌজন্য আমেরিকা, রাশিয়া, ব্রিটেনের সঙ্গে এক সারিতে ভারত
গ্রাফিক্স: টিভি৯ বাংলা
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অরিজিৎ দে

Sep 02, 2022 | 1:30 PM

শুক্রবার কেরলের কোচি দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি রণতরী আইএনএস বিক্রান্তের (INS Vikrant) উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। ২০ হাজার কোটি টাকা খরচ করে তৈরি হওয়া এই যুদ্ধজাহাজ বিমান পরিবহণেও সক্ষম। কোচি শিপইয়ার্ডে এই রণতরী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ছাড়াও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং ও নৌবাহিনীর শীর্ষ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। এই রণতরী উদ্বোধনের সঙ্গে সঙ্গে আমেরিকা, রাশিয়া, ফ্রান্স ও ব্রিটেনের মতো দেশগুলির সঙ্গে রণতরী উৎপাদনকারী দেশের তালিকায় ভারতের নামও উচ্চারিত হবে। আইএনএস বিক্রান্ত গোটা বিশ্বের সপ্তম বৃহত্তম রণতরী। ১৯৭১ সালের ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধে পুরনো আইএনএস বিক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল।

কী ভাবে হয়েছিল নামকরণ

সংস্কৃতে বিক্রান্ত শব্দের অর্থ সাহসী। এমনকী ভগবতগীতাতেও এই শব্দের উল্লেখ রয়েছে। গীতা প্রথম অধ্যায়ের ষষ্ঠ শ্লোকে এই শব্দের উল্লেখ রয়েছে। সংস্কৃতে ‘Vi’ শব্দের অর্থ অন্য কোনও কিছুর থেকে আলাদা এবং ‘Krant’ শব্দের অর্থ প্রত্যয় মানে একটি দিকে সরানো বা অগ্রসর হওয়া। সেখান থেকেই এই রণতরী এই নামকরণ করা হয়েছে।

দেশীয় প্রযুক্তি ও নির্মাণ

১৯৯০ সালের পরে পুরনো আইএনএস বিক্রান্তের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর থেকে দেশীয় প্রযুক্তিতে রণতরী নির্মাণের পরিকল্পনা শুরু হয়েছিল। আইএনস বিক্রান্তের অবসরের পর আইএনএস বিরাটের ওপর অনেকটাই নির্ভরশীল ছিল ভারত। ২০০৩ সালের দেশীয় প্রযুক্তিতে রণতরী নির্মাণের জন্য তৈরি নকশাকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছিল। কেন্দ্রীয় জাহাজ মন্ত্রকের আওতাধানী কোচিন শিপইয়ার্ড লিমিটেডকে জাহাজ নির্মাণের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল।

আইএনএস বিক্রান্তের খুঁটিনাটি

দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি আইএনএস বিক্রান্ত দৈর্ঘ্যে ২৬২ মিটার লম্বা এবং প্রস্থে ৬২ মিটার চওড়া। সব মিলিয়ে এই যুদ্ধজাহাজের ওজন ৪৩ হাজার টন। এই রণতরীর সর্বোচ্চ গতি ৭৫০০ নটিক্যাল মাইল। সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে জানা গিয়েছে এই রণতরীতে মোট ২ হাজার ২০০টি কম্পার্টমেন্ট রয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৬০০টি কম্পার্টমেন্ট মহিলা আধিকারিক ও নাবিকদের কথা মাথায় রেখে তৈরি করা হয়েছে। আইএনএস বিক্রান্তের মধ্যে ফিজিওথেরাপি, আইসিইউ, ল্যাবরেটরি, আইসোলেশন ওয়ার্ডের মতো অত্যাধুনিক চিকিৎসার বন্দোবস্ত করা রয়েছে। এটি দেশীয়ভাবে তৈরি অ্যাডভান্সড লাইট হেলিকপ্টার, এবং লাইট কমব্যাট এয়ারক্রাফ্ট ছাড়াও মিগ-২৯ কে ফাইটার জেট, কামভ-৩১ এবং এমএইচ-৬০আর মাল্টি-রোল হেলিকপ্টার সমন্বিত ৩০টি বিমানকে পরিচালনা করতে সক্ষম।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla