Bhawanipore By-Election: দিলীপ ঘোষের উপর ‘হামলা’র ঘটনায় গ্রেফতার আট, যদিও জামিনযোগ্য ধারায় ধৃত সকলেই

Dilip Ghosh ৩০ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন। এই কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল লড়াই করছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে।

Bhawanipore By-Election: দিলীপ ঘোষের উপর 'হামলা'র ঘটনায় গ্রেফতার আট, যদিও জামিনযোগ্য ধারায় ধৃত সকলেই
দিলীপ ঘোষের উপর হামলায় গ্রেফতার আট। ফাইল চিত্র।

কলকাতা: ভবানীপুরে ভোট (Bhabanipur By-Election) প্রচারে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়েছিলেন বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ। তাঁর উপর একদল যুবক চড়াও হয় বলে অভিযোগ ওঠে। সেই ঘটনায় কলকাতা পুলিশের তরফে স্বতঃপ্রণোদীত মামলা রুজু করে আটজনকে গ্রেফতার করা হয়। তবে এই মামলায় নির্দিষ্ট করে কারও নামে অভিযোগ হয়নি। যাঁদের গ্রেফতার করা হয়েছে, তাঁদের বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য ধারা দেওয়া হয়েছে ভবানীপুর থানার তরফে।

৩০ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন। এই কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল লড়াই করছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। সিপিএমও প্রার্থী দিয়েছে। তবে মূল টক্কর যে দুই ফুলে, তা এতদিনে দিনের আলোর মতো স্পষ্ট। সোমবার ছিল ভোট প্রচারের শেষ দিন। এই দিন ৮০ জন বিজেপি নেতা ভবানীপুরের ৮ ওয়ার্ডের প্রতিটি বাড়ি গিয়ে প্রচার করবেন, এমনটাই কথা ছিল।

কিন্তু সকাল থেকেই এই প্রচার ঘিরে উত্তেজনার পারদ চড়তে শুরু করে। প্রথমে শম্ভুনাথ স্ট্রিটে প্রচারে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়েন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। এরপর যদুবাবুর বাজারে দিলীপ ঘোষকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখানো হয়। পরিস্থিতি এমন হয়, দিলীপ ঘোষের নিরাপত্তা রক্ষীরা বন্দুক উঁচিয়ে কোনও মতে সাংসদকে সেই ভিড় থেকে বের করে এনে গাড়িতে তোলেন।

গাড়িতে উঠেই নির্লিপ্ত দিলীপ বলেন, “ওরা (তৃণমূল) জানে, বিজেপি প্রচারে নামলে হেরে যাবে। তাই গুন্ডা দিয়ে প্রচারে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নন্দীগ্রামে হারিয়েছি। এখানেও ট্রাই করছি।” অন্যদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের বক্তব্য ছিল, “পরিস্থিতি খুবই ভয়াবহ। এর মধ্যে গণতন্ত্রের যে উৎসব, ভোট তা হওয়া আদৌ সম্ভব কি না আমি সন্দিহান। একজন সর্বভারতীয় সহ সভাপতির উপর যদি এ ধরনের আক্রমণ হতে পারে, কোন সাধারণ মানুষটা সাহস করবেন ভোট দিতে যাওয়ার?”

এই নিয়ে বিকেলেই নির্বাচন কমিশন রাজ্যের কাছে নোটিস তলব করে। পাল্টা কলকাতা পুলিশ জানায়, বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিজেপি প্রচার করছিল। অথচ সেই প্রচারের কোনও অনুমতি নেওয়া হয়নি বিজেপির তরফ থেকে। ফলে অনুমতি সংক্রান্ত বিষয়ে যখন বিজেপি নেতৃত্বের কাছে জানতে চাওয়া হয়, সেখান থেকেই গন্ডগোলের সূত্রপাত। এরপর যেহেতু সাধারণ মানুষ বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন, তার জেরেই এই ঘটনা ঘটে বলে দাবি করে পুলিশ। সেই রিপোর্ট দিল্লিও পৌঁছয়।

এ সবের মধ্যেই কলকাতা পুলিশ দিলীপ ঘোষের উপর আক্রমণের ঘটনায় নিজেরাই ভবানীপুর থানায় মামলা দায়ের করে। শুরু হয় তদন্ত। তবে নির্দিষ্ট কারও নামে অভিযোগ হয়নি। হয়েছে অজ্ঞাত পরিচয় একাধিক ব্যক্তির নামে। সেখানে কোন দলের কে রয়েছেন তা স্পষ্ট নয়। তবে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শাসকদল ও বিরোধী দল-দু’তরফই পুলিশের স্ক্যানারে। একাধিক ধারায় মামলা দায়ের হয়। যদিও সবক’টিই জামিনযোগ্য ধারা। সেই অভিযোগেই এবার আটজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: Bhawanipore By-Election LIVE: দিলীপ ঘোষের উপর হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৮

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla