Municipal Election: ‘দ্বিতীয় ডোজ়ের হার বেশি, কলকাতা-হাওড়ায় তাই আগে ভোট’! হলফনামায় জানাল রাজ্য

State Election Commission: সোমবার অর্থাৎ আজ পুরভোট নিয়ে সর্বদল বৈঠকও আছে। মঙ্গলবার ভোটের সমস্ত আপডেট পেতে রাজভবনে ডেকে পাঠানো হয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাসকে।

Municipal Election: 'দ্বিতীয় ডোজ়ের হার বেশি, কলকাতা-হাওড়ায় তাই আগে ভোট'! হলফনামায় জানাল রাজ্য
কলকাতা পুরসভা, ফাইল চিত্র।

কলকাতা: ১৯ ডিসেম্বরই হাওড়া ও কলকাতায় পুরভোট (Municipal Election) করতে চায় রাজ্য। বিজেপির দায়ের করা জনস্বার্থ মামলার প্রেক্ষিতে হলফনামা দিল রাজ্য সরকার। সরকারের যুক্তি, কলকাতায় ৮৫ শতাংশ দ্বিতীয় ডোজ়ের টিকাকরণ সম্পূর্ণ হয়েছে। হাওড়ায় দ্বিতীয় ডোজ়ের টিকা পেয়েছেন ৫৫ শতাংশ মানুষ। তাই এই দুই পুরসভার ভোট প্রথম দফায় করতে চায় রাজ্য। এর পর আলোচনার ভিত্তিতে ধাপে ধাপে ভোট করবে রাজ্য সরকার ও রাজ্য নির্বাচন কমিশন।

কলকাতা হাইকোর্টে সম্প্রতি একটি মামলা দায়ের করে বিজেপি। সেখানে তারা জানায়, কেন শুধুমাত্র কলকাতা ও হাওড়ায় পুরভোট করাতে চাইছে রাজ্য সরকার? কেন বাকি পুরসভাগুলিতে এখনই ভোট করানো হবে না। প্রধান বিচারপতির এজলাসে গত ১৬ নভেম্বর সেই মামলা ওঠে।

সেদিন শুনানি চলাকালীন কলকাতা হাইকোর্টে কমিশনের আইনজীবী জানান, ইতিমধ্যে ভোট নিয়ে মামলা চলছে। তাই মামলা চলাকালীন কোনওরকম ভোটের বিজ্ঞপ্তি কমিশন জারি করবে না। এরপরই আদালত রাজ্য ও রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে হলফনামা জমা দিতে নির্দেশ দেয়। নির্বাচন নিয়ে তারা কী ভাবছে, হলফনামায় সেটাই তুলে ধরতে বলা হয়। আদালতের সেই নির্দেশের প্রেক্ষিতেই সোমবার হলফনামা জমা দিল রাজ্য।

প্রসঙ্গত, বুধবার ২৪ নভেম্বর এই জনস্বার্থ মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে। সোমবার অর্থাৎ আজ পুরভোট নিয়ে সর্বদল বৈঠকও আছে। মঙ্গলবার ভোটের সমস্ত আপডেট পেতে রাজভবনে ডেকে পাঠানো হয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাসকে। এরই মধ্যে সোমবার রাজ্য ভোট নিয়ে তাদের হলফনামা জমা দিল আদালতে।

রাজ্যের তরফে যে হলফনামা জমা পড়েছে, সূত্রের খবর সেখানে রাজ্যের তরফে ধাপে ধাপে পুরভোট করানোর পরিকল্পনার কথা বলা হয়েছে। কারণ, রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতি ও টিকাকরণের পরিসংখ্যান। হলফনামায় রাজ্য তুলে ধরেছে, এই মুহূর্তে রাজ্যের কোন জেলায় কোথায় কোভিড পরিস্থিতি কী রকম। কোথায় কত শতাংশ টিকাকরণ হয়েছে সে কথাও তুলে ধরা হয়েছে।

মোট ১১২টি পুরসভায় ভোট হওয়ার কথা। এই তালিকায় রয়েছে কলকাতা ও হাওড়ার নামও। কিন্তু রাজ্য শুধুমাত্র এই দুই পুরসভাতেই ভোট চেয়ে কমিশনের দ্বারস্থ হয়। যা নিয়ে তীব্র আপত্তি তোলে বিজেপি। বিজেপি চেয়েছিল এক সঙ্গে সব জায়গায় পুরভোট হোক। রাজ্যের দাবি, তারা আপাতত দুই জায়গায় পুরভোটই করাতে চায়। কলকাতা ও হাওড়ায় ১৯ ডিসেম্বর ভোট হোক, চায় সরকার।

এ প্রসঙ্গে হলফনামায় রাজ্য টিকাকরণের বিষয়টি তুলে ধরে। দ্বিতীয় ডোজ় কলকাতা ও হাওড়ায় বেশি হওয়ায় প্রথম ধাপে এই দুই জায়গায় ভোট চাইছে তারা। তবে এই আবেদন আদৌ গ্রহণ করে কি না আদালত তা দেখার। অন্যদিকে নির্বাচন কমিশনই বা তাদের হলফনামায় কী বলে, সেটাও তাৎপর্যপূর্ণ।

আরও পড়ুন: আজ সর্বদল, আগামিকালই রাজ্য নির্বাচন কমিশনারকে তলব রাজ্যপালের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla