Kolkata Police: দ্বিতীয় শক্তি হিসেবে TMC-র উত্থান…! কলকাতা পুলিশের টুইটে ত্রিপুরার ভোটের ফল

Tripura Election: রবিবার আগরতলা পুরনিগমের নির্বাচনের ফল প্রকাশ হয়ছে। ওই দিন সন্ধেয় টুইট করা হয়েছে কলকাতা পুলিশের এক অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে।

Kolkata Police: দ্বিতীয় শক্তি হিসেবে TMC-র উত্থান...! কলকাতা পুলিশের টুইটে ত্রিপুরার ভোটের ফল

কলকাতা : পুলিশ শাসক দলের কথা মতো ওঠাবসা করে। বিরোধীরা, এমন অভিযোগ জানিয়ে এসেছে প্রথম থেকেই। এবার কলকাতা পুলিশের একটি টুইটে বাড়ল বিতর্ক। ফের প্রশ্নের মুখে রাজ্যের পুলিশ প্রশাসন। ত্রিপুরার পুর নির্বাচনের ফলাফল সংক্রান্ত একটি খবর রিটুইট করা হয়েছে ওই টুইটার হ্যান্ডেলে। আর সেই টুইট নিয়েই তৈরি হয়েছে বিতর্ক। সাধারণ মানুষের কাছে জরুরি তথ্য পৌঁছে দেওয়ার জন্য যে হ্যান্ডেল ব্যবহার করা হয়, সেখানে কেন রাজনীতি সংক্রান্ত পোস্ট করা হল, তা নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন।

যেহেতু তৃণমূল এবার ওই নির্বাচনে অংশ নিয়েছিল, তাই বিশেষ নজর ছিল প্রতিবেশী রাজ্যের পুরভোটের দিকে। বিজেপি বিপুল ভোটে জয়ী হলেও গতকালের নির্বাচনে একাধিক আসনে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে তৃণমূল। তাই এ রাজ্যের বিরোধী দলের নেতাদের প্রশ্ন, কেন এই টুইট করা হল? তৃণমূলের  দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসার খবর তুলে ধরতেই কি এই পোস্ট? যদিও পুলিশ আধিকারিকের দাবি, সম্ভবত অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে ওই টুইট করা হয়েছে।

গতকাল সন্ধের ঘটনা। কলকাতা পুলিশের ডিসি ইএসডি-র ভেরিফায়েড টুইটার হ্যান্ডেল থেকে ওই টুইট করা হয়েছে। একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের লিংক পোস্ট করা হয়েছে। সেই পোস্টের কমেন্ট বক্সে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। কেন একজন পুলিশ আধিকারিকের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে রাজনৈতিক পোস্ট করা হয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সাধারণ মানুষ।

সাধারণত, কলকাতা পুলিশের এই সব টুইটার হ্যান্ডেলে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পোস্ট করা হয়। পুলিশ সংক্রান্ত কোনও তথ্য, জন সচেতনতামূলক কোনও তথ্য পোস্ট করা হয়। তাই এমন একটি পোস্ট দেখে চমকে গিয়েছেন অনেকেই।

এই সেই টুইট

ডিসি ইএসডি প্রিয়ব্রত রায় বলেন, “পুলিশের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে এরকম টুইটের অনুমোদন দেওয়া হয় না। মনে হচ্ছে অ্যাকাউন্ট  হ্যাক হয়েছে। আমরা তদন্ত করে দেখছি।”

এ দিকে এই বিষয়ে বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলেন, ‘আমাদের অভিযোগ যে কতটা সত্যি সেটাই হাতে কলমে প্রমাণ হয়ে গেল। যে এই ঘটনার জন্য দায়ী, তাঁর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ। পুলিশ যে শপথ নেয়, এই ঘটনায় সেই শপথবাক্যকে অবমাননা করা হয়েছে, সংবিধানকে অবমাননা করা হয়েছে। যে বা যারা এ ভাবে পুলিশের তৃণমূলিকরণের চেষ্টা করছে, তাদের পদত্যাগ করে দলের ঝাণ্ডা নিয়ে নামা উচিৎ।’

অন্যদিকে, বাম নেতা সুজন চক্রবর্তীর প্রশ্ন, শাসক দলের কাছাকাছি আসতেই এমন কাজ করা হয়নি তো? তিনি বলেন, ‘ত্রিপুরা ভোটের ফলাফল জানানো পুলিশের কাজ নয়। তৃণমূল দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসায় যে কি আনন্দ হয়েছে, সেটাই প্রকাশ করে নবান্নের কাছাকাছি আসতে চাওয়া হয়েছে। এ ভাবে যদি প্রোমোশন পাওয়া যায়! আসলে নবান্নের তো এটাই পছন্দ।’

আরও পড়ুন: ISC Semester 1 Exam 2021-22: নতুন পদ্ধতিতে নয়া অভিজ্ঞতা, আজ থেকে শুরু ISC-র পরীক্ষা

Published On - 1:04 pm, Mon, 29 November 21

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla