আয়ুর্বেদে সম্পূর্ণ ভরসা না রেখে টিকা নিতে চান রামদেব, বললেন, ‘চিকিৎসকরা ঈশ্বরের দূত’

করোনা চিকিৎসায় অ্যালোপ্যাথির কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে চিকিৎসকদের রোষানলে পড়েছিলেন রামদেব। আদালত অবধিও গড়িয়েছে বিষয়টি। কিন্তু বৃহস্পতিবারই রামদেব নিজের অবস্থান বদলে চিকিৎসকদের "ঈশ্বরের দূত" বলে অ্যাখ্যা দেন।

আয়ুর্বেদে সম্পূর্ণ ভরসা না রেখে টিকা নিতে চান রামদেব, বললেন, ‘চিকিৎসকরা ঈশ্বরের দূত’
ফাইল চিত্র।

দেহরাদুন: অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসার বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সম্প্রতিই বিতর্কে জড়িয়েছিলেন রামদেব। সেই সময় তিনি জানিয়েছিলেন, করোনা টিকার কেনও প্রয়োজন নেই, যোগাভ্যাস ও আয়ুর্বেদেই তিনি করোনা থেকে সুরক্ষা পাচ্ছেন। কিন্তু এক মাসও না যেতে মেরুবদলে সম্পূর্ণ ভিন্ন সুর রামদেবের গলায়। বৃহস্পতিবার তিনি জানান, শীঘ্রই করোনা টিকা নেবেন তিনি।

করোনা চিকিৎসায় অ্যালোপ্যাথির কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে চিকিৎসকদের রোষানলে পড়েছিলেন রামদেব। আদালত অবধিও গড়িয়েছে বিষয়টি। কিন্তু বৃহস্পতিবারই রামদেব নিজের অবস্থান বদলে চিকিৎসকদের “ঈশ্বরের দূত” বলে অ্যাখ্যা দেন।

বিনামূল্যে সকলকে করোনা টিকাকরণের ঘোষণা নিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে জানান, এটি ঐতিহাসিক একটি পদক্ষেপ। যোগাসনের পাশাপাশি করোনা টিকার প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, “করোনার দুটি ডোজ়ই নিন এবং যোগাসন ও আয়ুর্বেদের সাহায্যে দ্বিগুণ সুরক্ষা পান করোনা থেকে। করোনা টিকা এবং আয়ুর্বেদের সংমিশ্রণ আপনাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এমন বাড়িয়ে দেবে যে একজনেরও করোনায় মৃত্যু হবে না।”

বাকিদের করোনা টিকা নিতে বললেও তিনি নিজে সেই টিকা নেবেন কিনা জানতে চাওয়া হলে রামদেব বলেন, “শীঘ্রই টিকা নেব।” অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসার সমালোচনা প্রসঙ্গেও তিনি জানান, চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে তাঁর কোনও অভিযোগ নেই। ওনারা ঈশ্বরের দূত। বরং যারা ওষুধের নামে সাধারণ মানুষকে ঠকাচ্ছে, তাদের বিরোধিতা করেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: ‘অপরিকল্পিত টিকাকরণে ছড়াতে পারে মিউট্যান্ট স্ট্রেন’, মোদীকে সতর্কবার্তা বিশেষজ্ঞদের