Tokyo Olympics 2020: মেয়েদের ১০০ মিটারে চ্যাম্পিয়ন থমসনই, শেলির রুপো

Summer Olympics 2020: এত দিন যে স্বপ্নে একাকার ছিলেন শেলি, প্রথম মেয়ে হিসেবে পর পর তিনটে অলিম্পিকে সোনা জেতার বিরল কৃতিত্বের, তাতে এ বার ভাগ বসালেন থমসনও।

Tokyo Olympics 2020: মেয়েদের ১০০ মিটারে চ্যাম্পিয়ন থমসনই, শেলির রুপো
Tokyo Olympics 2020: মেয়েদের ১০০ মিটারে চ্যাম্পিয়ন থমসনই, শেলির রুপো

টোকিও: সন্তানসম্ভবা হওয়ার কারণে রিও অলিম্পিকে নামেননি। বেজিং ও লন্ডনে মেয়েদের ১০০ মিটারে সোনাজয়ী স্প্রিন্টার নিজের হারানো সাম্রাজ্য ফিরে পাওয়ার স্বপ্ন নিয়েই নেমেছিলেন টোকিও গেমসে। তা পূরণ হল না। রুপোতেই সন্তুষ্ট থাকতে হল শেলি অ্যান ফ্রেজ়ার প্রাইসকে (Shelly-Ann Fraser-Pryce)। বরং মেয়েদের ১০০ মিটারে এখন থমসন হেরা (Elaine Thompson-Herah) যুগ। রিওর পর আবার ১০০ মিটার চ্যাম্পিয়ন হলেন তিনি।

উসেইন বোল্ট থাকাকালীন ছেলেদের স্প্রিন্ট দুনিয়ায় প্রাধান্য ছিল জামাইকার। তিনি অবসর নিয়েছেন। ইওহান ব্লেকও নেই। ছেলেদের ১০০ মিটার এ বার নতুন চ্যাম্পিয়ন পাবে। মেয়েদের ১০০ মিটারে কিন্তু জামাইকারই দাপট থাকল। থমসন, শেলির পাশে ব্রোঞ্জ পেলেন জামাইকার শেরিকা জ্যাকসন। থমসন সময় নিয়েছেন ১০.৬১ সেকেন্ড। শেলির লেগেছে ১০.৭৪ সেকেন্ড। আর শেরিকার সময় লাগল ১০.৭৬ সেকেন্ড।

মেয়েদের ১০০ মিটারে গ্রিফিথ জয়নার আজও শ্রেষ্ঠত্বের আসনেই বসে রয়েছেন। ১৯৮৮ সালের অলিম্পিকের সোনাজয়ী স্প্রিন্টারের ১০.৪৯ সেকেন্ডের বিশ্বরেকর্ড এখনও অক্ষুণ্ণ। তা এ বারও অটুট থেকে গেল। তার পরই সেরা ছিলেন শেলি। প্রায় এক যুগ ধরে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন তিনি। তা ভেঙে দিয়ে নিজেকে ফের সেরা প্রমাণ করলেন ২৯ বছরের থমসন।

রেস জেতার পর থমসন বলেছেন, ‘ভীষণ রোমাঞ্চকর লাগছে। টোকিওতে এসে আবার সোনা জিতলাম। রিওতে যে সোনাটা পেয়েছিলাম, সেটাই ধরে রাখলাম।’

এত দিন যে স্বপ্নে একাকার ছিলেন শেলি, প্রথম মেয়ে হিসেবে পর পর তিনটে অলিম্পিকে সোনা জেতার বিরল কৃতিত্বের, তাতে এ বার ভাগ বসালেন থমসনও। শেলি হয়তো প্যারিসে থাকবেন না। কিন্তু থমসন নিজের স্বপ্নপূরণের জন্য বেছে নেবেন প্যারিস।

অলিম্পিকের আরও খবর পড়তে ক্লিক করুনঃ টোকিও অলিম্পিক ২০২০

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla