Xiaomi 11T Pro: ভারতে শাওমি ১১টি প্রো ফোনের সম্ভাব্য দাম, স্পেসিফিকেশন এবং স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট প্রকাশ্যে এল আনুষ্ঠানিক লঞ্চের আগে

ভারতে ই-কমার্স সংস্থা অ্যামাজনের ওয়েবসাইট থেকে এই ফোন কেনা যাবে। অ্যামাজনে ইতিমধ্যেই এই ফোনের জন্য একটি মাইক্রোসাইট তৈরি করা হয়েছে।

Xiaomi 11T Pro: ভারতে শাওমি ১১টি প্রো ফোনের সম্ভাব্য দাম, স্পেসিফিকেশন এবং স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট প্রকাশ্যে এল আনুষ্ঠানিক লঞ্চের আগে
ইউরোপে ইতিমধ্যেই এই ফোন লঞ্চ হয়েছে। এবার পালা ভারতের। Photo Credit: mi.com

ভারতে আসছে শাওমি ১১টি প্রো (Xiaomi 11T Pro) স্মার্টফোন। এটিই শাওমির আসন্ন হাইপারফোন (Xiaomi Hyperphone)। আগামী ১৯ জানুয়ারি ভারতে লঞ্চ হবে শাওমি ১১টি প্রো ফোন। আনুষ্ঠানিক লঞ্চের আগে এই ফোনের সম্ভাব্য র‍্যাম ও স্টোরেজ কনফিগারেশন প্রকাশ হয়েছে। এছাড়াও ভারতে শাওমি ১১টি প্রো ফোনের (Xiaomi 11T Pro Smartphone) দাম কতে হতে পারে এবং এই স্মার্টফোনে কী কী ফিচার ও স্পেসিফিকেশন থাকার সম্ভাবনা রয়েছে, তারও একটা আভাস পাওয়া গিয়েছে। শোনা যাচ্ছে, এই ফোনে নামি কোম্পানির স্টিরিয়ো স্পিকার থাকতে পারে। এছাড়াও এই ফোনে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ ৫জি প্রসেসর থাকতে পারে। এর পাশাপাশি শাওমি ১১টি প্রো ফোনে একটি অ্যামোলেড ডিসপ্লে থাকতে পারে, যার রিফ্রেশ রেট হবে ১২০ হার্টজ। অ্যামাজনের মাইক্রোসাইটে এমনটাই বলা হয়েছে।

MySmartPrice- এর রিপোর্টে বলা হয়েছে ভারতে তিনটি র‍্যাম এবং স্টোরেজ কনফিগারেশনে লঞ্চ হতে পারে শাওমি ১১টি প্রো ফোন। সেগুলি হল- ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ, ৮ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ এবং ১২ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ। সম্ভবত শাওমির এই হাইপারফোনে Harman Kardon- এর স্টিরিয়ো স্পিকার থাকতে পারে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছর অর্থাৎ ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ইউরোপে লঞ্চ হয়েছিল শাওমি ১১টি প্রো ফোন। ইউরোপের ভ্যারিয়েন্টের সঙ্গে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের মিল থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। শাওমি ১১টি প্রো ফোনের দাম ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকার মধ্যে হবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

শাওমি ১১টি প্রো ফোনের স্পেসিফিকেশন

ভারতে ই-কমার্স সংস্থা অ্যামাজনের ওয়েবসাইট থেকে এই ফোন কেনা যাবে। অ্যামাজনে ইতিমধ্যেই এই ফোনের জন্য একটি মাইক্রোসাইট তৈরি করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, শাওমি ১১টি প্রো ফোনে একটি অ্যামোলেড ডিসপ্লে থাকতে পারে, যার রিফ্রেশ রেট হবে ১২০ হার্টজ। এছাড়াও এই ফোনে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ ৫জি প্রসেসর থাকতে পারে। শাওমির এই আসন্ন হাইপারফোনে ১২০ ওয়াটের শাওমি হাইপারচার্জ ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টও থাকতে পারে। এর সাহায্যে মাত্র ১৭ মিনিটে ব্যাটারি পুরোপুরি চার্জ হয়ে যাবে বলে দাবি করেছেন শাওমি কর্তৃপক্ষ।

শাওমি ১১টি প্রো ফোনের পিছনের অংশে একটি রেয়ার ক্যামেরা সেটআপ থাকতে পারে এবং সেখানে ১০৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেনসর থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। এর সঙ্গে একটি ৮ মেগাপিক্সেলের আলট্রা ওয়াইড সেনসর এবং আর একটি টেলিফটো সেনসর থাকতে পারে। এছাড়াও ফোনের ফ্রন্ট ডিসপ্লেতে ১৬ মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরা সেনসর থাকতে পারে। কানেক্টিভিটি অপশন হিসেবে এই ফোনে ৫জি, ওয়াই-ফাই ৬, ব্লুটুথ ভি ৫.২, জিপিএস / এ – জিপিএস, এনএফসি, আইআর ব্লাস্টার এবং একটি টাইপ- সি ইউএসবি পোর্ট থাকতে পারে। ফোনের ওজন ২০৪ গ্রাম।

তথ্যসূত্র- MySmartPrice

আরও পড়ুন- Flipkart Big Saving Days Sale: ১৭ জানুয়ারি, অ্যামাজনের সঙ্গেই শুরু হচ্ছে ফ্লিপকার্টের এই সেল, কোন কোন জিনিসে অফার থাকবে? জেনে নিন

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla