‘ফ্ল্যাশ কল’, নতুন ফিচার নিয়ে কাজ শুরু করেছে হোয়াটসঅ্যাপ

জানা গিয়েছে, আইওএস ভার্সান অর্থাৎ অ্যাপেলের ডিভাইসে এই ফ্ল্যাশ কল ফিচার চালু হবে না। 

‘ফ্ল্যাশ কল’, নতুন ফিচার নিয়ে কাজ শুরু করেছে হোয়াটসঅ্যাপ
নতুন ফিচার নিয়ে কাজ শুরু করেছেন হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ।

একদিকে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন প্রাইভেসি পলিসির আপডেট নিয়ে চলছে বিতর্ক এবং জল্পনা। অন্যদিকে একের পর এক নতুন ফিচার লঞ্চের জন্য পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছেন হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। এই তালিকাতেই নবতম সংযোজন ‘ফ্ল্যাশ কল ফিচার’। শোনা যাচ্ছে, আপাতত এই ফ্ল্যাশ কল ফিচার নিয়েই কাজকর্ম চালাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ। মূলত, ইউজাররা যাতে দ্রুত তাদের অ্যাকাউন্টে লগ-ইন করতে পারেন, সেই জন্যই এই ফিচার চালু করার কথা ভাবা হয়েছে।

একজন ইউজার যখন হোয়াটসঅ্যাপে লগ-ইন করতে চান, তখন ভেরিফিকেশনের জন্যে তাদের ফোনে একটি ৬ ডিজিটের কোড পাঠানো হয়। এই পদ্ধতিরই একটি ব্যতিক্রম লঞ্চের চেষ্টায় রয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। ইউজার ভেরিফিকেশনের জন্য ফ্ল্যাশ কল ফিচারের ব্যবহার করতে চান কর্তৃপক্ষ। কারণ ভেরিফিকেশন জন্য ওই ৬ ডিজিট কোডের মেসেজ আসতে অনেকসময়েই বেশ সময় লেগে যায়। অনেকক্ষেত্রে একবারে সফলও হয় না এই ফিচার। তাই ব্যাপারটি সময় সাপেক্ষ। কিন্তু এসএমএস ভেরিকেশনের পরিবর্তে ফ্ল্যাশ কল ফিচার ব্যবহার করা, ইউজারদের অনেক কম সময় লাগবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সম্প্রতি শোনা গিয়েছে, মাল্টি ডিভাইস সাপোর্ট নিয়েও কাজ করছেন হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। এই ফিচার চালু হলে একই সঙ্গে একাধিক ডিভাইসে ব্যবহার করা যাবে একটি হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট। অর্থাৎ ফোন, ল্যাপটপ, ট্যাব— একসঙ্গে অনেক ডিভাইসে মেন অ্যাপস ছাড়াই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন ইউজাররা। এখন হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েব চালাতে গেলে ইউজারের ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপ এবং হাই-স্পিডের ইন্টারনেট থাকা প্রয়োজন। তবে নতুন ফিচার চালু হলে, এইসব আর প্রয়োজন হবে না। সেই সঙ্গে এও বলা হচ্ছে, মাল্টিপল ডিভাইস সাপোর্ট চালু একাধিক ডিভাইসে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট লগ-ইনের ক্ষেত্রে ইউজারদের দারুণ ভাবে সাহায্য করবে এই ফ্ল্যাশ কল ফিচার।

হোয়াটসঅ্যাপ সংক্রান্ত বিভিন্ন আপডেট ট্র্যাক করে WABetaInfo। তারাই জানিয়েছে, এই ফ্ল্যাশ কল ফিচার প্রথম লক্ষ্য করা গিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের বিটা ভার্সান ২.২১.১১.৭- এ। এই ফিচারের সাহায্যে হোয়াটসঅ্যাপের তরফে ইউজারের ফোনে নিজে থেকেই কল আসবে এবং তা কেটেও যাবে। এর মাধ্যমেই হোয়াটসঅ্যাপ যাচাই করে নেবে, ইউজারের ফোন লগে থাকা শেষ নম্বর এবং যে নম্বর থেকে ৬ ডিজিট কোড পাঠানো হয়েছে, তা আসলে একই। WABetaInfo আরও জানিয়েছে, প্রতিবারই এই নম্বর ভিন্ন হয়। তাই ট্র্যাক করা কিংবা জালিয়াতি-প্রতারণার সম্ভাবনা নেই। বরং ইউজারদের সুরক্ষা বাড়বে।

আরও পড়ুন- ওয়ানপ্লাস টিভি U1S: তিনটি স্ক্রিন সাইজে লঞ্চ হতে পারে এই স্মার্ট টিভি, দেখে নিন সম্ভাব্য দাম-ফিচার

ফ্ল্যাশ কল ফিচার কাজ করার আগে হোয়াটসঅ্যাপের তরফে ইউজারের কল এবং ফোন লগ অ্যাকসেস করার অনুমতি চাওয়া হবে। কেন এই অনুমতি চাওয়া হবে তা জানাবে হোয়াটসঅ্যাপ। ইউজারদের কল হিস্ট্রি হোয়াটসঅ্যাপের তরফে অন্য কোনও কাজে ব্যবহার হবে না বলেও জানিয়েছে WABetaInfo। এর পাশাপাশি জানা গিয়েছে, আইওএস ভার্সান অর্থাৎ অ্যাপেলের ডিভাইসে এই ফ্ল্যাশ কল ফিচার চালু হবে না।