Lucy: গ্রহাণু পর্যবেক্ষণকারী মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করেছে নাসা, সৌরজগতের বাইরে Lucy থাকবে ১২ বছর

বৃহস্পতি গ্রহের আশপাশের ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সূর্যকে প্রদক্ষিণকারী ট্রোজান গ্রহাণু পর্যবেক্ষণ করবে নাসার অ্যাস্টেরয়েড স্পেসক্র্যাফট লুসি।

Lucy: গ্রহাণু পর্যবেক্ষণকারী মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করেছে নাসা, সৌরজগতের বাইরে Lucy থাকবে ১২ বছর
asteroid spacecraft lucy

মহাকাশের প্রতি মানবজাতির আকর্ষণই বরাবরই বেশি। সৌরজগতকে আরও একটি ভালভাবে জানার জন্য তাই নতুন স্পেসক্র্যাফট লঞ্চ করেছে নাসা। ১২ বছর ধরে অভিযান চালাবে নাসার লঞ্চ করা এই Asteroid Spacecraft Lucy। মূলত গ্রহাণুদের পর্যবেক্ষণ করাই হবে এই স্পেসক্র্যাফট বা মহাকাশযানের কাজ। Asteroid Spacecraft Lucy- র মাধ্যমে এমন সব গ্রহাণু প্রকাশ্যে আসবে, যাদের এর আগে কখনও দেখা যায়নি। এমনটাই দাবি করেছেন নাসার জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।

জানা গিয়েছে, সৌরজগতের বহির্বিভাগে অর্থাৎ বাইরের অন্ধকারাচ্ছন্ন অংশে (dark alleys of the outer solar system) এই স্পেসক্র্যাফট পাঠিয়েছে নাসা। Asteroid Spacecraft Lucy নির্মাণ এবং উৎক্ষেপণে এ যাবৎ খরচ হয়েছে প্রায় ৭৩৫১ কোটি টাকা। জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের কথায় বৃহস্পতির কাছাকাছি থাকা সূর্যকে প্রদক্ষিণকারী বেশ কিছু গ্রহাণুকে পর্যবেক্ষণ করার জন্য এই মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করেছে মার্কিন স্পেস এজেন্সি নাসা। অন্যদিকে আবার নাসার তরফে জানানো হয়েছে, বৃহস্পতির যেসমস্ত ট্রোজান গ্রহাণু পর্যবেক্ষণের জন্য Asteroid Spacecraft Lucy সৌরজগতের বাইরের অংশে পাঠানো হয়েছে, সেইসব গ্রহাণু আসলে দু’টি প্রাচীন মহাকাশ শিলা। এই মহাকাশ শিলা আবার গ্রহ গঠনের অবশিষ্টাংশ।

১৬ অক্টোবর ভারতীয় সময় দুপুর ৩টে ৪মিনিটে ফ্লোরিডা লঞ্চ প্যাড থেকে অ্যাটলাস ভি রকেটের সাহায্যে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে Asteroid Spacecraft Lucy। নাসার অফিশিয়াল ইন্সটাগ্রাম হ্যান্ডেলে এই অ্যাটলাস ভি রকেটের ছবিও প্রকাশ করেছে। জানা গিয়েছে, নাসার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটেও এই উৎক্ষেপণ মুহূর্ত লাইভ দেখা গিয়েছে। নাসার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ১২ বছরের অভিযান কালে Asteroid Spacecraft Lucy এমন গ্রহাণুদের পর্যবেক্ষণ করবে যাদের আগে কখনও দেখা যায়নি। জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের দৃঢ় বিশ্বাস এই দীর্ঘ সময়কালে রেকর্ড ব্রেকিং সংখ্যায় গ্রহাণু পর্যবেক্ষণ করবে ওই স্পেসক্র্যাফট।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গ্রহাণু পর্যবেক্ষণকারী এই স্পেসক্র্যাফটের নাম Lucy রাখার পিছনেও রয়েছে বিশেষ কারণ। ১৯৭৪ সালে ইথিওপিয়ায় ৩.২ মিলিয়ন বছর পুরনো hominid fossil (ancient fossil of a pre-human ancestor) পাওয়া গিয়েছিল। এই জীবাশ্ম মানুষের উৎপত্তির রহস্য উন্মোচন করেছিল। এই জীবাশ্মের নাম অনুসারেই ওই স্পেসক্র্যাফটের নামকরণ হয়েছে। বিজ্ঞানীদের আশা নাসার পাঠানো Asteroid Spacecraft Lucy সৌরজগতের বাইরের অংশে হয়তো এমনই রহস্যময় কিছু আবিষ্কার করবে, যা আক্ষরিক অর্থেই যুগান্তকারী আবিষ্কার হিসেবে পরিগণিত হবে।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতি গ্রহের কাছে গ্র্যাভিটেশনাল স্টান্ট করবে নাসার পাঠানো Asteroid Spacecraft Lucy। ছবি তোলার জন্য অন্তত ছয়টি ট্রোজান অ্যাস্টেরয়েড বা গ্রহাণুর আশপাশ দিয়ে এই স্টান্ট দেখাবে Lucy। শুধু ছবি তোলাই নয়, ওই গ্রহাণুদের কম্পোজিশন অর্থাৎ গঠন ভালভাবে পর্যবেক্ষণ করাও এই অ্যাস্টেরয়েড স্পেসক্র্যাফটের কাজ। গ্রহদের উৎস সম্পর্কে বৈপ্লবিক তথ্য প্রকাশ্যে আনবে নাসার গ্রহাণু পর্যবেক্ষণকারী মহাকাশযান Lucy, এমনটাই বিশ্বাস জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের একাংশের।

আরও পড়ুন- China: আমেরিকাকে ফের টেক্কা চিনের, অসম্পূর্ণ স্পেস স্টেশনে রওনা দিচ্ছে তিন মহাকাশ্চারী!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla