Earth Is Loosing Brightness: নীল গ্রহের উজ্জ্বলতা কমছে খুব তাড়াতাড়ি, কারণ খুঁজতে গিয়ে হতবাক বিশেষজ্ঞরা…

গবেষকরা যে উপগ্রহ চিত্র ও তথ্যাদি বিশ্লেষণ করেছেন তাতে দেখা গিয়েছে, পূর্ব প্রশান্ত মহাসাগরের উপরে একেবারে নীচের স্তরে থাকা মেঘের উজ্জ্বলতাও অনেকটাই কমে গিয়েছে। ফলে সেই মেঘ থেকে সূর্যালোকের প্রতিফলনও আগের চেয়ে কম হচ্ছে।

Earth Is Loosing Brightness: নীল গ্রহের উজ্জ্বলতা কমছে খুব তাড়াতাড়ি, কারণ খুঁজতে গিয়ে হতবাক বিশেষজ্ঞরা...

পৃথিবী ভাল নেই। নীল গ্রহের স্বাস্থ্যের খুব দ্রুত অবনমন হচ্ছে। বেড়ে যাচ্ছে উষ্ণতা। বাসযোগ্য থাকছে কি না সেই প্রসঙ্গে তর্কের জায়গা এখনও অনেকটাই থাকছে। তবে, হাল আমলে, পৃথিবীর নিজস্ব উজ্জ্বলতা যে মারাত্মক কমে গেছে এই বিষয়ে কোনওই সন্দেহ নেই। গ্রিনহাউস গ্যাসের নির্গমন অতি দ্রুততার সঙ্গে বাড়ার কারণে জলবায়ুগত যে পরিবর্তন হচ্ছে ঠিক সেই কারণেই উজ্জ্বলতা হারাচ্ছে পৃথিবী।

সাম্প্রতিক একটি গবেষণা এমনটাই জানা গিয়েছে। গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান গবেষণা পত্রিকা ‘জিওফিজিক্যাল রিসার্চ লেটার্স’-এ। গবেষণাপত্রটিতে জানানো হয়েছে, ১৯৯৮ থেকে ২৯১৭ এই ২০ বছরে পৃথিবীর উজ্জ্বলতা প্রতি বর্গ মিটারে আগের বছরগুলোর চেয়ে অর্ধেক ওয়াট করে কমে গিয়েছে। শতাংশের হিসাবে আগের বছরগুলোর চেয়ে পৃথিবীর উজ্জ্বলতা ০.৫ শতাংশ কমেছে। এর মানে হল, নীল এই গ্রহ আগের চেয়ে কম পরিমাণে সূর্যালোক প্রতিফলিত করছে।

Earth is dimming

প্রতি বছর উজ্জ্বলতা হারাচ্ছে পৃথিবী

কেন এমন হচ্ছে, তার কারণ অনুসন্ধান করতে গিয়ে গবেষকরা বেশ কিছু তথ্য পেয়েছেন। তাঁরা দেখেছেন, এই ২০ বছরে পৃথিবীর মহাসাগরগুলির তাপমাত্রা আগের চেয়ে অনেকটাই বেড়েছে। তার ফলে, সেই মহাসাগরগুলির উপরের মেঘ আগের চেয়ে অনুজ্জ্বল হয়ে পড়েছে। মেঘের ঔজ্জ্বল্য হারানোর জন্যই পৃথিবী সূর্যালোক আগের চেয়ে কম পরিমাণে প্রতিফলিত করছে মহাকাশে। তাই সেই সূর্যালোক পৃথিবীর তাপমাত্রা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।

পৃথিবী কতটা সূর্যালোক প্রতিফলিত করছে, তা আরও ভাল ভাবে বুঝতে গবেষকরা অন্য এক উপায় নিয়েছিলেন। তাঁরা পৃথিবী চাঁদকে কী পরিমাণে আলোকিত করছে সেই বিষয় নিয়ে গবেষণা করা শুরু করেছিলেন। সূর্যালোকের ৩০ শতাংশ পৃথিবী প্রতিফলিত করে ফিরিয়ে দেয় মহাকাশে। গবেষণাপত্রটি জানিয়েছে, এই পরিমাণ ১৯৯৮ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে ০.৫ শতাংশ কমে গিয়েছে। আর সেটা কমেছে মূলত ২০১৫, ২০১৬ এবং ২০১৭ সালে।

মূল গবেষক নিউ জার্সি ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির অধ্যাপক তাত্ত্বিক পদার্থবিদ ফিলিপ গুডে বলেছেন, ‘প্রতিফলনের পরিমাণ কমে যাওয়ার তিন বছরের ফলাফল দেখে আমরা অবাক হয়ে গিয়েছি। এত দিন বিজ্ঞানীদের ধারণা ছিল, উষ্ণায়নের জন্য পৃথিবী হয়তো আরও বেশি পরিমাণে সূর্যালোক প্রতিফলিত করছে মহাকাশে। কিন্তু আমাদের গবেষণার ফলাফল উল্টো কথাই বলেছে।’ গবেষকরা যে উপগ্রহ চিত্র ও তথ্যাদি বিশ্লেষণ করেছেন তাতে দেখা গিয়েছে, পূর্ব প্রশান্ত মহাসাগরের উপরে একেবারে নীচের স্তরে থাকা মেঘের উজ্জ্বলতাও অনেকটাই কমে গিয়েছে। ফলে সেই মেঘ থেকে সূর্যালোকের প্রতিফলনও আগের চেয়ে কম হচ্ছে। এই অঞ্চলটিই পৃথিবীর ঔজ্জ্বল্য কমার আসল কারণ হয়ে উঠেছে।

আরও পড়ুন: Dinosaur Skeleton Found In US: ৩০ ফুট লম্বা বিরল প্রজাতির ডাইনোসর কঙ্কালের হদিশ মিলল আমেরিকায়

আরও পড়ুন: Undersea World in Space: অভূতপূর্ব কসমিক রিফের ছবি শেয়ার করেছে নাসা, পৃথিবী থেকে দূরত্ব ১ লক্ষ ৬০ হাজার আলোকবর্ষ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla