ঘোড়া ছিলাম, ঘোড়াই আছি: অনুব্রত

আমি জানতাম করোনা হয়নি। তবু ভাল হল। অনেক খাটা-খাটনি হয়েছিল। সাত দিন ফুল চেক আপ হয়ে গেল।''

ঘোড়া ছিলাম, ঘোড়াই আছি: অনুব্রত
ফাইল চিত্র

বীরভূম: এখন শরীর ভালো আছে অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mandal)। বুধবার কলকাতা থেকে ফিরলেন বীরভূমের বাড়িতে। গড়ে ফিরে পুরনো মেজাজে বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি। সবুজ পাঞ্জাবিতে হাত নেড়ে বলে দিলেন, ‘আমি ছোটা ঘোড়া ছিলাম, ছোটা ঘোড়াই আছি।’

কয়েক দিন আগে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন অনুব্রত। জ্বর এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যা ছিল তাঁর। চিকিৎসকরা করোনা পরীক্ষা করার পরামর্শ দেন। কিন্তু অ্যান্টিজেন টেস্টে তাঁর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। গত বৃহস্পতিবার চিকিৎসার জন্য তাঁকে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেও তাঁর কোভিড টেস্ট করা হলে রিপোর্ট নেগেটিভই আসে। এরপর কোনও হাসপাতালে ভর্তি হননি। তবে কলকাতায় থেকেই চিকিৎসা করাচ্ছিলেন। অবশেষে বুধবার বীরভূমে নিজের বাড়িতে ফিরে এলেন অনুব্রত।

তাঁর কথায়, “ঠান্ডা প্রচণ্ড লেগেছিল। এখানে করোনা যখন নেগেটিভ এলো, বলল সিটি স্ক্যান করতে। বুকে দুটো প্যাঁচ এলো। তাঁরা সন্দেহ করলেন, এটা করোনার সিম্পটম। আমার মনের জোর প্রচণ্ড। আমি জানতাম করোনা হয়নি। তবু ভাল হল। অনেক খাটা-খাটনি হয়েছিল। সাত দিন ফুল চেক আপ হয়ে গেল।”

এরপর সংবাদিকরা তাঁকে ফের জিজ্ঞেস করেন, ‘এখন কেমন আছেন?’ আর তাতেই ‘কেষ্ট’র ঝাঁঝালো প্রতিক্রিয়া, “আমি অসুস্থ নই। আমি সম্পূর্ণ সুস্থ। আমি যে ঘোড়া ছিলাম, আমি সে ঘোড়াই আছি। আমি ছোটা ঘোড়া ছিলাম, ছোটা ঘোড়াই আছি। ঠিক আছে?”

আরও পড়ুন: বার্নপুর ইস্কো কারখানায় বিষাক্ত গ্যাস লিক করে মৃত্যু ২ শ্রমিকের, অসুস্থ ৩

প্রসঙ্গত, কিডনির সমস্যাতেও ভুগছিলেন অনুব্রত। সিবিআই দফতরে হাজিরা না দেওয়ার কারণ হিসেবে নিজে অসুস্থ বলে জানিয়েছিলেন বীরভূমের এই দোর্দণ্ডপ্রতাপ নেতা। এর মধ্যে তাঁর করোনা হয়েছে বলে আশঙ্কা করছিলেন চিকিৎসকরা। তবে তাঁর অ্যান্টিজেন পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় খুশি পরিবার থেকে অনুব্রত অনুগামীরা। সবার উদ্দেশে তিনি জানালেন, ‘ছোটা ঘোড়াই আছেন তিনি।’

 

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla