Malda: চোর সন্দেহে শিক্ষককে মারধর করার পরেও অধরা ছিলেন, অবশেষে গ্রেফতার তৃণমূল নেতা

Teacher Attacked: আগেই শিক্ষককে অন্যায়ভাবে মারধরের ঘটনায় নিখিলবঙ্গ শিক্ষক সমিতি-সহ ৪টি শিক্ষক সংগঠন মহকুমা শাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ জমা দেয়

Malda: চোর সন্দেহে শিক্ষককে মারধর করার পরেও অধরা ছিলেন, অবশেষে গ্রেফতার তৃণমূল নেতা
আক্রান্ত শিক্ষক। নিজস্ব চিত্র।

 মালদা: লাগাতার বিক্ষোভ ও আন্দোলনের জেরে অবশেষে নতি স্বীকার করতে বাধ্য হল প্রশাসন। এতদিন অধরা ছিলেন অভিযুক্ত ইংরেজবাজার পুরসভার কাউন্সিলর তথা বর্তমান কো-অর্ডিনেটর পরিতোষ চৌধুরী। শিক্ষককে অন্যায়ভাবে মারধর ও গায়ে কুকুর লেলিয়ে দেওয়ার অভিযোগে সোমবার অবশেষে গ্রেফতার করা হল ওই তৃণমূল নেতাকে (TMC Leader)।

আগেই শিক্ষককে অন্যায়ভাবে মারধরের ঘটনায় নিখিলবঙ্গ শিক্ষক সমিতি-সহ ৪টি শিক্ষক সংগঠন মহকুমা শাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ জমা দেয়। শিক্ষক সংগঠন সূত্রে জানা গিয়েছিল, তৃণমূলের নেতা বলেই অভিযুক্তকে ধরতে গড়িমসি করছে পুলিশ। অন্যায় করার পরেও ওই নেতা বুক ফুলিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ। ওই অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার না করা হলে আরও বড় আন্দোলনের হুমকি দিয়েছিল  শিক্ষক সংগঠনগুলি।  মহকুমা শাসকের কাছে এই মর্মে লিখিত অভিযোগ দায়ের করার পরেও লাগাতার বিক্ষোভ চালিয়ে যান শিক্ষক ও আদিবাসী সংগঠনগুলি। অবশেষে,  সোমবার ওই তৃণমূল নেতাকে গ্রেফতার করা হয়।

মালদহের জেলা ক্রীড়াক্ষেত্রে খুবই পরিচিত নাম সুদীপ টুডু। তাঁর একটা পরিচয় তিনি পেশায় শিক্ষক। তাঁর এক আত্মীয় মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। গত সোমবার তাঁকে দেখতে তিনি হাসপাতালে যান। তার পর নিজের গাড়ি চালিয়ে মালঞ্চপল্লীতে নিজের বাড়ি যান।

অভিযোগ, ওই তিন নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পরিতোষ চৌধুরী ও তাঁর সঙ্গী সাথীরা তাঁকে সাইকেল চুরির অপবাদ দিয়ে ঘিরে ধরেন। প্রথমে স্বাভাবিকভাবেই অবাক হয়ে যান ওই শিক্ষক। এর পর তাঁকে ধাক্কাধাক্কি করা হয় বলে অভিযোগ। তিনি নিজের গাড়ির চাবি দেখিয়ে জানান, তাঁর সঙ্গে নিজের গাড়ি আছে। আর তিনি একজন শিক্ষক। খামোখা তিনি কেন সাইকেল চুরি করতে যাবেন? এই কথা শুনে কাউন্সিলরকে নাকি বলতে শোনা যায় সঙ্গীসাথীদের, ‘শিক্ষকরা কি চুরি করে না?’

এর পর শিক্ষককে চূড়ান্ত হেনস্থা, মারধর করার পর তাঁর গায়ে কাউন্সিলরের পোষা কুকুরকে লেলিয়ে দেওয়া হয়। সেই কুকুরের কামড়ে ক্ষতবিক্ষত হয়ে যায় শিক্ষকের দেহ। দীর্ঘ রাস্তা তাঁকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হয়। স্থানীয়দের কয়েকজন ওই শিক্ষককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। এদিন কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর করেছেন সুদীপবাবু।

কপালে, গায়ে স্টিচ নিয়ে শিক্ষক বলেন, “আমাকে হঠাৎই তিন নম্বরের ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মারধর করেন। আমি জানাই আমি একজন স্কুল টিচার। আমার কাছে চারচাকা গাড়ি আছে। আমি চাবি দেখালাম। সব চাবি, মোবাইল কেড়ে নিল। তার পর বলল শিক্ষক কি চুরি করতে পারে না? এসব বলতে বলতে নিজের পোষা কুকুর আমার গায়ে লেলিয়ে দিল!” বলতে বলতে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তদন্ত শুরু করলেও মূল অভিযুক্তকে এখনও গ্রেফতার করেনি পুলিশ।

আরও পড়ুন: Barrackpore: আচমকা বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল ‘অর্জুন গড়’, তেলেগুভাষী দম্পতির ঘর থেকে উদ্ধার বিপুল রাসায়নিক!

আরও পড়ুন: North Bengal: রাতে SDO-বাংলোর কাছেই নামল ধস, নিখোঁজ পাহারাদার!

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla