Asansole: খনির ভিতর দুষ্কৃতী দৌরাত্ম, আত্মসমর্পণ বার্তাকে থোড়াই কেয়ার! ধানবাদ থেকে আসছে বুলেটপ্রুফ বাহিনি

Asansole: খনির ভিতর দুষ্কৃতী দৌরাত্ম, আত্মসমর্পণ বার্তাকে থোড়াই কেয়ার! ধানবাদ থেকে আসছে বুলেটপ্রুফ বাহিনি
নিজস্ব চিত্র

Coal Mine Case: ধানবাদ থেকে বুলেটপ্রুফ পুলিশ বাহিনী সোমবার মধ্যরাতে হাজির হবে। তার পর খনির ভেতর নেমে অভিযান চালাবে প্রশাসন।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: সৈকত দাস

Nov 01, 2021 | 9:47 PM

আসানসোল: প্রায় ২৪ ঘণ্টা হতে চলল। কিন্তু এখনও কুমারডুবি ভাগ্যলক্ষ্মী খনির ভেতর থেকে বার করা যায়নি একজন দুষ্কৃতীকেও। গোলাগুলির মধ্যে তাদের আত্মসমর্পণের বার্তা দেওয়া হয়। কিন্তু তার কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। সোমবার দিনভর কোলিয়ারির খনির ভিতর থেকে দুষ্কতৃীদের বের করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। তবে রাত পর্যন্ত দুষ্কৃতীরা বেরিয়ে আসেনি বা তাদের বের করাও যায়নি।

কুমারডুবি ভাগ্যলক্ষ্মী খনির উপরিভাগ ঘিরে রেখেছে পুলিশ ও সিআইএসএফ বাহিনী। এর মাঝে কোলিয়ারির কয়লাবাহী ট্রলি খনির ভেতর নামিয়ে চিরকুট পাঠানো হয় দুষ্কৃতীদের। তাতে লেখা ছিল আত্মসমর্পণের করার বার্তা। কিন্তু তাতে কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পর্যন্ত আসেনি। জানা গিয়েছে, ধানবাদ থেকে বুলেটপ্রুফ পুলিশ বাহিনী সোমবার মধ্যরাতে হাজির হবে। তার পর খনির ভেতর নেমে অভিযান চালাবে প্রশাসন। আপাতত খনি চত্বর খালি করে দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে চেষ্টার খামতি নেই। বের করে আনার চেষ্টা চলছে দুষ্কৃতীদের।

উল্লেখ্য, রবিবার মাঝরাতে কয়লা চুরি করতে ভাগ্যলক্ষ্মী খনিতে পৌঁছয় প্রায় ২০ জন দুষ্কৃতীর একটি দল। পুলিশ সূত্রে খবর, তামার তার কেটে খনির ভেতর ঢুকে যায় তারা। তার পর থেকে তাদের ধরতে হিমশিম দশা হয় পুলিশের। পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় খনির ভিতর থেকে গুলির লড়াই চালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা।

কিন্তু ২৪ ঘণ্টার মধ্যেও কেন কয়লা দুষ্কৃতীদের ধরা গেল না? পুলিশ জানাচ্ছে, চেষ্টার খামতি নেই। কিন্তু খনির মধ্যে থাকা এই দুষ্কৃতীদের কাছে প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। দফায় দফায় তারা তা দিয়ে পুলিশের ওপর আক্রমণ চালাচ্ছে। পুলিশের কাছে সহজে আত্মসমর্পণ করতে প্রস্তুত নয় এরা। দুষ্কৃতীদের আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। চিরকুট পাঠানো হয়। উল্টে তারা তারা পাল্টা গুলি চালায় বলে জানিয়েছে পুলিশ। শুধু কী তাই। খনির মধ্যে থেকেই গোলাগুলির পাশাপাশি বোমাও ছোড়া হয়। পুলিশও বাইরে থেকে গুলি করে। এভাবেই ২৪ ঘণ্টা হতে চলল।

আরও পড়ুন: Suvendu Adhikari: তৃণমূলের চেয়ে নাস্তিক সিপিএম ভাল ছিল, উৎসবে বিধানসভা চালায়নি: শুভেন্দু

গোটা খনি চত্বর ঘিরে ফেলেছে পুলিশ। সিআইএসএফ জওয়ানরাও প্রহরায় আছেন। কোলিয়ারির ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বলে কীভাবে অন্য পথে খনির ভেতরে যাওয়া যায় সেবিষয়েই আলোচনা করেছেন পুলিশ কর্তারা। কিছুতেই কোনও পথ না পেয়ে অবশেষে ধানবাদ থেকে বুলেটপ্রুফ পুলিশ বাহিনী আনা হচ্ছে। সোমবার মধ্যরাতেই হাজির হবেন তাঁরা। তার পর খনির ভেতর নেমে অভিযান চালাবে প্রশাসন। আপাতত তাই খনি চত্বর খালি করে দেওয়া হয়েছে। অপেক্ষার প্রহর গুনছে প্রশাসন।

আরও পড়ুন: Malda: মাস্কবিহীন মুখে প্রশাসনিক দফতরে মিটিংয়ে তৃণমূল নেতারা, পুলিশকে দেখেই দে দৌড়! 

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA