মহিলাদের উপর অত্যাচারে মানত, জোড়া পাঁঠা বলি দিলেন তৃণমূল বিধায়ক

প্রথম দফা ভোটে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছিল কেশিয়াড়িতে। মহিলা কর্মীরা অত্যাচারিত হয়েছেন বলে অভিযোগ তোলে তৃণমূল (TMC)। সেদিন পরেশ মুর্মুও (Paresh Murmu) ছুটে এসেছিলেন। তাঁর উপস্থিতিতে কর্মী সমর্থকেরা শপথ নেন ফের মুর্মুকে বিধায়ক করে জিতিয়ে আনবেন তাঁরা। তার পর জোড়া পাঁঠা বলি দেওয়া হবে।

মহিলাদের উপর অত্যাচারে মানত, জোড়া পাঁঠা বলি দিলেন তৃণমূল বিধায়ক
নিজস্ব চিত্র

পশ্চিম মেদিনীপুর: গত ২৭ মার্চ প্রথম দফার নির্বাচনে মহিলাদের উপর অত্যাচারের অভিযোগ উঠেছিল নছিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ডাডরা বুথ এলাকায়। তৃণমূল (TMC) আঙুল তুলেছিল কেন্দ্রীয় বাহিনীর দিকে। সেদিন কেশিয়াড়ির এলাকার কর্মী সমর্থকেরা নাকি মানত করেছিলেন আবার পরেশ মুর্মু বিধায়ক হলে জোড়া পাঁঠা বলি দেবেন তাঁরা। শনিবার সেই মানত পূরণ করলেন তাঁরা। ঢাক পিটিয়ে বিধায়ককে নিয়ে কালুয়াষাঁড়ের কাছে জোড়া পাঁঠা বলি দিলেন তৃণমূলের কর্মী সমর্থকেরা।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী পরেশ মুর্মু (Paresh Murmu) কে জেতানোর জন্য দিনরাত এক করে দলীয় প্রচার করেছেন কর্মীরা। নির্বাচনে ফলাফলে দেখা যায় দ্বিতীয় বারের জন্য ১৫ হাজারেরও বেশি ভোটে জয়লাভ করেছেন পরেশ মুর্মু। আর সেই জয়ের আনন্দে নয়াগ্রামে ধর্মীয় স্থান কালুয়াষাঁড়ের কাছে জোড়া পাঁঠা বলি দেন কর্মী সমর্থকেরা।

শনিবার ডাডরা বুথ এলাকায় কেশিয়াড়ি বিধানসভার দ্বিতীয়বারের বিধায়ক পরেশ মুর্মুকে ফুল দিয়ে সংবর্ধনা জানানো হয়। তৃণমূল স্তরের কর্মী সমর্থক ও মা বোনেদের ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানান বিধায়ক। তাঁর কথায়, “বিধায়ক জানান, ২৭ মার্চ প্রথম দফার ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনী ডাডরা বুথ এলাকায় ব্যাপক অত্যাচার চালায় তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের ওপরে। এমনকি মহিলাদেরও অত্যাচারিত হতে হয়েছিল। তার প্রতিবাদ জানান সবাই। সেদিনই মানত হয়েছিল জোড়া পাঁঠা বলি দেওয়ার।”

বিধায়ককে সংবর্ধনা জানানোর পরই গাড়িতে জোড়া পাঁঠা নিয়ে কালুয়াষাঁড়ের উদ্দেশে রওনা দেন তৃণমূল নেতৃত্ব। সামনে মোটর বাইকে কয়েকজন তৃণমূল কর্মী। পিছনে বিধায়কের গাড়ি আর তার পিছনের একটি গাড়িতে তোলা হয়। বাজনা বাজিয়ে সেই পাঁঠা দুটিকে গাড়িতে চাপিয়ে মোটরবাইকে রওনা দেন কর্মী সমর্থকেরা।

আরও পড়ুন: বিজেপিকে মেরে তাড়ানোর নিদান তৃণমূলের মেয়র পারিষদের

প্রসঙ্গত, প্রথম দফা ভোটে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছিল কেশিয়াড়িতে। মহিলা কর্মীরা অত্যাচারিত হয়েছেন বলে অভিযোগ তোলে তৃণমূল। সেদিন পরেশ মুর্মুও ছুটে এসেছিলেন। তাঁর উপস্থিতিতে কর্মী সমর্থকেরা শপথ নেন ফের মুর্মুকে বিধায়ক করে জিতিয়ে আনবেন তাঁরা। তার পর জোড়া পাঁঠা বলি দেওয়া হবে।