Duare Sarkar: স্কুলে পরীক্ষা চলাকালীন চলছে দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প, ‘দুয়ারে লজ্জা’, তোপ বিজেপির

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: জয়দীপ দাস

Updated on: Dec 01, 2022 | 10:15 PM

Duare Sarkar:অভিযোগ, স্কুলের বারান্দায় চলা দুয়ারে সরকার শিবিরের সেই ছবি তুলতে গেলে তেড়ে আসলেন তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি সালে হোসেন ওরফে তুহিন।

Duare Sarkar: স্কুলে পরীক্ষা চলাকালীন চলছে দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প, ‘দুয়ারে লজ্জা’, তোপ বিজেপির

কেতুগ্রাম: কিছুদিন আগে দশম একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর টেস্ট পরীক্ষা বন্ধ করে চলছে দুয়ারে সরকার চলার ছবি সামনে এসেছিল উলুবেরিয়া (Uluberia) দুই ব্লকের করাতবেড়িয়া হাইস্কুলে। যা নিয়ে জেলার রাজনৈতিক মহলে বিস্তর চাপানউতর চলে। এবার কার্যত একই ছবি দেখতে পাওয়া গেল পূর্ব বর্ধমানের (Purba Bardhaman) কেতুগ্রামে। স্কুলের গেট বন্ধ করে একদিকে চলছে পরীক্ষা আর একদিকে চলছে দুয়ারে সরকার (Duare Sarkar)। স্কুলের বারান্দায় চলা দুয়ারে সরকার শিবিরের সেই ছবি তুলতে গেলে তেড়ে এলেন তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি সালে হোসেন ওরফে তুহিন। 

ক্যামেরা বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। ছবি তুলতে গেলে কার্যত হুমকির সুরে বলেন, “স্কুলের বাইরে গেলে দেখে নেবে।” ঘটনাটি ঘটেছে কেতুগ্রামের আমগড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে। অভিযোগ, স্কুলের পড়ুয়াদেরও সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুলতে বাধা দেওয়া হয়েছে। এদিকে ততক্ষণে খবর চলে গিয়েছে পুলিশের কাছে। পুলিশ এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়। খবর পেয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলার জেলাশাসক প্রিয়াঙ্কা শিংলা তৎক্ষণাৎ স্কুল থেকে দুয়ারে সরকার শিবির উঠিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন। ঘটনাটি ঘটেছে কেতুগ্রামের আমগড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে। 

এই খবরটিও পড়ুন

বিডিও পুষ্পেন্দু স্যানাল বলেন, “গতকালই ওখানে দুয়ারে সরকার চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। স্কুলের উপরের তলায় পরীক্ষা হচ্ছিল। তবে আজকে থেকে ক্যাম্প সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর কোনও সমস্যা হবে না।” তবে সংবাদমাধ্যমকে বাধা দেওয়া ঠিক হয়নি বলে দাবি জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়ের। একই কথা আমগড়িয়া পঞ্চায়েতের উপপ্রধান সৈদুল ইসলামের। আগরডাঙা পঞ্চায়েতের উপপ্রধান সৈদুল ইসলাম বলেন, “”দুয়ারে সরকার ও পরীক্ষা একসঙ্গে হয় না। কেন হল আমরা জানব। সংবাদমাধ্যমে ছবি তুলতে না দেওয়া আমাদের ভুল হয়েছে। আমরা ক্ষমাপ্রার্থী।” জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “সংবাদমাধ্যমকে এ ভাবে বাধা দেওয়া যায় না। যাঁরা করেছে আমরা তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।” তোপ দেগেছে বিজেপি। বিজেপির জেলা সভাপতি গোপাল চট্টোপাধ্যায় বলেন, “এটা দুয়ারে সরকার নয়। দুয়ারে লজ্জা। দুয়ারে শিক্ষা ব্যবস্থার জলাঞ্জলি। খবর করতে গেলে সংবাদমাধ্যমকে আক্রমণ করা হচ্ছে। এটাই পশ্চিমবঙ্গের সংস্কৃতি হয়ে দাঁড়িয়েছে।”  

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla