Firhad Hakim on Tripura Municipal Election Results 2021: ‘বাপের ব্যাটা হলে বিপ্লব দেব ভোটে লড়তে দিত….প্রহসন হয়েছে ত্রিপুরায়’

Tripura Municipal Election Results 2021: ত্রিপুরার পুরভোটের ফলাফল নিয়ে রাজ্যের শাসক দলকে খোঁচা দিতে ছাড়েননি বিজেপির সর্বভারতীয়-সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। হেস্টিংসের বিজেপি কার্যালয় থেকে তাঁদের কটাক্ষ, অশান্তিকারী দলকে সমর্থন করেনি ত্রিপুরার মানুষ। তাই তাঁদের অভিনন্দন।

Firhad Hakim on Tripura Municipal Election Results 2021: 'বাপের ব্যাটা হলে বিপ্লব দেব ভোটে লড়তে দিত....প্রহসন হয়েছে ত্রিপুরায়'
ফিরহাদ হাকিম। ফাইল চিত্রI

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: রবিবারের বারবেলায় পুরসভা নির্বাচনের ফলাফলকে কেন্দ্র করে সরগরম ত্রিপুরা। একের পরে এক পুরসভায় রেকর্ড জয় বিজেপির। আমবাসা পুরপরিষদের একটি আসনে জয়ী হয়েছে তৃণমূল। বিজেপির দখলে আগরতলা কর্পোরেশন। ২৬ টি ওয়ার্ডেই জয়ী বিজেপি প্রার্থীরা। ত্রিপুরা পুরসভার ফলাফল নিয়ে এ বার বিস্ফোরক মন্তব্য বাংলার পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের। ত্রিপুরায় নির্বাচনের বদলে প্রহসন হয়েছে বলে কটাক্ষ করেন তিনি।

ফিরহাদ এদিন বলেন, “ত্রিপুরায় কোনও নির্বাচন হয়নি। নির্বাচনের নামে প্রহসন হয়েছে। বাংলার মানুষ এরকম নন। আমরা বিশ্বাস করি, সবার উপরে মানুষ সত্য। যদি বাপের ব্যাটা হয়ে থাকত, তবে বিপ্লব দেব ভোটে লড়ত দিত…বুঝতে পারত কত ধানে কত চাল…সাপ ভয় পেয়ে দংশায়, আর বিজেপি ভয় পেয়ে ভোট টাই করতে দেয়নি। এখানে ভোটটাই হয়নি।”

এখানেই না থেমে পরিবহনমন্ত্রীর আরও সংযোজন, “সভা করতে দেয়নি। আমরা সভা করতে গিয়ে কম বাধা পেয়েছি! একটা প্রচার করতে দেয়নি। একের পর এক বাধা দিয়ে গিয়েছে। ঠিকঠাকভাবে তো ভোট টাই করতে দেয়নি। ত্রিপুরায় কোনও গণতন্ত্র নেই। যদি থাকত, তাহলে নির্বাচন এরকম হত না।”

রবিবারই  ত্রিপুরায় পুরভোটের ফলঘোষণা। আগরতলা পুরসভা, ৬ নগর পঞ্চায়েত, ৭টি পৌর পরিষদ মিলিয়ে মোট ৩৩৪টি আসনে এই নির্বাচন হয়েছে। এরমধ্যে ১১২টি আসনে অন্য কোনও দল প্রার্থী না দেওয়ায়, সেই আসনগুলিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে গিয়েছে বিজেপি।  হাইভোল্টেজ এই নির্বাচনে বৃহস্পতিবার ভোট গ্রহণ কেন্দ্র করেই ছড়িয়েছিল উত্তেজনা। রবিবার সকাল থেকেই শুরু হয়েছে ভোট গণনা। নির্বাচন কেন্দ্র করে যাতে রাজ্যে অশান্তি সৃষ্টি না হয়, তার জন্য ত্রি-স্তরীয় নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ত্রিপুরা (Tripura) ১৮৩ আসনে জিতে ক্রমশই ধরা ছোঁয়ার বাইরে বিজেপি, দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে তৃণমূল।

ত্রিপুরার পুরভোটের ফলাফল নিয়ে রাজ্যের শাসক দলকে খোঁচা দিতে ছাড়েননি বিজেপির সর্বভারতীয়-সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। হেস্টিংসের বিজেপি কার্যালয় থেকে তাঁদের কটাক্ষ, অশান্তিকারী দলকে সমর্থন করেনি ত্রিপুরার মানুষ। তাই তাঁদের অভিনন্দন। প্রসঙ্গত, শুধু আমবাসায় খাতা খুলেছে তৃণমূল। তবে ভোট সংখ্যায় তারা বিরোধী দল সিপিএমকে জোর টক্কর দিয়েছে।

ত্রিপুরা পুরসভা নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে দিলীপের টিপ্পনী, “ত্রিপুরার সমস্ত মানুষকে আমার তরফ থেকে অভিনন্দন। তারা বিজেপিকে সমর্থন করেছে এবং যে দল ওখানে অশান্তি করছিলো তাদের সমর্থন করেনি। তৃণমূল কংগ্রেস একটা সিট পেয়েছে। মানুষ নিরাশ করেনি। ভবিষ্যতে ভাল কাজ করুক তৃণমূল কংগ্রেস।”

অন্যদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের মন্তব্য, “তৃণমূল কংগ্রেস যতই এখান থেকে গুন্ডা-বদমাশ নিয়ে গিয়ে ত্রিপুরায় গন্ডগোল করার চেষ্টা করুক, কিছু মিডিয়ার অংশকে এমনভাবে প্রচার করার চেষ্টা করছে, কিন্তু আমরা আগেই বলেছি. ত্রিপুরা তৃণমূল কংগ্রেস আমাদের অন্যতম বিরোধী নয়। ত্রিপুরার মানুষ বিজেপির সঙ্গে রয়েছে। এই সিদ্ধান্তকে আমরা অভিনন্দন জানাই। গোটা রাজ্যজুড়ে ত্রিপুরাবাসীর জয়কে সেলিব্রেট করব।”

এদিকে, বঙ্গে আসন্ন পুরভোট। সেই প্রস্তুতি এখন থেকেই শুরু করে দিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। ইতিমধ্যেই পুরভোটের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে তৃণমূল। বিজেপির পুরসভা প্রার্থী তালিকা আজকালের মধ্যে প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন দলের রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

আরও পড়ুন: BJP MLA: ‘নিখোঁজ’ পদ্ম বিধায়ককে খুঁজতে পুলিশের দ্বারস্থ যুব তৃণমূল!

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla