Durga Puja 2021: দশমীর রাতেই বোধন হয় এই দুর্গার, রায়গঞ্জের খাদিমপুরে উত্‍সবের মেজাজ

Raiganj: ১৫০০ পরিবারের প্রায় ৭৫০০ জন গ্রামবাসীদের উদ্যোগে দশমীর রাত থেকে শুরু হয় দেবী বলাই চণ্ডীর পুজো

Durga Puja 2021:  দশমীর রাতেই বোধন হয় এই দুর্গার, রায়গঞ্জের খাদিমপুরে উত্‍সবের মেজাজ
দেবী বলাইচণ্ডী, নিজস্ব চিত্র

উত্তর দিনাজপুর: দশমী। দশমী মানেই মন খারাপের সুর। কিন্তু, এই ছবি সম্পূর্ণ উল্টো। দশমী এলে বিষাদ তো নয়ই, উল্টে আনন্দে মেতে ওঠেন রায়গঞ্জের খাদিমপুরের মানুষ। কারণ, দেবীর আগমন। হ্যাঁ, ঠিকই পড়ছেন! দশমীতেও আগমন ঘটে এই দেবীর। এদিনই হয় বোধন। ইনি দেবী দুর্গারই অন্য রূপ। নাম বলাই চণ্ডী।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রায়গঞ্জের কমলাবাড়ির ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের খাদিমপুর গ্রামের মানুষ গোটা বছর ধরে এই দিনটির জন্যই অপেক্ষা করে থাকেন। গোটা বাংলা জুড়ে যখন বিষাদের বিসমিল্লা সুর ভাঁজে, তখন এই গ্রামে বয়ে যায় আনন্দ লহরী। কারণ মায়ের আগমন। দশমীর রাতে বোধন হয় দেবী বলাই চণ্ডীর।

১৫০০ পরিবারের প্রায় ৭৫০০ জন গ্রামবাসীদের উদ্যোগে দশমীর রাত থেকে শুরু হয় দেবী বলাই চণ্ডীর পুজো। তিনদিন ধরে অর্থাৎ দশমী থেকে দ্বাদশী পর্যন্ত চলবে এই পুজো। প্রাচীন রীতি মেনে এ বারেও শুরু হয়েছে সেই পুজো। এই প্রতিমারও কিছু বিশেষত্ব রয়েছে। দেবী এখানে চতুর্ভুজা। সিংহবাহিনী এই দেবী কিন্তু অসুরদলনী নন। তাঁর সঙ্গে বিরাজ করেন লক্ষ্মী, গণেশ, কার্তিক, সরস্বতী বিরাজমান।

গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, এই পূজো কতটা প্রাচীন তা সঠিকভাবে জানা নেই। তবে কমপক্ষে তিনশো বছরের বেশি কিছু সময় ধরে এই পুজোর প্রচলন হয়ে আসছে। কালো কষ্টিপাথরে খোদাই করা বিগ্রহটির সারাবছরই পুজো হয়। এমনকী, মন্দিরকে জড়িয়ে পাকুড় গাছটি প্রথম থেকেই রয়েছে বলে দাবি গ্রামবাসীদের।

সারা বছর নিত্য পুজো হয় এই দেবীর। আগে প্রতিমা বিসর্জন না দিয়ে আগে মন্দির চত্বরে থাকা গাছের নীচেই পুরনো মন্দিরে প্রতিমা রাখা থাকত। পরে নতুন করে প্রতিমা নির্মাণ করে সেই মূর্তির বিসর্জন না দিয়ে মন্দিরেই রাখা হয়। পরের বছর বিশ্বকর্মা পুজোর দিনে প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হয়। তারপরেই মৃত্‍-শিল্পীদের প্রতিমা গড়ার বরাত দেওয়া হয়। বংশ পরম্পরায় মৃত্‍ শিল্পীরা সেই প্রতিমা নির্মাণ করেন।

দেবী বলাইচণ্ডীর নিত্যসেবাও হয়। বংশপরম্পরায় পুরোহিতরাই দেবীর পুজো করেন। পুজোর পর চলে মঙ্গলযজ্ঞ। ভক্তদের উত্‍সর্গ করা পায়রা, পাঁঠা বলিও দেওয়া হয় এই পুজোতে।  প্রসাদ হিসেবে ভক্ত ও বাসিন্দাদের মধ্যে খিচুড়ি, মিষ্টি ও ফল বিলি করা হয়। পুজো উপলক্ষ্য়ে টানা এক সপ্তাহ চলে বিরাট মেলা। এই মেলা চণ্ডীমেলা বলে খ্যাত। তবে, করোনার প্রকোপে গতবছর মেলা হয়নি। এ বারেও কোভিড-আবহে মেলা হচ্ছে না বলেই জানিয়েছেন বাসিন্দারা।

পুজোর প্রতিদিনই পুরোহিত মঙ্গলযজ্ঞ করেন। সেই সঙ্গে দূর-দূরান্ত থেকে আসা ভক্তদের উৎসর্গ করা পাঠা, পায়রা বলির প্রচলন রয়েছে। প্রসাদ হিসেবে ভক্ত ও বাসিন্দাদের মধ্যে খিচুড়ি, মিষ্টি ও ফল বিলি করা হয়। শুধু তাইই নয়, এই বলাইচন্ডীর পুজো উপলক্ষে এক সপ্তাহ ধরে বিরাট মেলা বসে। যা এতদঅঞ্চলে চন্ডীমেলা বলে খ্যাত। তবে গত বছর মেলা হয়নি। এবারেও করোনা আবহে মেলা হচ্ছে না বলেই জানান বাসিন্দারা।

আরও পড়ুন: Durga Puja 2021: নররক্তেই তুষ্ট হন দেবী, এ দুর্গার সঙ্গে সাদৃশ্য রয়েছে কোচ জাতির মানুষের…

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla