Punjab Assembly Election 2022: ‘ফাঁসানো জন্য ষড়যন্ত্র করেছিল চন্নি সরকার’, মাদক মামলায় জামিন পেতেই বিস্ফোরক অকালি দলের নেতা

Bikram Singh Majithia: পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নির নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকারের বিরুদ্ধে "ষড়যন্ত্রের" অভিযোগ তুলেছেন অকালি দলের নেতা। মাজিথিয়ার বক্তব্য, তাকে ফাঁসানোর জন্য ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল।

Punjab Assembly Election 2022: 'ফাঁসানো জন্য ষড়যন্ত্র করেছিল চন্নি সরকার', মাদক মামলায় জামিন পেতেই বিস্ফোরক অকালি দলের নেতা
পঞ্জাব সরকারের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন অকালি দলের নেতা বিক্রম সিং মাজিথিয়া (ফাইল ছবি)

চণ্ডীগঢ়: মাদকের মামলায় পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে (Punjab and Haryana High Court) অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পাওয়ার পর থেকেই ইঙ্গিত মিলছিল। অবশেষে হলও তাই। জামিন পেতেই বোমা ফাটালেন শিরোমণি অকালি দলের নেতা বিক্রম সিং মাজিথিয়া (SAD leader Bikram Singh Majithia)। পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নির নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকারের বিরুদ্ধে “ষড়যন্ত্রের” অভিযোগ তুলেছেন অকালি দলের নেতা। মাজিথিয়ার বক্তব্য, তাকে ফাঁসানোর জন্য ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল।

পঞ্জাব সরকারের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ

মঙ্গলবার এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে মাজিথিয়া গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন পঞ্জাবের কংগ্রেস সরকারের বিরুদ্ধে। তাঁর অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নি, রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতি নভজ্যোত সিং সিধু মিলে প্রধানমন্ত্রীর ফিরোজপুর সফরের সময় তাঁর কনভয়কে থামানোর জন্য একটি “সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র” করেছিলেন।

বিক্রম সিং মাজিথিয়ার কথায়, “যে সরকার প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করতে পারে, তারা যে কোনও কিছু করতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর তুলনায় আমি তো চুনোপুটি ওদের কাছে। কোনও প্রধানমন্ত্রী এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হননি। এটি একটি গুরুতর নিরাপত্তার ত্রুটি।”

মাদক মামলায় ষড়যন্ত্র করে ফাঁসানোর অভিযোগ

এর পাশাপাশি পঞ্জাবের প্রাক্তন ডিজিপি সিদ্ধার্থ চট্টোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গও টেনে আনেন। তিনি বলেন, “যখন মুখ্যমন্ত্রী বা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সিধু কোথাও সফর করেন, তাঁদের কি কখনও থামানো হয়েছে? তাহলে কেন ফিরোজপুরে প্রধানমন্ত্রীকে ২০ মিনিট গাড়িতে অপেক্ষা করতে হল?”

তাঁকে ফাঁসানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন মাজিথিয়া। তাঁর বক্তব্য, “রাজ্যের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো, তিন মাসে চারজন ডিজিপি পরিবর্তন করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী ও অন্যান্য মন্ত্রীরা তাঁদের পদ বাঁচাতে আমাকে ফাঁসানোর ষড়যন্ত্র করেছিলেন। শীর্ষ পুলিশকর্তারা খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ না করে সত্যের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন”।

মাজিথিয়া আরও অভিযোগ করেন, অকালি দলের নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুলিশকে চাপ দিয়েছিল কংগ্রেস। এর জন্য কংগ্রেস সরকার টাকা দেওয়া থেকে শুরু করে এবং হুমকি পর্যন্ত দিয়েছিল পুলিশদের। তাঁর কথায়, ২০১৩ সালে কোনও মাদক যোগ ছাড়াই তাকে আদালত থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল। বলেন, “আমার নামও নেওয়া হয়নি, এমনকী আদালতেও তলব করা হয়নি। ডিসেম্বরে যে এফআইআর করা হয়েছিল, সেটি একটি রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ছাড়া আর কিছু নয়।”

উল্লেখ্য, মাজিথিয়ার বিরুদ্ধে গত বছরের ২০ ডিসেম্বর মোহালিতে মাদকদ্রব্য ও সাইকোট্রপিক পদার্থ আইনের আওতায় মামলা করা হয়েছিল। তারপর থেকেই তিনি ‘আন্ডার গ্রাউন্ড’ ছিলেন। মোহালি আদালত তার আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করার পর তিনি হাইকোর্টে যান। পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট মাজিথিয়াকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর করে। তাঁকে ১২ জানুয়ারী সকাল ১১ টায় তদন্তকারী আধিকারিকের সামনে হাজিরার নির্দেশ দেয়।

আরও পড়ুন : UP Assembly Election 2022: ‘বিজেপি প্রতিশ্রুতি পূরণ করেনি, বিকল্প হিসেবে মানুষ সপাকেই চায়’, দাবি অখিলেশের

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla