Uttar Pradesh Assembly Election : ‘বিজেপির চাপেই হয়ত…’, ভোট ময়দানে মায়াবতীর নিষ্ক্রিয়তায় অবাক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী

Uttar Pradesh Assembly Election : ‘বিজেপির চাপেই হয়ত...’, ভোট ময়দানে মায়াবতীর নিষ্ক্রিয়তায় অবাক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী
প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (ফাইল ছবি)

UP Election : উত্তরপ্রদেশে নির্বাচনী দামামা বাজার বহু আগে থেকেই সরগরম হয়ে উঠেছিল সেই রাজ্যের রাজনৈতিক ময়দান। কিন্তু প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এদিন জানান যে মায়াবতীকে সেই অর্থে নির্বাচনী প্রচার করতে না দেখতে পেরে তিনি খুবই অবাক হয়েছেন।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: অঙ্কিতা পাল

Jan 22, 2022 | 8:42 PM

লখনউ : উত্তরপ্রদেশে নির্বাচনী দামামা বাজার বহু আগে থেকেই সরগরম হয়ে উঠেছিল সেই রাজ্যের রাজনৈতিক ময়দান। বিভিন্ন প্রকল্প উদ্বোধনের অছিলায় প্রচার শুরু করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিনাথরা। প্রচারে নেমেছিলেন অখিলেশ যাদব, প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর মতো বিরোধী নেতারাও। তবে দেখা মেলেনি বহুজন সমাজ পার্টির প্রধান তথা উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মায়াবতী। আর ময়দানী প্রচার ময়দানে মায়াবতীর অনুপস্থিতি চোখ কপালে তুলেছিল অনেকেরই। এমনকি মায়াবতীর অনুপস্থিতি অবাক করেছে খোদ প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকেও। আজ এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে সেই কথা স্বীকার করলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক নিজেই।

প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এদিন জানান যে মায়াবতীকে সেই অর্থে নির্বাচনী প্রচার করতে না দেখতে পেরে তিনি খুবই অবাক হয়েছেন। এদিন সংবাদ সংস্থা এএনআইকে কংগ্রেস নেত্রী মায়াবতী প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি খুবই অবাক হয়েছি… ছয়-সাত মাস আগে যখন আমরা দেখি যে তাঁর দল সেভাবে প্রচারে সক্রিয় নয় তখন আমরা ভেবেছিলাম যে তাঁরা হয়ত নির্বাচনের কাছাকাছি সময়ে এসে প্রচার শুরু করবেন। তবে নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। নির্বাচনী প্রক্রিয়ার মাঝামাঝি এসেও এখনও আমরা দেখতে পারছি যে তাঁর (মায়াবতী) দল এখনও সক্রিয় নয়। তিনি খুবই চুপচাপ রয়েছেন। আমি এই বিষয়টি ঠিক বুঝতে পারছি না।’ এরপর প্রিয়াঙ্কা গান্ধী আরও বলেন, ‘হতে পারে যে বিজেপি তাঁর উপর কোনও ধরনের চাপ সৃষ্টি করছে।’এরপর প্রিয়াঙ্কা আরও বলেন, ‘আমি উত্তরপ্রদেশের জন্য কথা বলতে পারি। এর আগে আমরা জোট গড়ে ভোটে লড়েছিলাম। ২০১৭ সালে আমরা সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে জোটে গড়ে লড়েছিলাম। তার আগে আমরা একবার বিএসপির সাথেও জোট গড়েছিলাম। তাই এবার উত্তরপ্রদেশে আমরা এই পথ বেছে নিয়েছি (একা লড়াই করার)। তবে অন্য রাজ্যে কংগ্রেস কোন পথ বেছে নেবে তা এখনই আমি বলতে পারব না।’

উল্লেখ্য, এর আগে বহুজন সমাজ পার্টি প্রধান মায়াবতী ঘোষণা করেছিলেন যে তিনি নিজে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না। তবে নির্বাচনে না লড়লেও দলের হয়ে তিনি প্রচারে সক্রিয় থাকবেন বলে মনে করেছিলেন প্রায় সব রাজনৈতিক বিশ্লেষকই। তবে তিনি নির্বাচনী ময়দানে সেই অর্থে নামেননি। যা অবাক করেছে অনেককে। তবে নেপথ্যে থেকে দলের নির্বাচনী সব সিদ্ধান্তই যে মায়াবতী নিচ্ছেন, সেই বিষয়টি স্পষ্ট। শনিবার বিএসপি-র ৫১ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেন মায়াবতী। দ্বিতীয় দফার ভোটের জন্য এই তালিকা প্রকাশ করেন বহুজন সমাজ পার্টির সুপ্রিমো। পাশাপাশি দলের জন্য নতুন এক স্লোগানেরও ঘোষণা করেন মায়াবতী।

এদিন প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করে মায়াবতী বলেন, ‘উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনের দ্বিতীয় দফায় যে ৫৫টি আসনে ভোটগ্রহণ হবে তার জন্য আজ আমি দলের ৫১ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করলাম। এবার আমাদের দলের স্লোগান হবে ‘হর পোলিং বুথ কো জিতনা হ্যাঁ, বিএসপিকো সত্তা মে লানা হ্যাঁ’ (প্রতিটি বুথে জিততে হবে, বিএসপিকে ক্ষমতায় আনতে হবে)। আমি আশা করছি দলের কর্মীরা কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে ২০০৭ সালের মতো এবারও উত্তরপ্রদেশে বিএসপির সরকার গঠন নিশ্চিত করবেন।’

আরও পড়ুন : Assembly Election 2022 : প্রচারে কিছুটা ছাড় মিললেও নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ল ৩১ অবধি, নির্দেশিকা জারি কমিশনের

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA