জানতেন কি? মনোজ বাজপেয়ীর স্ত্রী রোম্যান্স করেছেন ঋত্বিক-অজয় এমনকি ববি দেওলের সঙ্গে!

কীভাবে মনোজের সঙ্গে তাঁর আলাপ, শাবানা বলেন “মনোজ এবং আমি বহু পুরনো সময় থেকে একসঙ্গে আছি। একে অপরের সঙ্গে ‘করীব’-এর ঠিক পরে দেখা হয়।

জানতেন কি? মনোজ বাজপেয়ীর স্ত্রী রোম্যান্স করেছেন ঋত্বিক-অজয় এমনকি ববি দেওলের সঙ্গে!
ঋত্বিক-শাবানা।

দুর্দান্ত অভিনেতা তিনি। তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। মনোজ বাজপেয়ী এমন একজন অভিনেতা যিনি নিজের চরিত্রের প্রয়োজন অনুযায়ী নিজেকে বদলে ফেলতে পারেন। আবার অন্য দিকে তাঁর নতুন ওয়েব শোয়ের টাইটেলের মতো তাঁর রোজনামচার বাস্তব জীবন। মনোজ নিজেও একেবারে ‘ফ্যামিলি ম্যান’। অভিনেত্রী শাবানার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। দম্পতির এক কন্যা সন্তানও রয়েছে। আভা নায়লা।

অনেকেই জানেন না, মনোদের স্ত্রী শাবানা, নেহা নামেও বেশি পরিচিত। তিনি ৯-এর দশকের শেষের দিকে এবং ২০০০ সালের প্রথম দিকে একজন খ্যাতনামা অভিনেত্রী ছিলেন। বিধু বিনোদ চোপড়ার ‘করীব’ ছবিতে (১৯৯৮) ববি দেওলের বিপরীতে নেহার প্রথম অভিনয়।

 

 

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Old_is_gold_143 (@old_is_gold_1435)

 

অজয় দেবগনের বিপরীতে ‘যোগী পেয়ার কী জিৎ’ (১৯৯৯) ছবিতেও অভিনয় করেছিলেন শাবানা। ২০০০ সালে, তিনি ‘ফিজা’ ছবিতে ঋত্বিক রোশনের সঙ্গে অন স্ক্রিন রোম্যান্সও করে। শাবানা এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “আমি কখনও নেহা ছিলাম না। আমি সবসময় শাবানাই ছিলাম। আমি আমার নাম পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছিলাম। আমার এতে মত ছিল না। আমার বাবা-মা গর্বের সঙ্গে নাম রেখেছিলেন শাবানা। এটিকে পরিবর্তন করার দরকার ছিল না, কিন্তু কেউই আমার কথায় কান দেয়নি।”

কীভাবে মনোজের সঙ্গে তাঁর আলাপ, শাবানা বলেন “মনোজ এবং আমি বহু পুরনো সময় থেকে একসঙ্গে আছি। একে অপরের সঙ্গে ‘করীব’-এর ঠিক পরে দেখা হয়। ‘করীব’ এবং ‘সত্য’ একই মাসে মুক্তি পেয়েছিল। মনোজ এবং আমি একে অপরকে বুঝতে শুরু করি। আমরা আমাদের পেশাদার এবং ব্যক্তিগত জীবন মেশাই না। আমাদের মধ্যে এক স্বাস্থ্যকর সম্পর্ক রয়েছে।” ২০০৬ সালে গাঁটছড়া বাঁধেন মনোজ-শাবানা

 

আরও পড়ুন দেখুন গ্যালারি: দেশের ৮ গা ছমছমে ভূতুড়ে রেল স্টেশন